সাড়ে ৩৬ কোটি টাকার মেয়াদোত্তীর্ণ ওষুধ ধ্বংস করা হয়েছে

Send
বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ২১:১৪, জুলাই ১৬, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ২১:১৭, জুলাই ১৬, ২০১৯

স্বাস্থ্য অধিদফতর



হাইকোর্টের নির্দেশনা অনুসারে সারাদেশে ১৫৮টি ওষুধ প্রস্তুতকারী কোম্পানির সাড়ে ৩৬ কোটি টাকার মেয়াদোত্তীর্ণ ওষুধ ধ্বংস করা হয়েছে বলে হাইকোর্টে প্রতিবেদন দাখিল করেছে স্বাস্থ্য অধিদফতর। একইসঙ্গে দেশের বিভিন্ন জেলায় সাড়ে চার হাজার ফার্মেসি পরিদর্শন করে ১৫২টি মামলা ও মোট এক কোটি টাকা জরিমানা আদায় করা হয়েছে বলেও প্রতিবেদনে তথ্য রয়েছে।

মঙ্গলবার (১৬ জুলাই) অ্যাটর্নি জেনারেল অফিসে ওই প্রতিবেদন জমা দেন ওষুধ প্রশাসন অধিদফতরের সহকারী পরিচালক মো. নুরুল আলম। 

ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল এ বি এম আব্দুল্লাহ আল মাহমুদ বাশার জানিয়েছেন, অধিদফতরের প্রতিবেদনটি বিচারপতি এফ আর এম নাজমুল আহাসান ও বিচারপতি কে এম কামরুল কাদেরের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চে উপস্থাপন করা হবে।

প্রতিবেদনে আরও বলা হয়েছে, আদালতের আদেশের পর ২ কোটি ৩১ লাখ ৪৬৭২ পিস বিভিন্ন ধরনের (ক্যাপসুল/ট্যাবলেট/বোতলজাত) ওষুধ সংগ্রহ করা হয়। এসব ওষুধের মূল্য ৩৬ কোটি ৪১ লাখ ৯৫ হাজার ৪৫৭ টাকা। এছাড়া ৪ হাজার ৫৮৭টি ফার্মেসি পরিদর্শন করা হয়। এতে মোবাইল কোর্টের মাধ্যমে জরিমানা আদায় করা হয় ১ কোটি ৪ লাখ ৮৯ হাজার টাকা। তার মধ্যে ৫টি ফার্মেসি সিলগালা করা হয়েছে। এছাড়াও ৫৬ জেলায় মোট ১২৬ টি জনসচেতনতামূলক সভা করা হয়েছে।

ওষুধ প্রশাসন অধিদফতরের সহকারী পরিচালক মো. নুরুল আলম সাংবাদিকদের বলেন,  কোনও ভাবেই ভেজাল ও মেয়াদোত্তীর্ণ ওষুধ বিক্রয় করতে দেওয়া হবে না। কারণ ইউরোপ-আমেরিকায় বাংলাদেশের ওষুধ রফতানি করা হয়। তাই আমাদের সম্ভাবনাময় এই খাতকে কোনোভাবেই ধ্বংস হতে দেওয়া যাবে না।



প্রসঙ্গত, এর আগে গত ১১ জুন দেশের কয়েকটি জাতীয় দৈনিকে ‘ঢাকায় ৯৩ শতাংশ ফার্মেসিতে মেয়াদোত্তীর্ণ ওষুধ ’ শিরোনামে সংবাদ প্রকাশিত হয়। পরে ওই প্রতিবেদন সংযুক্ত করে আইনজীবী মাহফুজুর রহমান মিলন ১৭ জুন হাইকোর্টে রিট দায়ের করেন। সে রিটের শুনারি নিয়ে গত ১৮ জুন মেয়াদোত্তীর্ণ সব ওষুধের বিক্রি বন্ধ ও তা এক মাসের মধ্যে ধ্বংস করে হাইকোর্টে প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ দিয়েছিলেন। ওই নির্দেশের পরিপ্রেক্ষিতে ওষুধ প্রশাসন অধিদফতর রেজিস্ট্রার্ড লাইসেন্সপ্রাপ্ত ওষুধ কোম্পানিগুলোকে চিঠি দিয়ে বাজার থেকে মেয়াদোত্তীর্ণ ওষুধ প্রত্যাহার করে ধ্বংসের আদেশ দেয়। 

 

 

 







 

/বিআই/এএইচ/

লাইভ

টপ