জেপি নেতার মেয়েকে হত্যার অভিযোগে স্বামী গ্রেফতার

Send
গাজীপুর প্রতিনিধি
প্রকাশিত : ১০:৩০, সেপ্টেম্বর ১২, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ১৮:৫৫, সেপ্টেম্বর ১২, ২০১৯

লাশগাজীপুরে জেপির এক নেতার মেয়েকে হত্যার অভিযোগে তার স্বামীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। নিহত শোভা রাজমনি হোসনা (২০) মেহেরপুরের গাংনী উপজেলা জাতীয় পার্টির (জেপি) সভাপতি ও কেন্দ্রীয় কমিটির যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক আবদুল হালিমের মেয়ে। এ ঘটনায় নিহতের স্বামী রবিউল ইসলামকে (২৭) গ্রেফতার করেছে পুলিশ। গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশ (জিএমপি) সদর থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) রিয়াজ উদ্দিন এ কথা জানান।

তিনি আরও জানান, নিহতের স্বজনরা পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ করলেও চিকিৎসকরা এটাকে আত্মহত্যা বলে ধারণা করছেন।

নিহতের বাবা আবদুল হালিম জানান, ১২ জুলাই মাগুরা সদরের শেহেলডাঙ্গা গ্রামের সোহরাব হোসেনের ছেলে রবিউল ইসলামের সঙ্গে শোভার বিয়ে হয়। বিয়ের পর শোভা স্বামী রবিউলের সঙ্গে গাজীপুর শহরের উত্তর ভুরুলিয়া এলাকার একটি বাসায় সাবলেট থাকতো। বিয়ের কিছু দিন পর রবিউল ৩০ লাখ টাকা যৌতুক দাবি করে। যৌতুকের জন্য সে শোভাকে প্রায়ই মারধর করতো। গত মঙ্গলবার রাত পৌনে ১২টার দিকে শোভা তাদের ফোন করে জানায়, যৌতুকের জন্য স্বামী তাকে বেদম মারধর করেছে। এ সময় আবদুল হালিম তার মেয়েকে রাতটুকু সহ্য করে সকালে বাড়ি চলে আসতে বলেন। এর কিছুক্ষণ পর থেকেই শোভার মোবাইল ফোন বন্ধ পাওয়া যায়। বুধবার ভোর ৪টার দিকে মেয়ের বাসার মালিকের স্ত্রী ফোন করে জানায় শোভা অসুস্থ্। তাদের দ্রুত গাজীপুরের শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে আসতে বলেন। দুপুর ১২টার দিকে তারা হাসপাতালে গিয়ে মেয়ের লাশ দেখতে পান। তার দাবি, রবিউল যৌতুকের টাকা না পেয়ে তার মেয়েকে নির্যাতনের পর শ্বাসরোধে হত্যা করেছে। ঘটনা ধামাচাপা দিতে গলায় দড়ি লাগিয়ে লাশ ঝুলিয়ে রেখে আত্মহত্যা বলে প্রচারের চেষ্টা করছে। শোভার শরীরে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে।

গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশ (জিএমপি) সদর থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) রিয়াজ উদ্দিন জানান, রবিউল রাত ৪টার দিকে অচেতন অবস্থায় তার স্ত্রী শোভাকে গাজীপুর শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ হাসপাতালের জরুরি বিভাগে নিয়ে গেলে চিকিৎসকরা মৃত ঘোষণা করেন। শোভার গলা ও হাতে কালচে দাগ রয়েছে। স্বজনদের অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে শোভার স্বামীকে আটক করা হয়েছে। স্বামীর দাবি, শোভা ফাঁসিতে ঝুলে আত্মহত্যা করেছে।

গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশ (জিএমপি)-এর সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এজাজ শফী জানান, এ ঘটনায় নিহত শোভার বাবা আবদুল হালিম বাদী হয়ে সদর থানায় হত্যা মামলা করেছেন। রবিউলকে ওই মামলায় গ্রেফতার দেখানো হয়েছে। ময়নাতদন্ত প্রতিবেদন পাওয়ার পর মৃত্যুর সঠিক কারণ জানা যাবে।

গাজীপুর শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসক প্রণয় ভূষণ দাস জানান, নিহতের গলায় রশির দাগ ও হাতে ব্লেডের ছোট ছোট আঘাতের চিহ্ন থেকে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে শোভা আত্মহত্যা করেছে। তবে ময়নাতদন্ত প্রতিবেদন হাতে পাওয়ার পরই মৃত্যুর সঠিক কারণ জানা যাবে।

/জেবি/এমওএফ/

লাইভ

টপ