ঘূর্ণিঝড় মোকাবিলায় কক্সবাজারে ব্যাপক প্রস্তুতি

Send
কক্সবাজার প্রতিনিধি
প্রকাশিত : ২৩:৪৪, নভেম্বর ০৮, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ২৩:৫০, নভেম্বর ০৮, ২০১৯

দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কমিটির জরুরি বৈঠক (ছবি– প্রতিনিধি)

বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট ঘুর্ণিঝড় ‘বুলবুলে’র ক্ষয়ক্ষতি মোকাবিলায় ব্যাপক প্রস্তুতি নিয়েছে কক্সবাজার জেলা প্রশাসন। প্রস্তুত রাখা হয়েছে সাড়ে ছয় হাজার স্বেচ্ছাসেবক ও ৫৩৮টি আশ্রয়কেন্দ্র। এ ছাড়া, রোহিঙ্গা ক্যাম্পে বিভিন্ন সংস্থার সাড়ে চার হাজার কর্মী প্রস্তুত রাখা হয়েছে। যেকোনও কঠিন পরিস্থিতি মোকাবিলায় সেনাবাহিনীও প্রস্তুতি নিয়েছে।

শুক্রবার (৮ নভেম্বর) বিকালে জেলা প্রশাসনের সম্মেলনকক্ষে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কমিটির জরুরি বৈঠকে এসব তথ্য জানান জেলা প্রশাসক মো. কামাল হোসেন।

কক্সবাজার আবহাওয়া অফিসের সহকারী আবহাওয়াবিদ মো. আব্দুর রহমান জানান, ঘূর্ণিঝড়টির অবস্থান ক্রমন্বয়ে সরে যাচ্ছে। কক্সবাজার উপকূলে এই মুহূর্তে তেমন ঝুঁকি না থাকলেও পরবর্তীতে বুলবুল যদি গতিপথ পরিবর্তন করে, তখন ক্ষতিগ্রস্ত হবে মানুষ। তাই এখনও ৪ নম্বর হুঁশিয়ারি সংকেত বহাল রাখা হয়েছে। সব ধরনের নৌযান পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত চলাচল করবে না।

জেলা প্রশাসক মো. কামাল হোসেন বলেন, ‘সব উপজেলা নির্বাহী অফিসারকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে প্রস্তুতি নেওয়ার; যাতে কমতি না হয়। সর্বোচ্চ প্রস্তুতি নিয়ে এটি মোকাবিলা করতে হবে। জেলার সংশ্লিষ্ট সবাইকে বলা হয়েছে, যার যার অবস্থান থেকে প্রস্তুতি নিতে। আশ্রয়কেন্দ্র এবং মেডিক্যল টিমও প্রস্তুত করা হয়েছে।’

তিনি আরও জানান, ঘূর্ণিঝড় বুলবুল মোকাবিলায় দুই লাখ ৬২ হাজার টাকা, ২০৬ মেট্রিক টন চাল, ৯৭টি মেডিক্যাল টিম চাওয়া হয়েছে। বাতিল করা হয়েছে সব সরকারি কর্মকর্তার ছুটি। এ ছাড়া, রোহিঙ্গা ক্যাম্পে সতর্ক বার্তা দেওয়া হয়েছে।

 

/এমএ/

লাইভ

টপ