কুষ্টিয়া সরকারি কলেজে ভর্তি হলেন আবরারের ভাই ফাইয়াজ

Send
কুষ্টিয়া প্রতিনিধি
প্রকাশিত : ১৮:৩০, অক্টোবর ১৭, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ২০:৪৪, অক্টোবর ১৭, ২০১৯

একটি শিশুর সঙ্গে আবরার ফাহাদ ও বাঁয়ে ছোট ভাই আবরার ফাইয়াজ

কুষ্টিয়া সরকারি কলেজে বিজ্ঞান বিভাগে ভর্তি হয়েছেন বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) নিহত ছাত্র আবরার ফাহাদের ছোট ভাই আবরার ফাইয়াজ। বৃহস্পতিবার (১৭ অক্টোবর) বেলা ৩টার দিকে কুষ্টিয়া সরকারি কলেজে বিজ্ঞান বিভাগে ফাইয়াজের ভর্তি সম্পন্ন হয়। আবরার ফাইয়াজ অসুস্থ থাকায় তার বাবা ভর্তি-সংক্রান্ত কাজ সম্পন্ন করেন।

এর আগে গত মঙ্গলবার (১৫ অক্টোবর) ঢাকা কলেজের উচ্চমাধ্যমিক প্রথম বর্ষে অধ্যয়নরত আবরার ফাইয়াজ ছাড়পত্র নেন। ওই দিন কুষ্টিয়া সরকারি কলেজে ভর্তি হতে ঢাকা বোর্ড তাকে অনুমতিও দেয়। আবরার ফাহাদের মৃত্যুর পর গত ১২ অক্টোবর ঢাকায় আর পড়ালেখা করবেন না বলে সাংবাদিকদের জানান ফাইয়াজ।

কুষ্টিয়া সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ কাজী মনজুর কাদির বলেন, ‘বিজ্ঞান বিভাগে বিশেষ ব্যবস্থাপনায় আবরার ফাইয়াজকে ভর্তি করা হয়েছে। আজ (বৃহম্পতিবার) বিকালে ভর্তির সব কাগজপত্র নিয়ে আবরার ফাইয়াজের বাবা আমাদের কলেজে এসেছিলেন। ভর্তির যাবতীয় প্রক্রিয়া সম্পন্ন করেছি। এখন থেকে সে (ফাইয়াজ) এই কলেজেই পড়াশোনা করবে।’

কুষ্টিয়া সরকারি কলেজে বিজ্ঞান বিভাগে আবরার ফাইয়াজের ভর্তিসংক্রান্ত কাজ সম্পন্ন করেন তার বাবা বরকত উল্লাহ (ছবি– প্রতিনিধি)

ফাইয়াজের বাবা বরকত উল্লাহ বলেন, ‘ফাইয়াজ অসুস্থ থাকায় আমিই তার কাগজপত্র নিয়ে এসেছি। কাগজপত্র দেওয়ার পর কলেজ কর্তৃপক্ষ ভর্তি করে নিয়েছে।’

উল্লেখ্য, গত ৬ অক্টোবর রাতে বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) শেরেবাংলা হলের ১০১১ নম্বর কক্ষ থেকে ডেকে নিয়ে পিটিয়ে হত্যা করা হয় বুয়েটের ১৭তম ব্যাচের ইলেকট্রিক অ্যান্ড ইলেকট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের ছাত্র আবরার ফাহাদ রাব্বীকে। ওই দিন রাত তিনটার দিকে হলের দ্বিতীয় তলার সিঁড়ি থেকে আবরার ফাহাদের মরদেহ উদ্ধার করে কর্তৃপক্ষ। এ ঘটনার পর আবরার ফাহাদের ছোট ভাই আবরার ফাইয়াজ ঢাকা কলেজে ছাড়পত্রের জন্য আবেদন করেন। ওই দিনই তাকে ছাড়পত্র দেয় কলেজ কলেজ কর্তৃপক্ষ।

 

/এমএ/এমওএফ/

লাইভ

টপ