ময়লার ভাগাড় এখন ফুলের বাগান

Send
আসাদুজ্জামান রিপন, নরসিংদী
প্রকাশিত : ১০:৪৭, সেপ্টেম্বর ১৬, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ১১:০৬, সেপ্টেম্বর ১৬, ২০১৯

কয়েকদিন আগেও ফুলের বাগানের এই জায়গাটি ছিল ময়লার ভাগাড়ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের নরসিংদীর ভেলানগর বাসস্ট্যান্ড মসজিদ সংলগ্ন স্থানটি ছিল ময়লার ভাগাড়। পথচারী ও আশপাশের লোকজন নিয়মিত সেখানে বর্জ্য ফেলতেন। জায়গাটি ময়লা-আবর্জনার ভাগাড়ে পরিণত হওয়ায় দুর্গন্ধে অতিষ্ঠ ছিল পথচারী ও এলাকাবাসী। নাক-মুখ চেপে পাশ কাটিয়ে যাতায়াত করতেন সবাই। পাঁচদিনের চেষ্টায় এই ভাগাড় থেকে প্রায় চল্লিশ টন আবর্জনা সরিয়ে সেখানে তৈরি করা হয়েছে ফুলের বাগান। এখন সেখানে কেউ আর ময়লা ফেলেন না।
উদ্যোগটি বাস্তবায়ন করেছে ‘বিডি ক্লিন নরসিংদী’ নামের একটি স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন। তাদের এ উদ্যোগটি স্থানীয়ভাবে ব্যাপক প্রশংসিত হয়েছে, সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে সাড়া ফেলেছে। বর্তমানে পরিচ্ছন্ন এই স্থানটি যেন ফের ময়লার ভাগাড়ে পরিণত না হয় সেজন্য স্থানীয়দের সচেতনতা প্রত্যাশা করছে সংগঠনটি।
আবর্জনা পরিষ্কার করছেন স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন বিডি ক্লিন নরসিংদীর সদস্যরাস্বেচ্ছাসেবী সংগঠন বিডি ক্লিন, নরসিংদীর সহ-সমন্বয়ক তৌকির আহম্মেদ বলেন, ‘পরিচ্ছন্ন বাংলাদেশ’ এই স্বপ্ন বুকে ধারণ করে সপ্তাহের একটি নির্দিষ্ট দিন, নির্দিষ্ট জায়গায় পরিচ্ছন্নতা কার্যক্রম পরিচালনা করে থাকে বিডি ক্লিন। এতে স্বেচ্ছাশ্রমের ভিত্তিতে অংশ নিয়ে থাকেন সংগঠনের সদস্যরা। এরই ধারাবাহিকতায় সম্প্রতি নরসিংদীর ভেলানগরে ময়লার ভাগাড়টি পরিষ্কার করার উদ্যোগ নেওয়া হয়। গত ৩০ আগস্ট স্কুল-কলেজ পড়ুয়া প্রায় ৫০ জন বিডি ক্লিনের সদস্য ওই ভাগাড়টি পরিষ্কার করি। কিন্তু বিপুল পরিমাণ ময়লা দেখে টেকনিক্যাল সাপোর্ট না থাকায় ডাম্পিং করা নিয়ে বিপাকে পড়েন তারা।
পরে স্থানীয় কাউন্সিলর কামাল মোল্লার সঙ্গে দেখা করে তাদের উদ্যোগের কথা জানান। উদ্যোগের কথা জেনে কাউন্সিলর ময়লা সরানোর জন্য পৌরসভা থেকে একটি ট্রাক ব্যবস্থা করে দেন। টানা পাঁচদিন কাজ করে ময়লার ভাগাড় থেকে প্রায় ছয় ট্রাক আবর্জনা সরিয়ে নেন বিডি ক্লিনের সদস্যরা। ময়লা পরিষ্কারের সঙ্গে সঙ্গেই সড়ক ও জনপথ বিভাগের এই জায়গা দখলে নিতে থাকে স্থানীয় ব্যবসায়ীরা। পরে দখলকারীদের বুঝিয়ে ময়লার ভাগাড় পরিষ্কার শেষে সেখানে ফুলের বাগান তৈরি করা হয়। এ সময় ফুলের বাগান তৈরিতে ফুলের চারা দিয়ে সহযোগিতায় এগিয়ে আসেন একজন ব্যবসায়ী। বিডি ক্লিন নরসিংদীর সদস্যরা শিক্ষার্থী হয়েও নিজেদের টিফিনের টাকায় ও স্বেচ্ছাশ্রমে এই উদ্যোগটি বাস্তবায়ন করেছেন। এখনও নিয়মিত ফুলের বাগানটি পরিচর্যা করছেন তারা।
ময়লার ভাগাড়বিডি ক্লিন নরসিংদীর সমন্বয়ক নূর মোহাম্মদ বলেন, ‘সংগঠনটির যাত্রা শুরুর পর গত এক বছরে সদস্যদের স্বেচ্ছাশ্রমে নরসিংদী জেলায় ৪০টি স্পটে পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতা অভিযান পরিচালিত হয়েছে। আমরা ধারাবাহিকভাবে জেলার সব জায়গা পরিচ্ছন্ন করতে চাই। পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন করার পর সেসব স্থান যেন ফের ময়লার ভাগাড়ে পরিণত না হয়, সে বিষয়ে সকলের সচেতনতা দরকার। স্থানীয় প্রশাসন যদি নজরদারি করে তাহলে আমরা পরিচ্ছন্ন নরসিংদী গড়তে সক্ষম হবো।’
তিনি বলেন, যদি প্রশাসন আমাদের উদ্যোগের পাশে দাঁড়ায়, তাহলে ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের নরসিংদী জেলখানা মোড় থেকে ভেলানগরের দুই পাশ দখলমুক্ত করে পরিচ্ছন্ন একটি এলাকা তৈরি করা সম্ভব হবে। স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীতে পরিচ্ছন্ন ও মডেল নরসিংদী উপহার দেওয়ার লক্ষ্যে আমরা কাজ করে যাবো।

/ওআর/এমএমজে/

লাইভ

টপ