ব্যাটারিচালিত রিকশা বন্ধে কেসিসিতে ৩৮৭টি চার্জিং পয়েন্টে বিদ্যুৎ বিচ্ছিন্ন অভিযান

Send
খুলনা প্রতিনিধি
প্রকাশিত : ০৯:০৫, অক্টোবর ১৪, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ০৯:০৬, অক্টোবর ১৪, ২০১৯

ব্যাটারিচালিত রিকশা বন্ধে খুলনা সিটি করপোরেশনের (কেসিসি) মেয়র তালুকদার আব্দুল খালেকের বেধে দেওয়া সময় শেষ হচ্ছে আগামীকাল মঙ্গলবার (১৫ অক্টোবর)। ইতোমধ্যেই কেসিসির উদ্যোগে মহানগরীতে ব্যাটারিচালিত রিকশার ৩৮৭টি চার্জিং পয়েন্ট শনাক্ত করা হয়েছে। এ সব চার্জিং পয়েন্ট থেকে বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন করতে আজ সোমবার থেকে অভিযান শুরু হচ্ছে। কেসিসি এবং ওজোপাডিকো যৌথভাবে এ অভিযান পরিচালনা করবে।

কেসিসির সহকারী প্রকৌশলী (বিদ্যুৎ) মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, ‘নগরীর ৩১টি ওয়ার্ডে ৩৮৭টি রিকশার ব্যাটারি চার্জিং পয়েন্ট চিহ্নিত করা হয়েছে। ধারাবাহিকভাবে এসব চার্জিং পয়েন্ট থেকে বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন করা হবে। ১৪ অক্টোবর সকাল ১০টা থেকে বিকাল ৫টা পর্যন্ত ২১, ২২, ২৩, ২৮, ৩০ ও ৩১নং ওয়ার্ডে ১৪৪টি রিকশার ব্যাটারি চার্জিং পয়েন্ট থেকে বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন করা হবে। যা চলবে আগামী ১৭ অক্টোবর পর্যন্ত।’

কেসিসির নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট খান মাসুম বিল্লাহ বলেন, আজ থেকে অবৈধ চার্জিং পয়েন্টের বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন করা হবে।

কেসিসির সচিব মো. আজমুল হক বলেন, ‘১৫ অক্টোবর রিকশা থেকে ব্যাটারি অপসারণের সিদ্ধান্তে অটল কেসিসি। এর অংশ হিসেবে আজ থেকে অবৈধ রিকশার ব্যাটারি চার্জিং পয়েন্টের বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন অভিযান শুরু হবে। কেসিসি রিকশার মালিকদের গতিবিধির ওপর নজর রাখছে। কেসিসির খাতায় ১৭ হাজার লাইসেন্সধারী রিকশা। কিন্তু গত অর্থ বছরে (২০১৮-১৯) ৪ হাজার ২৯৯টি রিক্সার লাইসেন্স নবায়ন হয়।’

কেসিসির ভারপ্রাপ্ত মেয়র আমিনুল ইসলাম মুন্না বলেন, ‘১৫ অক্টোবর রিকশার ব্যাটারি অপসারণ কার্যক্রম চলবে। দেশের কোথাও ব্যাটারিচালিত রিকশা চলাচলের অনুমোদন নেই। চালকরা নিয়ন্ত্রণের বাইরে দ্রুত গতিতে রিকশা চালায়, যা তাদের নিয়ন্ত্রণ করার ক্ষমতা নেই। এ কারণে প্রতিনিয়তই ছোটখাট দুর্ঘটনা লেগেই আছে।

/এআর/

লাইভ

টপ