ফরিদপুরে জেলা ছাত্রলীগের হামলায় মেডিক্যাল কলেজের ৩ নেতাকর্মী আহত

Send
ফরিদপুর প্রতিনিধি
প্রকাশিত : ০১:৪৫, মে ১৯, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ০২:১৪, মে ১৯, ২০১৯

ছুরিকাঘাতে আহত শিক্ষানবিশ চিকিৎসক ও ফরিদপুর মেডিক্যাল কলেজ ছাত্রলীগের সহসভাপতি আদনানতুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি ও তার অনুসারীদের হামলায় ফরিদপুর মেডিক্যাল কলেজ ছাত্রলীগের তিন নেতাকর্মী আহত হওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এর মধ্যে ছুরিকাঘাতে আহত একজন আশঙ্কাজনক অবস্থায় ফরিদপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। শুক্রবার (১৭ মে) দিবাগত রাত সোয়া ৩টার দিকে শহরের গোয়ালচামট এলাকার ভাঙ্গারাস্তার মোড়ে এ ঘটনা ঘটে।

আহতরা হলেন- শিক্ষানবিশ চিকিৎসক ও মেডিক্যাল কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি মো. রায়হানুল ইসলাম (২৫), শিক্ষানবিশ চিকিৎসক ও কলেজ শাখা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি আদনান ইব্রাহিম (২৫) এবং পঞ্চম বর্ষের শিক্ষার্থী ছাত্রলীগ কর্মী মো. রেদোয়ান খান (২৩)। এরমধ্যে আদনান ইব্রাহিম ছুরিকাঘাতে গুরুতর আহত হয়েছেন। ছাত্রলীগ কর্মী মো. রেদোয়ান খানও হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন। এছাড়া রায়হানুল ইসলামকে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে ছেড়ে দেওয়া হয়।

মেডিক্যাল কলেজ শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি রায়হানুল ইসলাম বলেন, শুক্রবার রাতে সেহরির পর আমি, আদনান ও রেদোয়ান চা পান করতে কলেজ ক্যাম্পাস থেকে আনুমানিক দুই কিলোমিটার দূরে ভাঙ্গা রাস্তার মোড়ে যাই। সেখানে আমরা পৌঁছানোর আগে থেকেই অবস্থান করছিলেন জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি ও তার সমর্থকরা। পরে দোকানে বসে সিগারেট খাওয়া নিয়ে জেলা ছাত্রলীগের নেতাকর্মীদের সঙ্গে আমাদের বাদানুবাদ হয়। এক পর্যায়ে আমাদের মারধর করা হয়।

তিনি অভিযোগ করেন, মারধরের এক পর্যায়ে জেলা ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা আদনানের পিঠে ও পায়ে ছুরি চালায়। এতে চিকিৎসক আদনান গুরুতর আহত হন।

তবে জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি নিশান মাহমুদ দাবি করেছেন, ঘটনার সঙ্গে তার কোনও সম্পৃক্ততা নেই।

তিনি বলেন, ‌‘ঘটনার সময় আমি ওই এলাকায় ছিলাম না। তবে খবর পেয়ে পরে ঘটনাস্থলে গিয়েছি।’

এ বিষয়ে ফরিদপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক কামদাপ্রসাদ সাহা জানান, বর্তমানে তিনি ঢাকায় অবস্থান করছেন। তবে হামলা ও ছুরিকাঘাতের বিষয়ে তিনি অভিযোগ পেয়েছেন।

তবে ফরিদপুর কোতোয়ালি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এ এফ এম নাসিম হামলা, মারধর ও ছুরিকাঘাতের বিষয়ে কিছুই জানেন না। তিনি বলেন, শুক্রবার দিবাগত রাত সোয়া ৩টার দিকে শহরের ভাঙ্গা রাস্তার মোড়ে মারপিটের কোনও ঘটনার কথা আমার জানা নেই। এ বিষয়ে কোনও অভিযোগ আসেনি। অভিযোগ পেলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

/টিটি/

লাইভ

টপ