চলন্ত বাসে গণধর্ষণ: চালকসহ চারজনের যাবজ্জীবন

Send
টাঙ্গাইল প্রতিনিধি
প্রকাশিত : ০০:৪৩, মে ২৩, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ০০:৫৩, মে ২৩, ২০১৯

আদালত

টাঙ্গাইলের ধনবাড়ীতে চলন্ত বাসে পোশাকশ্রমিককে গণধর্ষণের মামলায় বাসের চালক ও তিন সহকারীকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। একইসঙ্গে তাদের প্রত্যেককে একলাখ টাকা করে জরিমানা করা হয়েছে।

বুধবার (২২ মে) দুপুরে টাঙ্গাইলের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক বেগম খালেদা ইয়াসমিন তিন আসামির উপস্থিতিতে এ রায় দেন। টাঙ্গাইলের কোর্ট ইন্সপেক্টর আনোয়ারুল ইসলাম এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

দণ্ডপ্রাপ্তরা হলো– বিনিময় পরিবহন বাসের চালক ধনবাড়ী উপজেলার ফকিরবাড়ী গ্রামের জয়নাল আবেদীনের ছেলে হাবিবুর রহমান নয়ন (২৮), হেলপার একই উপজেলার দয়ারামবাড়ী গ্রামের আরশেদ আলীর ছেলে আব্দুল খালেক ভুট্ট (২৩) ও চতুটিয়া গ্রামের মৃত কছিম উদ্দিনের ছেলে আশরাফুল (২৬) এবং সুপারভাইজার নিজবর্ণি গ্রামের মৃত আব্দুল মোতালেবের ছেলে রেজাউল করিম জুয়েল (৩৮)। এ ঘটনায় রেজাউল করিম জুয়েল পলাতক রয়েছে।

আদালত সূত্র জানায়, ২০১৬ সালের ১ এপ্রিল ওই নারী পোশাক শ্রমিক ধর্ষণের শিকার হন। বিষয়টি থানায় জানানো হলে ওইদিনই পুলিশ ঘটনার সঙ্গে জড়িত তিনজনকে গ্রেফতার করে। পরে ওই নারী পোশাক শ্রমিকের স্বামী বাদী হয়ে টাঙ্গাইল মডেল থানায় ৯ জনকে আসামি করে মামলা দায়ের করেন। গ্রেফতার হওয়া তিন আসামি আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেয়। পুলিশের তদন্তে আরও একজনের নাম উঠে আসলে চারজনকে আসামি করে আদালতে অভিযোগপত্র দেয় পুলিশ। দীর্ঘ শুনানি শেষে আদালত আজ এ মামলার রায় দেন।

এ মামলায় রাষ্ট্রপক্ষে আইনজীবী ছিলেন নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিশেষ পিপি নাসিমুল আক্তার নাসিম। তাকে সহায়তা করেন অ্যাডভোকেট আতাউর রহমান আজাদ।

 

/এমএ/

লাইভ

টপ