সাগরে নিখোঁজ দুই রুয়েট শিক্ষার্থীর একজনের মৃতদেহ উদ্ধার

Send
বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ১৭:৫৬, আগস্ট ১০, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ১৮:৫৪, আগস্ট ১০, ২০১৯

কক্সবাজারে সাগরে ডুবে যাওয়া ছাত্রের মৃতদেহ নিয়ে হতবিহ্বল সহপাঠীরা

কক্সবাজার সমুদ্র সৈকতে গোসল করতে নেমে নিখোঁজ হওয়া রাজশাহী প্রকৌশল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (রুয়েট) দুই শিক্ষার্থীর মধ্যে একজনের মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। তার নাম  মোহাম্মদ রফিক (২১)। তিনি কক্সবাজার শহরের রুমালিয়ারছড়া এলাকার মো. জাহাঙ্গীর আলমের ছেলে।

শনিবার (১০ আগস্ট) বিকাল সাড়ে ৪টার দিকে সমুদ্র সৈকতের ডায়াবেটিক পয়েন্ট থেকে তার মৃতদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। অপর শিক্ষার্থী আরিফুল ইসলাম (২১) এখনও নিখোঁজ রয়েছেন। এসময় উদ্ধার হওয়া আরও তিন ছাত্রকে কক্সবাজার সদর হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।

ট্যুরিস্ট পুলিশ কক্সবাজার জোনের পুলিশ সুপার মো. জিল্লুর রহমান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানিয়েছেন, বিকাল সাড়ে ৪টার দিকে সৈকতের ডায়াবেটিক পয়েন্ট থেকে একজনকে মুমূর্ষু অবস্থায় উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

এর আগে বেলা সাড়ে ১১টার দিকে কক্সবাজার সমুদ্র সৈকতের লাবনী পয়েন্ট গোসল করার সময় ঢেউয়ের তোড়ে সাগরে ভেসে যায় কয়েকজন ছাত্র। এসময় ৩ জন ছাত্রকে উদ্ধার করা হলেও দু’জন নিখোঁজ হয়ে যায়। উদ্ধারকৃতদের হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। গত দুইদিন আগে রাজশাহী থেকে ঈদের ছুটিতে গ্রামের বাড়ি কক্সবাজারে আসেন তারা।

কক্সবাজার সদর হাসপাতালের জরুরি বিভাগের দায়িত্বরত চিকিৎসক মো. আশিকুর রহমান জানিয়েছেন, বিকালে মোহাম্মদ রফিক নামের এক শিক্ষার্থীকে হাসপাতালে নিয়ে আসেন পুলিশ ও লাইফগার্ড কর্মীরা। তবে হাসপাতালে নিয়ে আসার আগেই তার মৃত্যু হয়েছে।

ট্যুরিস্ট পুলিশ কক্সবাজার জোনের পুলিশ সুপার মো. জিল্লুর রহমান জানিয়েছেন, ‘সকালে ৮ থেকে ১০ জন ছাত্রের একটি দল সৈকতের লাবনী পয়েন্টে বালুরচরে ফুটবল খেলেন। খেলার এক পর্যায়ে সবাই সাগরে গোসল করতে নামেন। এসময় সাগর উত্তাল থাকায় তারা ঢেউয়ের টানে ভেসে যায়। পরে ট্যুরিস্ট পুলিশ ও স্থানীয় লাইফগার্ড কর্মীরা সাগরে তল্লাশি অভিযান চালিয়ে আহমেদ (২১), ইমরুল শাহেদ (২১) ও মোবাশ্বেরুল ইসলাম (২১) কে মুমূর্ষু অবস্থায় উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এসময় আরও দুইজন ছাত্র নিখোঁজ ছিল। এদের মধ্যে একজনকে মৃত অবস্থায় উদ্ধার করা হয়েছে। বর্তমানে নিখোঁজ ছাত্রকে উদ্ধারের জন্য অভিযান চালিয়ে যাচ্ছে কক্সবাজার ফায়ার সার্ভিস ও স্থানীয় লাইভগার্ড কর্মীরা।

কক্সবাজার জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের (পর্যটন সেল) নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মাখন চন্দ্র সূত্র ধরও ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। তিনি আরও বলেন, নিখোঁজ অপর ছাত্রকে না পাওয়া পর্যন্ত উদ্ধার অভিযান অব্যাহত থাকবে।

 

/টিএন/

লাইভ

টপ