বেলকুচির ইউএনও লাঞ্ছিত, যুবলীগ নেতাসহ ৩২ জনের বিরুদ্ধে মামলা

Send
সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি
প্রকাশিত : ১৮:১৫, মে ২৩, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ০৯:১৭, মে ২৪, ২০১৯

সিরাজগঞ্জসিরাজগঞ্জের বেলকুচিতে উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) সাইফুল ইসলামকে লাঞ্ছনার ঘটনায় বেলকুচি উপজেলা যুবলীগের আহ্বায়ক ও উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক সাজ্জাদুল হক রেজাসহ ৩২ জনকে আসামি করে মামলা হয়েছে। বুধবার (২২ মে) রাতে ইউএনও সাইফুল ইসলাম নিজেই বাদী হয়ে বেলকুচি থানায় মামলা করেন। মামলায় সরকারি কাজে বাধা, সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড পরিচালনা ও প্রাণনাশের হুমকির ঘটনা উল্লেখ করে রেজাসহ বাকিদের অভিযুক্ত করা হয়।


সিরাজগঞ্জ কোর্ট ইন্সপেক্টার মো. মোস্তফা কামাল বৃহস্পতিবার দুপুরে মামলার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।
এদিকে, ইউএনও সাইফুল ইসলাম বৃহস্পতিবার সকালে জেলা প্রশাসক কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত এক সভায় ঘটনাটি উত্থাপন করে দোষীদের দ্রুত গ্রেফতার ও শাস্তির দাবি জানিয়েছেন। এ ঘটনার পর ব্যাব-১২ এর সদস্যরা বেলকুচিতে অভিযান চালালেও অভিযুক্তদের কাউকে ধরতে পারেনি।
জানা গেছে, বোরো ধান সংগ্রহে উপজেলা চেয়ারম্যান নুরুল হক সাজেদুলের ছোট ভাই যুবলীগ নেতা রেজা গত ক’দিন আগে তার পছন্দের একটি তালিকা বেলকুচি উপজেলা নির্বাহী অফিসার সাইফুল ইসলামকে দেন। তালিকা নিতে রাজি না হওয়ায় রেজা সন্ত্রাসী বাহিনী নিয়ে বুধবার দুপুরে উপজেলা কার্যালয়ে ইউএনও’র কক্ষে ঢুকে তাকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ ও লাঞ্ছিত করে। একপর্যায়ে ইউএনওকে প্রাণনাশেরও হুমকি দেওয়া হয়।
পরে ইউএনও ঘটনাটি জেলা প্রশাসনের ঊর্ধ্বতনদের জানিয়ে রাতে বেলকুচি থানায় রেজাসহ জ্ঞাত সাতজন এবং অজ্ঞাত আরও ২৫ জনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন।
বেলকুচি থানার ওসি আনোয়ারুল ইসলাম বলেন, ‘ইউএনও যখন ঘটনাটি জানিয়েছেন, তখনই আমি নিজে না যেতে পারলেও ঘটনাস্থলে থানা পুলিশ পাঠিয়েছি। পুলিশ ও র‌্যাব অভিযুক্তদের গ্রেফতারে অভিযান চালাচ্ছে।’
ইউএনও সাইফুল ইসলাম বলেন, ‘কৃষকদের কাছ থেকে সরাসরি নয় বরং তাদের পছন্দের প্রস্তাবিত তালিকা মতো বোরো ধান সংগ্রহ করতে হবে, এমন অনৈতিক প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় যুবলীগ নেতা রেজাসহ তার সন্ত্রাসী বাহিনীরা অফিসে ঢুকে আমাকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ ও প্রাণনাশের হুমকি দেয়। আমি এ ঘটনায় বুধবার রাতে থানায় মামলা করেছি।’

বৃহস্পতিবার বিকালে এ বিষয় জানতে জেলা প্রশাসক কামরুন নাহার সিদ্দীকাকে ফোন করা হলেও তিনি কল রিসিভ করেননি। অপরদিকে, উপজেলা যুবলীগ ও ছাত্রলীগের নেতা সাজ্জাদুল হক রেজা এবং তার বড় ভাই বেলকুচি উপজেলা চেয়ারম্যান নুরুল হক সাজেদুলকেও ফোন করা হলে তারা কল রিসিভ করেননি।

/এআর/

লাইভ

টপ