রৌমারীতে ব্রহ্মপুত্রের বাঁধ ভেঙে দুই শতাধিক পরিবার পানিবন্দি

Send
কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি
প্রকাশিত : ০২:২৫, জুলাই ১৬, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ০২:৪৬, জুলাই ১৬, ২০১৯

স্রোতে নদীর তীর ভেঙে যাচ্ছেকুড়িগ্রামের রৌমারী উপজেলা সদর ইউনিয়নের ব্রহ্মপুত্র নদের পূর্ব তীরে ফৌজদারি-রাজিবপুর বেড়িবাঁধ ভেঙে উপজেলার যাদুরচর ইউনিয়নের দুই শতাধিক পরিবার পানিবন্দি হয়ে পড়েছে। পানির প্রবাহ এতই বেশি যে, দ্রুতই পুরো ইউনিয়ন প্লাবিত হতে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। সোমবার (১৫ জুলাই) রাত ১০টার দিকে পানির চাপে বাঁধটি ভেঙে যায়। রৌমারী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) দীপঙ্কর রায় এসব তথ্য জানান।

স্থানীয়রা জানান, অব্যাহত পানি বাড়ায় চাক্তাবাড়ী এলাকার এই বাঁধটি গত তিন-চার দিন ধরে চরম ঝুঁকিতে ছিল। সোমবার রাত ১০টার দিকে বাঁধটির প্রায় ৩০ মিটার ভেঙে যায়। পানির তীব্র স্রোতে অল্প সময়ের মধ্যে দুই শতাধিক পরিবার পানিবন্দি হয়ে পড়ে। আতঙ্কে লোকজন প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র নিয়ে বাড়িঘর ছেড়ে নিরাপদ আশ্রয়ের দিকে ছুটতে থাকে।

এই বাঁধ ভেঙে যাওয়ায় রৌমারী–ঢাকা মহাসড়কও ঝুঁকিতে পড়তে পারে বলে স্থানীয়রা আশঙ্কা করছেন।

ভেঙে যাওয়া বাঁধইউএনও দীপঙ্কর রায় বলেন, ‘বাঁধটি ভেঙে যাওয়ায় পুরো যাদুরচর ইউনিয়ন প্লাবিত হওয়ার আশঙ্কা দেখা দিয়েছে। অবস্থা ভয়াবহ রূপ নিচ্ছে। বন্যার পানিতে পুরো উপজেলা প্লাবিত হয়ে পড়েছে। উপজেলা হেড কোয়ার্টারও প্লাবিত হতে পারে বলে আমরা আশঙ্কা করছি।’

ইউএনও বলেন, ‘লোকজনকে নিরাপদ স্থানে সরে যেতে বলা হচ্ছে। সংশ্লিষ্ট এলাকার চেয়ারম্যান ও ইউপি সদস্যদের সজাগ থাকতে বলা হয়েছে।’

বন্যাদুর্গত তিনশ পরিবারকে ইতোমধ্যে শুকনো খাবারসহ ত্রাণসামগ্রী দেওয়া হয়েছে জানিয়ে ইউএনও আরও বলেন, ‘উপজেলায় বন্যার পানির সঙ্গে নদী ভাঙন চলছে। যদুরচর ইউনিয়নের সদ্য নির্মিত গুচ্ছ গ্রামে ভাঙন শুরু হয়েছে। পরিস্থিতি কোন দিকে যাচ্ছে কিছুই বলা যাচ্ছে না।’

/আইএ/

লাইভ

টপ