নাশকতা পরিকল্পনার অভিযোগে চট্টগ্রামে গ্রেফতার ১৮

Send
নিজস্ব প্রতিবেদক, চট্টগ্রাম
প্রকাশিত : ০৭:০৯, অক্টোবর ২৩, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ০৭:১১, অক্টোবর ২৩, ২০১৯

গ্রেফতারের প্রতীকী ছবিচট্টগ্রাম নগরীর বাকলিয়া থানার বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালিয়ে ছাত্র শিবিরের চার নেতাসহ ১৮ জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। মঙ্গলবার (২২ অক্টোবর) ভোর থেকে দুপুর পর্যন্ত অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেফতার করা হয়। বাকলিয়া থানার ওসি নেজাম উদ্দিন এ তথ্য জানিয়েছেন। আটককৃতদের বিরুদ্ধে বিস্ফোরক ও বিশেষ ক্ষমতা আইনে মামলা করা হয়েছে।
তারা হলেন, চট্টগ্রাম কোতোয়ালি থানা ছাত্র শিবিরের সেক্রেটারি মো. আশরাফুল (২৪), মহাসীন কলেজের ছাত্র শিবিরের সেক্রেটারি মিজবাহ উদ্দীন হাবিব (২৪), দারুল উলুম মাদরাসা চন্দনপুরার ছাত্র শিবিরের সেক্রেটারি রাকিবুল হাসান (২১), দেওয়ান বাজার ওয়ার্ড ছাত্র শিবিরের সেক্রেটারি মো. সাইমন (২৩), ওমর ফারুক (৪৭), কামরুল ইসলাম (৪০), আব্দুল করিম (১৮), আবু ওবাইদা (১৯), মিজানুর রহমান (১৮), আব্দুল্লাহ আল ফাহাদ (১৮), মো. শরীফুল (২১), সাজ্জাদুল ইসলাম সবুজ (২০), আমির হোসেন (১৮), মো. ফরহাদ (১৮), নুরুল হুদা (২২), মো. সাকিল (১৮), আব্দুল মোমেন (১৯), মো. সাহেদ (৪৯)।
ওসি নেজাম উদ্দিন বলেন, ‘ভোলার ঘটনায় কিছু যুবক নগরীতে অস্থিতিশীল পরিবেশ সৃষ্টি করার পরিকল্পনা করছে এমন তথ্য পেয়ে আমরা অভিযান পরিচালনা করি। অভিযানে শান্তিনগর আবাসিক এলাকার জিএস নামে একটি ভবনের নিচে জড়ো হওয়া বেশ কয়েকজন যুবক পুলিশকে দেখে দৌড়ে পালানোর চেষ্টা করে। সেখান থেকে আমরা কয়েক জনকে আটক করি। পরে তাদের দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালিয়ে অন্যদের আটক করা হয়।’
অভিযানে বিপুল পরিমাণ জিহাদি বই উদ্ধার করা হয়েছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘আটক যুবকরা জিএস ভবনে মেসে থাকতো। ওই ভবনের নিচ থেকে চারটি হাতবোমা উদ্ধার করা হয়। পরে ভবনের চার তলা থেকে ৬ তলা পর্যন্ত অভিযান চালিয়ে বিপুল পরিমাণ জিহাদি বই উদ্ধার করা হয়েছে। আসামিদের আদালতের মাধ্যমে সন্ধ্যায় কারাগারে পাঠানো হয়।’

 

/ওআর/

লাইভ

টপ