বরগুনায় ছাত্রলীগের দুই গ্রুপে সংঘর্ষে আহত ১০, আটক ৩

Send
বরগুনার প্রতিনিধি
প্রকাশিত : ১৫:৪৩, অক্টোবর ১৯, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ১৫:৫৩, অক্টোবর ১৯, ২০১৯

পাথরঘাটায় ছাত্রলীগের দুই গ্রুপে সংঘর্ষবরগুনার পাথরঘাটায় ছাত্রলীগের দুই গ্রুপে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। ছাত্রলীগে অনুপ্রবেশের অভিযোগে অব্যাহতি পাওয়া সাধারণ সম্পাদক এনামুল হোসাইন ও বর্তমান ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক বাকি বিল্লাহ জয় সমর্থিত দুই পক্ষের মধ্যে দফায় দফায় সংঘর্ষ হয়েছে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে লাঠিচার্জ করেছে পুলিশ। এসময় উভয়পক্ষের অন্তত ১০ জন আহত হয়েছেন। এ ঘটনায় পুলিশ তিনজনকে আটক করেছে।

শনিবার (১৯ অক্টোবর) সকাল ৯টার দিকে পাথরঘাটা পৌরশহরের রাসেল স্কয়ারে এনামুল সমর্থকদের মানববন্ধন কর্মসূচিতে জয় সমর্থকরা বাধা দেয়। এসময় তারা কর্মসূচিতে যোগদানের জন্য আসা এনামুল সমর্থকদের গাড়িতে হামলা করে ও মাইক খুলে নিয়ে যায়। জয় সমর্থকদের বাধার পর এনামুল সমর্থকদের মানববন্ধন পণ্ড হয়ে গেলে পরে তারা পাথরঘাটা ডিগ্রি কলেজে জড়ো হয়। সেখান থেকে মিছিল নিয়ে শহরের প্রবেশ করলে ফের রাসেল স্কয়ারে জয় সমর্থকের বাধার সম্মুখিন হয়। এসময় উভয় পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ বাধে। এক পর্যায়ে পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে লাঠিচার্জ করে উভয় পক্ষকে ছত্রভঙ্গ করে দেয়। সংঘর্ষে উভয় পক্ষের অন্তত ১০ জন আহত হয়েছেন। এদের মধ্যে পাঁচ জনকে পাথরঘাটা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।পাথরঘাটায় ছাত্রলীগের দুই গ্রুপে সংঘর্ষ

পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসার পর এনামুল সমর্থকরা শহরের রাসেল স্কয়ারে জড়ো হয়ে বিক্ষোভ সমাবেশ কর্মসূচি পালন করেন। এসময় তারা এনামুল হোসাইনকে উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারল সম্পাদক পদে পুনর্বহালের দাবি জানান। এদিকে সংঘর্ষের ঘটনায় পুলিশ তিনজনকে আটক করেছে। শহরে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

উপজেলা ছাত্রলীগের সদ্য অব্যহতি পাওয়া সাধারণ সম্পাদক এনামুল হোসাইন বলেন, ‘আমার সমর্থনে ছাত্রলীগ কর্মীরা শান্তিপূর্ণ কর্মসূচি পালন করছিল। এসময় বর্তমান ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদকের সমর্থকরা অতর্কিত হামলা চালিয়েছে। জয় সমর্থকদের কয়েক দফা হামলায় আমার অন্তত ২০ নেতাকর্মী আহত হয়েছে।’পাথরঘাটায় ছাত্রলীগের দুই গ্রুপে সংঘর্ষ

তিনি আরও বলেন, ‘আমি কোনও অপ্রীতিকর ঘটনা চাইনি। আমার ন্যায্যতা ফিরে পেতে ছাত্রলীগ কর্মীরা শান্তিপূর্ণ কর্মসূচি পালন করতে গিয়ে হামলার শিকার হয়েছে।’ অব্যাহতি প্রসঙ্গে এনামুল বলেন, ‘সুষ্ঠু তদন্তের মাধ্যমে আমার বিরুদ্ধে আনা অভিযোগের প্রমাণ পেলে আমি নিজেই পদ থেকে অব্যাহতি নিয়ে নিতাম। কিন্তু আমি ষড়যন্ত্রের শিকার হয়েছি। আমি চাই আমার বিরুদ্ধে অভিযোগগুলো তদন্ত করা হোক।’

পাথরঘাটা উপজেলা ছাত্রলীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক বাকী বিল্লাহ জয় বর্তমানে ঢাকায় অবস্থান করছেন। তিনি মোবাইল ফোনে বলেন, ‘আমার সমর্থনে ছাত্রলীগ নেতাকর্মীরা শহরে মিছিল করছিল এসময় তাদের ওপর পুলিশ ও এনামুল সমর্থকরা হামলা করেছে। এতে অন্তত ১০ ছাত্রলীগ কর্মী আহত হয়েছে। কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ এনামুলকে দল থেকে অব্যাহতি দিয়েছে। আমার অনুরোধ থাকবে দলের দলীয় শৃঙ্খলা বজায় রাখার জন্য কোনও ধরনের হট্টগোল না করে শান্তিপূর্ণ পরিবেশ বজায় রাখার জন্য।’পাথরঘাটায় ছাত্রলীগের দুই গ্রুপে সংঘর্ষ

পাথরঘাটা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. শাহাবুদ্দিন জানান, ‘বিশৃঙ্খলা সৃষ্টির চেষ্টা করায় পুলিশ তিন জনকে আটক করেছে। আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে পুলিশ কঠোর অবস্থানে রয়েছে। কোনও প্রকার বিশৃঙ্খলা তৈরির চেষ্টা করলে পুলিশ আইনগত ব্যবস্থা নেবে।’

প্রসঙ্গত, বৃহস্পতিবার (১৭ অক্টোবর) কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি আল নাহিয়ান জয় ও সাধারণ সম্পাদক লেখক ভট্টাচার্য স্বাক্ষরিত এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে পাথরঘাটা উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক এনামুল হোসাইনকে অব্যাহতি দিয়ে যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক বাকি বিল্লাহ জয়কে ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব প্রদান করা হয়। বিজ্ঞপ্তিতে  বলা হয়, এনামুলের বিরুদ্ধে 'অনুপ্রবেশকারী' ও সংগঠন পরিপন্থী কর্মকাণ্ডের প্রমাণ পাওয়ায় তাকে অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে।

 

/এফএস/

লাইভ

টপ