নির্বাচনি সহিংসতায় মাদারীপুরে গুলিবিদ্ধ একজনের মৃত্যু

Send
মাদারীপুর প্রতিনিধি১৩:১৮, এপ্রিল ০২, ২০১৬

নির্বাচনি সহিংসতা

নির্বাচন পরবর্তী সহিংসতায় মাদারীপুরে আওয়ামী লীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষে গুলিবিদ্ধ হাসান বেপারী নামে একজনের মৃত্যু হয়েছে। শনিবার ভোরে ঢাকায় একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।

শুক্রবার দুপুরে সদর উপজেলার কুনিয়া ইউনিয়নের দিয়াপাড়া গ্রামে সংঘর্ষের সময় আটজন গুলিবিদ্ধসহ ২৫ জন আহত হন। আহতদের প্রথমে মাদারীপুর পরে ফরিদপুর ও ঢাকায় ভর্তি করা হয়। এখনও বেশ কয়েকজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, কুনিয়া ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী সানোয়ার হোসেন এবং আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী সাহেব আলী নির্বাচনে অংশগ্রহণ করেন। সাবেক চেয়ারম্যান ও আওয়ামী লীগ নেতা ইসমাইল মাতুব্বর শুরু থেকে সাহেব আলীর পক্ষ নিলেও শেষ মুহূর্তে তার অবস্থান থেকে সরে দাঁড়ান। এতে অপর এক প্রার্থী অমিত হাসান কবির জয়লাভ করেন। প্রার্থী হেরে যাওয়া নিয়ে উত্তেজনা ও বাক বিতণ্ডার একপর্যায়ে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী সাহেব আলীর সমর্থকরা সাবেক চেয়ারম্যান ইসমাইল মাতুব্বরের বাড়িতে হামলা ও একটি ঘরে অগ্নিসংযোগ করে। এসময় ইসমাইল মাতুব্বরের লাইসেন্স করা বন্দুক দিয়ে তার ছেলে বেলায়েত হামলকারীদের ওপর গুলি চালায়। এতে রফিক হাওলাদার, কালাম, হাসান বেপারী, আলহাজ, রুবেল, নাইম, সালামসহ আটজন গুলিবিদ্ধ হয়। খবর পেয়ে বিজিবি, র‌্যাব ও পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। এলাকায় থমথমে পরিস্থিতি বিরাজ করছে।

মাদারীপুর সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জিয়াউল মোরশেদ জানান, কুনিয়া ইউনিয়নের গুলিবর্ষণের ঘটনায় এখনও কোনও মামলা হয়নি। লাইসেন্স করা বন্দুকটিকে জব্দ করা হবে।  

/বিটি/এসটি/

লাইভ

টপ