একান্ত সাক্ষাৎকারে সাতক্ষীরা পৌরসভার মেয়র‘দুর্নীতির ক্ষেত্রে জিরো টলারেন্স’

মো. আসাদুজ্জামান, সাতক্ষীরা১৯:৪২, মার্চ ১৪, ২০১৬

তাজকিন আহমেদ চিশতীসাতক্ষীরা জেলা সদরে অবস্থিত সাতক্ষীরা পৌরসভা ১৮৬৯ সালে ৩১.১০ বর্গ কিলোমিটার আয়তন নিয়ে খুলনা বিভাগের প্রথম পৌরসভা হিসাবে প্রতিষ্ঠা লাভ করে। ১৯৯৮ সালে এটি প্রথম শ্রেনির পৌরসভায় উন্নীত হয়। ৯ টি ওয়ার্ডে ৪০টি মহল্লা নিয়ে গঠিত পৌরসভায় বর্তমান প্রায় ৭৯ হাজার মানুষ বসবাস করছে। ২০১৫ সালের ৩০ ডিসেম্বর প্রথমবারের মতো দলীয়ভাবে অনুষ্ঠিত মেয়র নির্বাচনে বিএনপির মনোনয়ন নিয়ে তাজকিন আহমেদ চিশতি  সাতক্ষীরা সদর পৌরসভার মেয়র নির্বাচিত হন। বুধবার সকালে বাংলা ট্রিবিউনের সঙ্গে একান্ত সাক্ষাৎকারে মিলিত হন তিনি। সাক্ষাৎকার নিয়েছেন মো. আসাদুজ্জামান।

বাংলা ট্রিবিউন: মেয়র হিসেবে পৌর এলাকা নিয়ে আপনার প্রথম পরিকল্পনা কী

তাসকিন আহমেদ চিশতি: দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া যে আস্থা ও বিশ্বাস নিয়ে ধানের শীষ প্রতীকে সাতক্ষীরা পৌরসভার মেয়র পদে আমাকে মনোনয়ন দিয়েছেন, সর্বাত্মকরণে চেষ্টা করবো তার সেই বিশ্বাস ও আস্থাকে ধরে রাখতে। বাবা আবুল কাশেম ভ্যাদল সাতক্ষীরা পৌরসভার মেম্বার ছিলেন। চারবার ভোটে জিতে সাধারণ মানুষের জন্য কাজ করে গেছেন। আমিও বাবার মতো সাতক্ষীরা পৌরবাসীর সেবা করতে চাই। আমি মেয়র নয় সেবক হতে চাই। আমার ধারণা সাতক্ষীরা শহরের প্রধান সমস্যা জলাবদ্ধতা। শহরের ভেতর দিয়ে বয়ে চলা প্রাণ সায়ের খালের সংস্কার সাধন, বেতনা নদী রক্ষা করাসহ নগরের পরিবেশ পরিচ্ছন্ন করে একটি দূষণমুক্ত এলাকা গড়ে তুলবো। সাতক্ষীরা সীমান্তবর্তী জেলা হওয়ায় এখানে মাদকের ভয়াবহতা বেশি। পৌরবাসীকে সঙ্গে নিয়ে মাদকের বিরুদ্ধে মাঠে নামবো।

লাইভ

টপ