behind the news
Rehab ad on bangla tribune
 
Vision Refrigerator ad on bangla Tribune

বান্দরবানে লড়বে আ.লীগ-বিএনপি-জেএসএস, নেই ইউপিডিএফ

বান্দরবান প্রতিনিধি১৭:০৫, এপ্রিল ০১, ২০১৬

বান্দরবানরাঙামাটি ও খাগড়াছড়ির বিভিন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগ ও বিএনপি প্রার্থী দিতে না পারলেও বান্দরবানে প্রার্থী দিয়েছে দল দু’টি। পাশাপাশি নির্বাচনে প্রার্থী দিয়েছে জনসংহতি সমিতি (জেএসএস)। তবে পাহাড়ের আরেক সংগঠন ইউনাইটেড পিপলস ডেমোক্রেটিক ফ্রন্ট (ইউপিডিএফ) প্রার্থী দেওয়া থেকে বিরত থেকেছে।
সংশ্লিষ্ট সূত্র বাংলা ট্রিবিউনকে জানায়, তৃতীয় ধাপের ইউপি নির্বাচনে বান্দরবানের ২৫টি ইউপিতেই আওয়ামী লীগ প্রার্থী দিয়েছে। এছাড়া ২৪টিতে বিএনপি এবং আঞ্চলিক রাজনৈতিক সংগঠন জনসংহতি সমিতি (জেএসএস) প্রার্থী দিয়েছে ১২টি ইউনিয়নে। বান্দরবান সদর ও থানচিতে দুটি করে, রোয়াংছড়িতে তিনটি, রুমায় চারটি ও লামায় একটি ইউপিতে জেএসএসের প্রার্থী রয়েছে।
বিগত উপজেলা নির্বাচনে বিএনপি এবং জেএসএস জেলার সাতটি উপজেলায় সমঝোতার মাধ্যমে তাদের প্রার্থী ভাগাভাগি করলেও এবার কৌশলগত কারণে শুধুমাত্র রুমা সদর ইউনিয়নে জেএসএসের প্রার্থীকে বিএনপি সমর্থন দিয়েছে। জেলা বিএনপির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মজিবুর রশিদ বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, রুমা সদর ইউপিতে কৌশলগত কারণে আমাদের কোনও প্রার্থী দেওয়া হয়নি।
এদিকে, নির্বাচন বর্জন না করলেও ইউপি নির্বাচন নিয়ে পরিকল্পনা না থাকায় পাহাড়ের আলোচিত আঞ্চলিক সংগঠন ইউপিডিএফ বান্দরবানের কোনও ইউপিতেই তাদের প্রার্থী দেয়নি। তারা নির্বাচনে কোনও রাজনৈতিক দলের প্রার্থীকে সমর্থনও দেবে না বলে জানা গেছে। ইউনাইটেড পিপলস ডেমোক্রেটিক ফ্রন্টের (ইউপিডিএফ) বান্দরবান জেলা সমন্বয়ক ছোটন কান্তি তংচঙ্গ্যা বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ইউপি নির্বাচন নিয়ে দলের পরিকল্পনা না থাকায় আমরা বান্দরবানে কোনও প্রার্থী দিচ্ছি না।

তবে জেলার ইউপিতে মূলত নির্বাচনি লড়াই হবে আওয়ামী লীগ ও বিএনপি প্রার্থীদের মধ্যে। বান্দরবান জেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি এ কে এম জাহাঙ্গীর বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ব্যাপক যাচাই বাছাই করে জেলার সব ইউপিতে আওয়ামী লীগ প্রার্থী দিয়েছে।

প্রসঙ্গত, হালনাগাদ ভোটার তালিকা প্রনয়ণের সময় তালিকায় সমস্যা হওয়ায় জেলার আলীকদম উপজেলার চারটি ইউপিতে নির্বাচন স্থগিত রাখা হয়েছে।

/বিটি/এমএম/এজে/

Ifad ad on bangla tribune

লাইভ

Nitol ad on bangla Tribune
টপ