পা দিয়ে লিখে আলিম পাস করলেন নীলা

Send
সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি
প্রকাশিত : ১৭:৫১, জুলাই ১৮, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ১৮:০২, জুলাই ১৮, ২০১৯

পা দিয়ে লিখছেন নীলা খাতুন (ছবি– প্রতিনিধি)

অভাবের সংসারে শারীরিক প্রতিবন্ধী হয়ে জন্ম নেন নীলা খাতুন। জন্ম থেকেই তার একটা হাত নেই; আর অন্য এক হাত থাকলেও তা অবশ। এ নিয়ে মা-বাবার দুশ্চিন্তার শেষ ছিল না। কিন্তু ইচ্ছাশক্তি ও পরিশ্রম মেয়েটিকে দমাতে পারেনি। দাখিলের মতো পা দিয়ে লিখে এবারের আলিম পরীক্ষাও দিয়েছিলেন তিনি। গতকাল বুধবার (১৭ জুলাই) আলিম পরীক্ষার ফলাফল প্রকাশিত হয়েছে। পরীক্ষার ফলে তামান্না জিপিএ-৩.৮৬ পেয়েছেন।

নীলা খাতুন সিরাজগঞ্জের কামারখন্দ উপজেলার বরধুল গ্রামের ওসমান গণীর মেয়ে। মাদ্রাসা শিক্ষা বোর্ডের অধীনে কামারখন্দ ফাজিল মাদ্রাসা থেকে তিনি এবার আলিম পরীক্ষা দিয়েছিলেন।

কামারখন্দ ফাজিল মাদ্রাসার কুরআন-হাদিস বিভাগের সহকারী অধ্যাপক মাওলানা আনিছুর রহমান বলেন, ‘তার (নীলা) একটি হাত নেই। আর আরেকটি হাত থেকেও নেই। কিন্তু প্রতিবন্ধিতা তার শিক্ষা অর্জনের পথে বাধা হতে পারেনি। পা দিয়ে লিখেই সে আলিমও পাস করেছে।’

বাবার সঙ্গে নীলা খাতুন (ছবি– প্রতিনিধি)

২০১৭ সালে বরধুল মাদ্রাসা থেকে দাখিল পাস করেন নীলা। তিনি বলেন, ‘বাবা-মা, শিক্ষক-সহপাঠী সবার কাছে আমি কৃতজ্ঞ। উচ্চতর ডিগ্রি অর্জন করে সরকারি চাকরি করতে চাই। সরকারের কাছে পড়াশোনার জন্য সহযোগিতা কামনা করছি। আমি কারও বোঝা হয়ে থাকতে চাই না।’

নীলার বাবা ওসমান গণী বলেন, ‘ফলাফল দেখে অনেক আনন্দিত হয়েছি। কিন্তু দুশ্চিন্তাও রয়েছে। কৃষিকাজ করে দুই ছেলেকে মাস্টার্স পর্যন্ত পড়িয়েছি। তারা এখনও বেকার। ছোট ছেলে ৮ম শ্রেণিতে পড়ছে। নীলার লেখাপড়া কত দূর চালিয়ে নিতে পারবো, আল্লাহ মালুম।’

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জাহাঙ্গীর আলম জানান, লেখাপড়ায় সহযোগিতা চেয়ে নীলা আবেদন করলে বিষয়টি দেখবেন।

 

/এমএ/

লাইভ

টপ