চিলাহাটি-হলদিবাড়ি রেলপথ সোনালি অধ্যায়ের সূচনা করবে: রেলমন্ত্রী

Send
নীলফামারী প্রতিনিধি
প্রকাশিত : ১৮:০০, সেপ্টেম্বর ২১, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ১৮:০৮, সেপ্টেম্বর ২১, ২০১৯

বক্তব্য রাখছেন রেলমন্ত্রী (ছবি– প্রতিনিধি)

পাঁচ দশক আগে বন্ধ হয়ে যাওয়া নীলফামারীর ডোমার উপজেলার চিলাহাটি থেকে ভারতের হলদিবাড়ি পর্যন্ত রেল সংযোগ পুনরায় চালু হলে বাংলাদেশ-ভারতের মধ্যে সোনালি অধ্যায়ের সূচনা হবে বলে মন্তব্য করেছেন রেলমন্ত্রী নূরুল ইসলাম সুজন। তার দাবি, ‘এতে অর্থনৈতিক উন্নয়ন ও ব্যবসা-বাণিজ্যসহ দুই দেশের মানুষের জীবনযাত্রার মান উন্নয়ন হবে।’

শনিবার (২১ সেপ্টেম্বর) দুপুরে চিলাহাটি-হলদিবাড়ি ব্রডগেজ রেলপথ নির্মাণ প্রকল্পের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন কাজের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে তিনি একথা বলেন।

নূরুল ইসলাম সুজন বলেন, ‘১৯৪৭ সালের ১৫ আগস্ট ভারতভাগের পরও তৎকালীন পূর্ব-পাকিস্তানে চিলাহাটি-হলদিবাড়ির মধ্যে ট্রেন যোগাযোগ ছিল। এ ছাড়া, ১৯৬৫ সাল পর্যন্ত ভারতের হলদিবাড়ির সঙ্গে পাকিস্তানের রেল যোগাযোগ ছিল। দার্জিলিং মেইল ট্রেনটি তখনও এই পথে দর্শনা হয়ে যাতায়াত করতো।’

তিনি আরও বলেন, ‘আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় আসলে রেলের উন্নতি হয়। আর অন্য দল ক্ষমতায় থাকলে সব লুটেপুটে খায়।’

এসময় বাংলাদেশে নিযুক্ত ভারতীয় হাই-কমিশনার রীভা গাঙ্গুলী দাস বলেন, ‘আর্থ-সামাজিকভাবে বাংলাদেশের উন্নতিতে প্রতিবেশী ও বন্ধুরাষ্ট্র হিসেবে ভারত গর্ববোধ করে।’

রেলপথ মন্ত্রণালয়ের ভারপ্রাপ্ত সচিব মজিবুর রহমানের সভাপতিত্বে রেলপথ মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য আসাদুজ্জামান নূর, নীলফামারী-১ আসনের সংসদ সদস্য আফতাব উদ্দিন সরকার, সংরক্ষিত সংসদ সদস্য রাবেয়া আলীম, পশ্চিমাঞ্চলীয় রেলওয়ের মহাব্যস্থাপক (জিএম) হারুন- অর-রশীদ প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

উল্লেখ্য, মোট ৮০ কোটি ১৭ লাখ টাকা ব্যয়ে বাংলাদেশের চিলাহাটির থেকে ভারতের হলদিবাড়ি পর্যন্ত ৬ দশমিক ৭২৪ কিলোমিটার রেললাইন স্থাপনের কাজ করছে ম্যাক্স ইনফ্রাসট্রাকচার লিমিটেড। ২০২০ সালে জুন-জুলাইয়ের মধ্যে এপথে ট্রেন চলাচল উদ্ধোধন করা হবে বলে জানা গেছে।

 

/এমএ/

লাইভ

টপ