শাজাহানপুরে দুই বাসের সংঘর্ষে দম্পতিসহ তিনজন নিহত, আহত ১৫

Send
বগুড়া প্রতিনিধি
প্রকাশিত : ১৭:০০, আগস্ট ১৪, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ১৭:১১, আগস্ট ১৪, ২০১৯

দুমড়ে-মুচড়ে যাওয়া আহাদ এন্টারপ্রাইজের বাসের সামনের অংশ (ছবি– প্রতিনিধি)

বগুড়ার শাজাহানপুরে দুই বাসের সংঘর্ষে এক দম্পতিসহ তিনজন নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন আরও অন্তত ১৫ জন; যার মধ্যে সাতজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক। বুধবার (১৪ আগস্ট) বেলা ২টার দিকে উপজেলার আড়িয়া বাজার এলাকায় ঢাকা-রংপুর মহাসড়কে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহত দম্পতি হলেন রংপুর সদরের কামার কাছনা গ্রামের মৃত আবদুল্লাহেল কাফীর ছেলে খায়রুল আনাম (৫৫) ও তার স্ত্রী রানু বেগম (৫০)। নিহত অপর ব্যক্তি হলেন আহাদ এন্টারপ্রাইজের বাসচালক; যার নাম-পরিচয় পাওয়া যায়নি। পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিস সূত্র জানিয়েছে, আহত সবাইকে বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিক্যাল কলেজ (শজিমেক) হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

কুন্দারহাট ফাঁড়ির হাইওয়ে পুলিশের এসআই কাজল কুমার নন্দী ও শাজাহানপুর থানার এসআই সুশান্ত কুমার জানান, বেলা ২টার দিকে আড়িয়া বাজার এলাকায় পোঁছে রংপুরগামী শ্যামলী পরিবহনের একটি বাস (ঢাকা মেট্রো-ব-১৪-৪৩৪৫)। এসময় এই বাসের সামনে স্থানীয় সড়কে চলাচলকারী করতোয়া পরিবহনের একটি মিনিবাস ছিল। শ্যামলী পরিবহনের বাসটির চালক মিনিবাসটিকে ওভারটেক করতে গিয়ে নিয়ন্ত্রণ হারান। এতে শ্যামলী পরিবহনের বাসটি রংপুর থেকে ছেড়ে আসা ঢাকাগামী আহাদ এন্টারপ্রাইজের একটি বাসকে (ঢাকা মেট্রো-ব-১৩-০৪০৭) ধাক্কা দেয়। এসময় আহাদ এন্টারপ্রাইজের বাসের চালকসহ অন্তত ১৮ জন আহত হন। তাদের উদ্ধার করে শজিমেক হাসপাতালে নিলে খায়রুল আনাম, তার স্ত্রী রানু বেগম ও আহাদ এন্টারপ্রাইজের চালক মারা যান।

এ দুই পুলিশ কর্মকর্তা জানান, আহতদের মধ্যে সাতজনের অবস্থা গুরুতর। দুর্ঘটনার পরপরই মহাসড়কে প্রায় ২০ মিনিট যানবাহন চলাচল বন্ধ ছিল।

 

/এমএ/

লাইভ

টপ