পদ্মার স্রোতে পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া রুটে ফেরি চলাচল ব্যাহত

Send
মতিউর রহমান, মানিকগঞ্জ
প্রকাশিত : ২০:২৫, জুলাই ১৭, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ২০:৩৪, জুলাই ১৭, ২০১৯

তীব্র স্রোতের কারণে পদ্মায় ফেরি চলাচল ব্যাহতপদ্মায় প্রবল স্রোতের কারণে পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া রুটে ব্যাহত হচ্ছে ফেরি চলাচল। এছাড়া এই রুটে ফেরি স্বল্পতাও রয়েছে। পাটুরিয়া থেকে দৌলতদিয়া পর্যন্ত আসা যাওয়ায় দ্বিগুণেরও বেশ সময় লাগছে।  যে কারণে কাঙ্ক্ষিত মাত্রায় যানবাহন পারাপার করতে পারছে না ফেরিগুলো। পাটুরিয়া ঘাট এলাকায়  ফেরি পারের অপেক্ষায় চার শতাধিক যানবাহন দাঁড়িয়ে আছে।

বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌ পরিবহন করপোরেশন (বিআইডব্লিউটিসি) পাটুরিয়া ঘাটের ভাসমান ফেরি মেরামত কারখানা মধুমতির নির্বাহী প্রকৌশলী  স্বদেশ প্রসাদ বাংলা ট্রিবিউনকে জানান, সাতটি রো-রো (বড় সাইজের) ফেরির মধ্যে একটি ফেরি মেরামতে রয়েছে। আর ছয়টি ইউটিলিটি ফেরির মধ্যে মেরামতে রয়েছে একটি, বাকিগুলো সার্ভিসে রয়েছে। এছাড়া কে-টাইপ ফেরি  কাবেরিসহ মোট ১২টি ফেরি চলাচল করছে। তবে নদীপথে তীব্র স্রোতের কারণে ফেরিগুলো স্বাভাবিক গতিতে চলতে পারছে না। প্রায় দেড় কিলোমিটার তীব্র স্রোত উপেক্ষা করে ঘুরপথে গিয়ে ফেরিগুলোকে আবার ভাটিতে এসে ফেরিঘাটে পৌঁছাতে হচ্ছে।

এদিকে  বিআইডব্লিউটিসির  পাটুরিয়া ঘাটের মেরিন বিভাগের ব্যবস্থাপক সোবহান হোসেন জানালেন, ‘পদ্মায় এতোটাই স্রোত যে নির্ধারিত সময়ের চেয়ে দ্বিগুণেরও বেশি সময় লাগেছে। পাটুরিয়া থেকে দৌলতদিয়া পৌঁছাতে একটি ফেরি গড়ে দেড় ঘণ্টারও বেশি সময় লাগছে। অন্যদিকে দৌলতদিয়া থেকে পাটুরিয়া প্রান্তে পৌঁছাতে প্রতিটি ফেরির গড়ে সময় লাগছে  ৪৫ মিনিট থেকে প্রায় একঘণ্টা। দৌলতদিয়া প্রান্ত থেকে মাঝ পদ্মা পর্যন্ত স্রোতের গতিবেগ সবচেয়ে বেশি।’তীব্র স্রোতের কারণে পদ্মায় ফেরি চলাচল ব্যাহত

এদিকে পাটুরিয়া ফেরিঘাট এলাকায়  ফেরি পারের অপেক্ষায় প্রায় চার শতাধিক যানবাহন অপেক্ষামাণ রয়েছে বলে  জানান ফেরিঘাট কর্তৃপক্ষ। তবে অপেক্ষামাণ যানবাহনের বেশিরভাগই পণ্যবাহী ট্রাক।  পাটুরিয়া ঘাটের যানজট পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাখতে প্রায় ছয় কিলোমিটার দূরে উথলি সংযোগ রাস্তায় (পুরান আরিচাঘাট অভিমুখী সড়কে) সব পণ্যবাহী ট্রাক আটকে রাখা হচ্ছে। মানিকগঞ্জ ট্রাফিক  বিভাগের ইন্সপেক্টর আবুল বাসার জানান, ঘাটের পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাখতে এই ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। ঘাটে ট্রাকের সিরিয়াল কিছুটা কমলে এখান থেকে চাহিদা মোতাবেক ট্রাক ঘাটের দিকে ছেড়ে দেওয়া হবে।

পাটুরিয়া ফেরিঘাট এলাকায় দুপুরের দিকে গিয়ে দেখা গেছে,  জিরো পয়েন্ট (৩নং ফেরি ঘাট) থেকে যাত্রীবাহী বাসের দুই কিলোমিটারব্যাপী  বিস্তৃত রয়েছে। এছাড়াও ঘাট পারের অপেক্ষায় পণ্যবাহী ট্রাকের দীর্ঘ লাইন। পাটুরিয়া ফেরি ঘাটের ট্রাক টার্মিনাল দুটিও কানায় কানায় ট্রাকে ভরপুর। টার্মিনালে জায়গা না হওয়ায় মহাসড়কের উথুলী এলাকায় দক্ষিণ পশ্চিমাঞ্চলমুখী পণ্যবাহী ট্রাকগুলো আটকে দিচ্ছে পুলিশ।

ফেরি পার হতে আসা শাকুরা পরিবহনের যাত্রী  গোলাম মোস্তফা জানান, ‘পাটুরিয়া দৌলতদিয়া নৌরুট বর্ষা মৌসুমে পারাপারের ভোগান্তি আজ নতুন নয়।  এই গরমের মধ্যে দুই ঘণ্টা অপেক্ষার আমাদের বাসটি ফেরিতে উঠতে পেরেছে।  পদ্মা সেতু চালু না হওয়া পর্যন্ত এই ভোগান্তি থেকে মুক্তি পাওয়ার কোনও উপায় নেই বলে মনে হচ্ছে।’

বিআইডব্লিউটিসি আরিচা কার্যালয়ের  এজিএম (বাণিজ্য)  জিল্লুর রহমান জানান, ‘নদীতে প্রচণ্ড স্রোত থাকায় ফেরি চলাচল বিঘ্নিত হচ্ছে।  যে কারণে যানবাহনগুলোকে ঘাট এলাকায় ঘণ্টার পর ঘণ্টা অপেক্ষা করতে হচ্ছে।’ এছাড়া ফেরি স্বল্পতার কথা তিনি স্বীকার করেন।

আরও পড়ুন- পদ্মায় তীব্র স্রোত, কাঁঠালবাড়ি-শিমুলিয়া রুটে ফেরি চলাচল ব্যাহত

/এফএস/

লাইভ

টপ