প্রতিবন্ধী শিশুকে ধর্ষণের দায়ে দুই জনের যাবজ্জীবন

Send
গাজীপুর প্রতিনিধি
প্রকাশিত : ১৯:২১, অক্টোবর ১৩, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ১৯:২১, অক্টোবর ১৩, ২০১৯

গাজীপুরগাজীপুরে প্রতিবন্ধী শিশুকে ধর্ষণের দায়ে দুই জনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের আদেশ দিয়েছেন আদালত। একই সঙ্গে আসামিদের এক লাখ টাকা করে জরিমানা অনাদায়ে আরও ছয় মাসের সশ্রম কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে। রবিবার (১৩ অক্টোবর) দুপুরে গাজীপুরের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক এমএলবি মেছবাহ উদ্দিন আহমেদ এ রায় ঘোষণা করেন।

দণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন- গাজীপুরের শ্রীপুর উপজেলার ফারুক (৩৩) ও রাজেন্দ্রপুর পূর্ব টেক এলাকার বাদশা মিয়া (৩২)।

গাজীপুর আদালতের পরিদর্শক মীর রাকিবুল হক এবং ওই আদালতের স্পেশাল পাবলিক প্রসিকিউটর (পিপি) অ্যাডভোকেট এ.বি.এম. আফফান জানান, ২০১৬ সালের ২৮ সেপ্টেম্বর রাতে গাজীপুরে শ্রীপুরের মাওনা উত্তরপাড়া এলাকায় রূপালী প্রজেক্টের কাছে ওই দুই আসামিসহ আরও অজ্ঞাত পরিচয়ের দু’জন মিলে এক বাক প্রতিবন্ধী শিশুকে (১২) ধর্ষণ করে। পরে শিশুটি প্রজেক্টের কেয়ারটেকারের বাড়িতে এসে কাঁদতে থাকে।

কান্নার শব্দ শুনে ওই প্রজেক্টের কেয়ারটেকার মো. নাফিউল তার স্ত্রীকে নিয়ে দরজা খুলে শিশুটির হাত ওড়না দিয়ে বাঁধা অবস্থায় দেখতে পেয়ে খুলে দেন। জানতে চাইলে শিশুটি ফারুক ও বাদশাকে দেখিয়ে দেয়। এ সময় আরও দুই জন পালিয়ে যায়। পরে স্থানীয়দের সহায়তায় ফারুক ও বাদশাকে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করা হয়।

জিজ্ঞাসাবাদে আসামিরা আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছে। ধর্ষণকারী অপর দুই জনকে পুলিশ শনাক্ত করতে পারেনি। শুনানি ও সাক্ষ্য গ্রহণ শেষে আদালত রবিবার এ মামলার রায় ঘোষণা করেন। রায়ে ফারুক ও বাদশা মিয়াকে যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদণ্ডের আদেশ দেন আদালত। রায়ে যাবজ্জীবন সাজার পাশাপাশি আসামি প্রত্যেককে এক লাখ টাকা করে জরিমানা ও অনাদায়ে আরও ৬ মাসের সশ্রম কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে। রায় ঘোষণার সময় আসামিরা কাঠগড়ায় উপস্থিত ছিলেন।

/এআর/

লাইভ

টপ