বিচারকের খাস কামরায় হত্যার ঘটনায় আসামির স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি

Send
কুমিল্লা প্রতিনিধি
প্রকাশিত : ১৮:৫৫, জুলাই ১৬, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ১৮:৫৯, জুলাই ১৬, ২০১৯

কুমিল্লার আদালতে বিচারকের খাস কামরায় ঢুকে ফারুক নামে এক আসামিকে ছুরি দিয়ে কুপিয়ে হত্যা মামলার আসামি হাসান ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছে। মঙ্গলবার (১৬ জুলাই) কুমিল্লা সদর আদালতের বিচারক মো. জালাল উদ্দীনের কাছে সে এ জবানবন্দি দেয়।

পরে হত্যার ঘটনায় স্বীকারোক্তি দেওয়ায় বিচারক তাকে রিমান্ড না দিয়ে কারাগারে পাঠান। কুমিল্লা জেলা গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) ওসি মাইনউদ্দিন বিষয়টি নিশ্চিত করেন। আসামি হাসান কুমিল্লার লাকসাম উপজেলার ভোজপাড়া গ্রামের শহিদ উল্লাহর ছেলে।

উল্লেখ্য, ২০১৩ সালে কুমিল্লার মনোহরগঞ্জের কান্দি গ্রামে হাজী আবদুল করিম হত্যা মামলায় জামিনে থাকা আসামিদের সোমবার হাজিরার দিন ধার্য ছিল। মামলার আসামিরা আদালতে প্রবেশের সময় ৪নং আসামি ফারুককে ছুরি নিয়ে তাড়া করে ৬নং আসামি হাসান। এ সময় জীবন বাঁচাতে ফারুক বিচারকের খাস কামরায় প্রবেশ করেন। সেখানে প্রবেশ করে হাসান টেবিলের ওপর ফেলে ফারুককে উপর্যুপরি ছুরিকাঘাত করে। পরে আহত ফারুক কুমিল্লা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে মৃত্যুবরণ করেন।

বাঙ্গরা থানার এএসআই ফিরোজ বাদী হয়ে ফারুকের হত্যাকারী হাসানকে একমাত্র আসামি করে হত্যা মামলা দায়ের করেন। মামলাটি পরবর্তীতে তদন্তের জন্য ডিবিতে হস্তান্তর করা হয়েছে। ডিবির পরিদর্শক প্রদীপ মন্ডলকে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা নিয়োগ করা হয়েছে।

/টিটি/

লাইভ

টপ