বেড়ায় আ.লীগ প্রার্থীর মিছিলে হামলা, আহত ১৫

Send
পাবনা প্রতিনিধি
প্রকাশিত : ২৩:০১, মার্চ ১১, ২০১৬ | সর্বশেষ আপডেট : ২৩:০১, মার্চ ১১, ২০১৬

পাবনায় কৃষক সমিতির নেতাকে গুলি ও কুপিয়ে হত্যাপাবনার বেড়া উপজেলার চাকলা ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ সমর্থিত চেয়ারম্যান প্রার্থীর মিছিলে বিদ্রোহী প্রার্থীর সমর্থকদের হামলায় কমপক্ষে ১৫ জন আহত হয়েছেন।
শুক্রবার সন্ধ্যায় চাকলা ইউনিয়নের তারাপুরে এ হামলার ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় এলাকায় চরম উত্তেজনা বিরাজ করায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।
আহতদের মধ্যে আলামিন (২৫), রফিকুল (২০), কেরামত (৪০), শরিফুল (২৫), আলামিন (১৮), রমজান (৪০), লুৎফর (৫৫), উজ্জ্বল (৪০), মান্না (৪০) ও কেরামতকে (৩৫) বেড়া হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
প্রত্যেক্ষদর্শীরা জানান, সন্ধ্যায় চাকলা ইউনিয়নের তারাপুর প্রাথমিক বিদ্যালয়ে আওয়ামী লীগ সমর্থিত চেয়ারম্যান প্রার্থী মো. ফারুক  হোসেনের নৌকা প্রতীকের নির্বাচনি বৈঠক ছিল। বৈঠকে চেয়ারম্যান প্রার্থী মো. ফারুক হোসেনসহ আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগ ও অঙ্গ সংগঠনের নেতারা উপস্থিত ছিলেন।
বিকাল ৫টা থেকে ইউনিয়নের বিভিন্ন এলাকা থেকে নৌকা প্রতীকের কর্মী সমর্থকরা ওই বৈঠকে যোগ দেন। এরই এক পর্যায় বাগজান গ্রাম থেকে একটি মিছিল বৈঠকস্থলে আসার সময় আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী শামীম হোসেনের বাড়ির কাছে আসা মাত্রই মিছিলে অতর্কিতভাবে শামীমের বাড়ির পাশ থেকে হামলা চালানো হয়। এতে মিছিলটি ছত্রভঙ্গ হয়ে যায় এবং প্রাণ ভয়ে লোকজন পালাতে থাকে।
সন্ধ্যার দিকে তারাপুর প্রাথমিক বিদ্যালয়ের বৈঠকে প্রধান অতিথি বক্তব্য রাখার সময় আবার শামীমের নেতৃত্বে একটি মিছিল ওই বৈঠকে আসার চেষ্টা করে। এসময় এলাকায় আতংক ছড়িয়ে পরে। পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। এ ঘটনায় উপস্থিত বক্তারা তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানান।
এ ব্যাপারে শামীমের সঙ্গে যোগযোগ করা হলে তিনি ঘটনা সত্যতা অস্বীকার করে বলেন, ফারুক হোসেনের লোকজনই তার বাড়িতে হামলা চালিয়েছে।
আর বেড়া মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ফিরোজ আহমেদ জানান, এলাকার পরিস্থিতি পুলিশের নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। ঘটনাস্থলে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। তদন্ত সাপেক্ষে আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে।
এ বিপোর্ট লেখা পর্যন্ত থানায় মামলার প্রস্তুতি চলছিল।
/এএইচ/

লাইভ

টপ