ফেনীতে স্কুলছাত্র হত্যায় চার জনের যাবজ্জীবন

Send
ফেনী প্রতিনিধি
প্রকাশিত : ০০:৫১, জুন ১৮, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ০১:২৬, জুন ১৮, ২০১৯

আদালতফেনীর পরশুরাম উপজেলায় স্কুলছাত্র শুভ বৈদ্য হত্যা মামলায় চার জনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। একইসঙ্গে তাদের ১০ হাজার টাকা করে জরিমানা ও অনাদায়ে আরও ছয় মাসের সশ্রম কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে। ১৬ জনের সাক্ষ্যগ্রহণ শেষে সোমবার (১৭ জুন) বিকালে ফেনীর আদালতের বিচারক, জেলা ও দায়রা জজ সাঈদ আহমেদ এ রায় দেন। ফেনী জজ কোর্টের পাবলিক প্রসিকিউটর (পিপি) হাফেজ আহাম্মদ এসব তথ্য জানান।

দণ্ডপ্রাপ্তরা হলো—পরশুরাম উপজেলার পূর্ব অলকা গ্রামের চানমিয়ার ছেলে আব্দুর রহিম (১৯), মো. মোস্তফার ছেলে ওমর ফারুক (২২), বেলাল উদ্দিন ভুঁইয়ার ছেলে নুর আলম ভুঁইয়া সমীর (২০) ও আব্দুল মোমিনের ছেলে মো. স্বপন ভুঁইয়া (২১)। এদের মধ্যে আব্দুর রহিম পলাতক; বাকিরা কারাগারে আছে।

আদালত সূত্র জানায়, উপজেলার পশ্চিম অনন্তপুরের সাধন বৈদ্যের ছেলে শুভ বৈদ্য (১৬) পরশুরাম পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের এসএসসি পরীক্ষার্থী ছিল। ২০১৫ সালের ২৯ জুন রাতে শুভকে বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে যায় একই উপজেলার রহিম, ফারুক, সমীর ও স্বপন। পরে ওই এলাকার রমেশ বৈদ্যের পুকুর পাড়ে গাছের সঙ্গে বেঁধে গলায় ফাঁস লাগিয়ে শুভর বাবার কাছে মোবাইলে এক লাখ টাকা দাবি করে তারা। গলায় ফাঁস লাগানোয় এ সময় শুভ মারা যায় । এ ঘটনায় শুভর বাবা পরশুরাম থানায় মামলা করলে ওই চার জনকে গ্রেফতার করে পুলিশ। পরে থানা পুলিশের উপ-পরিদর্শক (এসআই) খান মো. রহমত উল্যাহ ওই চার জনকে অভিযুক্ত করে একই বছরের ১৯ সেপ্টেম্বর আদালতে অভিযোগপত্র দেন।

 

/আইএ/

লাইভ

টপ