চেয়ারে বসা নিয়ে বিবাদ, সাংবাদিকদের কাছে মাফ চাইলেন পৌর মেয়র

Send
নেত্রকোনা প্রতিনিধি
প্রকাশিত : ১৮:৪৬, জুলাই ২৩, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ১৮:৫৭, জুলাই ২৩, ২০১৯

মেয়রের আচরণ নিয়ে সাংবাদিকদের ক্ষোভসাংবাদিকদের সঙ্গে অসদাচরণ করা নিয়ে ক্ষোভের মধ্যে নেত্রকোনার মোহনগঞ্জ পৌরসভার মেয়র লতিফুর রহমান রতন ক্ষমা চেয়েছেন। মঙ্গলবার (২৩ জুলাই) বেলা সোয়া ১১টার দিকে শহরের মোক্তারপাড়া এলাকায় পাবলিক হল প্রাঙ্গণে এই ঘটনা ঘটে।

নেত্রকোনা জেলা প্রেসক্লাবের সহসভাপতি আব্দুল হান্নান রঞ্জন জানান, সকালে পাবলিক হলে জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসের আয়োজনে সামাজিক উদ্বুদ্ধকরণ সংক্রান্ত মতবিনিময় সভা ও মা সমাবেশের অনুষ্ঠান চলছিল। অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের সচিব সাজ্জাদুর হাসান, প্রাথমিক ও গণশিক্ষা সচিব আকরাম আল হোসেন, প্রাথমিক শিক্ষা অধিদফতরের মহাপরিচালক এ এফ এম মঞ্জুর কাদির,  জেলা প্রশাসক মঈন উল ইসলাম উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠান শুরুর পর সাংবাদিকদের জন্য নির্ধারিত স্থানের সব চেয়ারে মেয়র লতিফুরসহ কয়েকজন জনপ্রতিনিধি বসেন। আমন্ত্রিত সাংবাদিকেরা বসার স্থান না পেয়ে অনুষ্ঠান থেকে চলে আসতে চাচ্ছিলেন। এসময় আয়োজকরা  নির্ধারিত স্থানে আরও চেয়ার দিয়ে সাংবাদিকদের বসার ব্যবস্থা করার উদ্যোগ নেন। তখন মেয়র লতিফুর রহমান সেখানে চেয়ার রাখতে বাধা দেন এবং অশোভন আচরণ করেন। এতে উপস্থিত সাংবাদিকেরা ক্ষুব্ধ হন।ক্ষমা চান মেয়র লতিফুর রহমান রতন

পরে অনুষ্ঠানস্থলে উপস্থিত  অতিরিক্ত পুলিশ সুপার এসএম আশরাফুল আলম, নেত্রকোনা পৌর মেয়র নজরুল ইসলাম খান, আটপাড়া উপজেলা চেয়ারম্যান খায়রুল ইসলাম তাৎক্ষণিকভাবে ঘটনার সমাধানে উদ্যেগ নেন। জেলা প্রেসক্লাব মিলনায়তনে সাংবাদিকদের সঙ্গে বৈঠকে বসেন তারা। বৈঠকে মেয়র লতিফুর রহমান সাংবাদিকদের কাছে হাত জোড় করে ক্ষমা চান।

সেখানে সাংবাদিকদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন জেলা প্রেসক্লাবের সাবেক সাধারণ সম্পাদক হাবিবুর রহমান, ময়মনসিংহ বিভাগীয় প্রেসক্লাবের সহসভাপতি লাভলু পাল চৌধুরী, জেলা টেলিভিশন সাংবাদিক ফোরামের সাধারণ সম্পাদক আনিসুর রহমান প্রমুখ।

এ বিষয়ে মেয়র লতিফুর রহমান রতন বলেন, ‘অনাকাঙ্ক্ষিত একটা ঘটনা ঘটেছে। আমি যে চেয়ারে বসি সেখানে সাংবাদিক লেখা ছিল না। আমার সঙ্গে দুই জন উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ছিলেন। আমাদের বসার সামনে চেয়ার পাতা হচ্ছিল। আমি শুধু চেয়ার দিতে নিষেধ করেছিলাম। পরে সাংবাদিকরা এটা নিয়ে অনুষ্ঠানের বাইরে হট্টগোল করলে আমি তাদের কাছে ক্ষমা চাই।’

তিনি আরও বলেন, ‘আমি একজন অসুস্থ মানুষ। আর আমি তিনবারের নিবাচিত জনপ্রতিনিধি। আমি কেন সাংবাদিকদের সঙ্গে খারাপ আচরণ করবো?’

 

/এফএস/

লাইভ

টপ