behind the news
Vision  ad on bangla Tribune

গলায় ছুরি ধরে ব্যালট ছিনতাই, সংঘর্ষের পর ভোট স্থগিত

সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি১৪:৪৭, মার্চ ৩১, ২০১৬

সিরাজগঞ্জ

সিরাজগঞ্জ সদর উপজেলার কাওয়াকোলা ইউনিয়নের বড়কয়রা কমিউনিটি ক্লিনিক কেন্দ্রে জাল ভোট ও ব্যালট পেপার ছিনতাইয়ের ঘটনায় আওয়ামী লীগ ও বিএনপি চেয়ারম্যান প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষ হয়েছে। বৃহস্পতিবার বেলা সাড়ে ১০টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। এদিকে, ব্যালট পেপার না থাকায় ওই কেন্দ্রে ভোটগ্রহণ স্থগিত রয়েছে।

কাওয়াকোলা ইউনিয়নের বড়কয়রা কমিউনিটি ক্লিনিক কেন্দ্রের নিরপত্তার দায়িত্বপ্রাপ্ত পুলিশের উপ-পরিদর্শক চাঁদ আলী জানান, সকাল থেকেই সুষ্ঠুভাবে ভোট চলছিল। সকাল সাড়ে ১০টার দিকে হঠাৎ করে আওয়ামী লীগ চেয়ারম্যান প্রার্থীর সমর্থকরা দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে কেন্দ্রের ৩নং বুথে প্রবেশ করে প্রিজাইডিং অফিসারের গলায় ছুরি ধরে ব্যালট পেপারের ১০টি বই ছিনিয়ে নিয়ে যায়। এ সময় বিএনপি সমর্থিত চেয়ারম্যান প্রার্থী ও সমর্থকদের সঙ্গে তাদের সংঘর্ষ বাধে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে ১৫/২০ রাউন্ড শট গানের গুলি ছোড়ে পুলিশ। এ সময় তিনজনকে আটক করা হয়।

কেন্দ্রের দায়িত্বপ্রাপ্ত প্রিজাইডিং অফিসার মো. জাহাঙ্গীর আলম বলেন, আমার কেন্দ্রে ১ হাজার ৩৫৯ ভোটারের জন্য উপজেলা নির্বাচন অফিস থেকে একশ পৃষ্ঠার ১৪টি ব্যালট বই দেওয়া হয়। সকাল সাড়ে ১০টা পর্যন্ত মাত্র একশ থেকে ১২৫টি ভোট সংগ্রহ হয়েছে। এ অবস্থায় সরকার দলীয় প্রার্থী ও সমর্থকরা অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে ভোটকেন্দ্র দখল করে বুথে ঢুকে আমার গলায় ছুরি ধরে একশ ব্যালট পেপারের ১০টি বই ছিনিয়ে নিয়ে যায়। এর পরপরই গোণ্ডগোল শুরু হয়। ব্যালট পেপার না থাকায় নির্বাচন কর্তৃপক্ষ ও উপজেলা নির্বাহী অফিসারের সঙ্গে কথা বলে ভোটগ্রহণ স্থগিত করা হয়েছে।

সদর উপজেলা নির্বাচন অফিসার জয়নাল অবেদীন বলেন, সবারইতো জীবনের মায়া আছে। ব্যালট ছিনিয়ে নিয়ে গেলে ভোটগ্রহণ চলবে কিভাবে?

/বিটি/এফএস/

Global Brand  ad on Bangla Tribune

লাইভ

টপ