শরীয়তপুরে ডেঙ্গু আক্রান্ত গৃহবধূর মৃত্যু

Send
শরীয়তপুর প্রতিনিধি
প্রকাশিত : ১৬:৩৮, আগস্ট ২০, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ১৬:৪৭, আগস্ট ২০, ২০১৯





শরীয়তপুরশরীয়তপুরের ডামুড্যায় ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে সুরাইয়া আক্তার (৩৩) নামে এক গৃহবধূর মৃত্যু হয়েছে। মঙ্গলবার (২০ আগস্ট) ভোর রাতে নিজ বাড়িতে তার মৃত্যু হয়। সুরাইয়া আক্তারের চিকিৎসা ডামুড্যা উপজেলার সাবেক উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. সৈয়দ আনোয়ার হোসেন এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

সুরাইয়া আক্তার ডামুড্যা পৌরসভার ৮ নং ওয়ার্ডের কামাল ঢালীর স্ত্রী। জায়েদ (৭), নুর (৫) ও আদিবা (৪) নামে তাদের তিনটি সন্তান রয়েছে।
নিহতের পরিবার সূত্রে জানা যায়, কামাল ঢালী ও সুরাইয়া আক্তার তাদের তিন সন্তানকে নিয়ে পুরান ঢাকার হাটখোলা রোডে বসবাস করতেন। ঈদ উপলক্ষে গত ৯ আগস্ট তারা গ্রামের বাড়ি ডামুড্যা আসেন। গত ১৬ আগস্ট শুক্রবার সুরাইয়া আক্তার জ্বরে আক্রান্ত হন। শনিবার পরীক্ষা-নিরীক্ষার পর জানা যায় সুরাইয়া ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়েছেন। এরপর থেকে ডা. সৈয়দ আনোয়ার হোসেনের তত্ত্বাবধানে একটি বেসরকারি ক্লিনিক ও নিজ বাড়িতে তার চিকিৎসা অব্যাহত রাখা হয়। সোমবার রাত ১১টার দিকে ক্লিনিক থেকে স্যালাইন দেওয়ার পর সুরাইয়াকে বাড়িতে নিয়ে আসা হয়। রাত ১টার দিকে সুরাইয়া কয়েকবার বমি করেন। এরপর তার শরীর হঠাৎ নিস্তেজ হয়ে যায়। রাত সাড়ে ৩টার দিকে ডা. সৈয়দ আনোয়ার হোসেন এসে সুরাইয়াকে মৃত ঘোষণা করেন। মঙ্গলবার দুপুরে জানাজা শেষে সুরাইয়াকে পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হয়।
সুরাইয়া আক্তারের স্বামী কামাল ঢালী বলেন, ‘শুক্রবার জ্বর আসার পর শনিবার রক্ত পরীক্ষা করলে সুরাইয়ার শরীরে ডেঙ্গু ধরা পড়ে। এরপর ডাক্তারের পরামর্শ অনুযায়ী তার চিকিৎসা চলছিল। কিন্তু কাল রাতে হঠাৎ করে তার শরীর খারাপ হয়ে যায়। আমার বাচ্চাদের এতিম করে সে চলে যাবে আমরা বুঝতে পারিনি।’
সুরাইয়া আক্তারকে চিকিৎসা প্রদানকারী ডামুড্যা উপজেলার সাবেক উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. সৈয়দ আনোয়ার হোসেন বলেন, ‘সুরাইয়ার শারীরিক অবস্থা ভালো ছিল। গতকালও তার প্লাটিলেট ছিল ১ লাখ ২০ হাজার। কিন্তু ডায়রিয়া ও বমির কারণে তার শরীর দুর্বল ছিল। আমি রাত সাড়ে ৩টায় তার বাড়িতে গিয়ে দেখি তিনি মৃত্যুবরণ করেছেন।’

 

/এফএস/

লাইভ

টপ