নন্দীগ্রামে যুবলীগ কর্মীর বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ

বগুড়া প্রতিনিধি১৫:২০, এপ্রিল ০৩, ২০১৬

ধর্ষণ

বগুড়ার নন্দীগ্রামে লিটন চন্দ্র মোহন্ত (২৬) নামে এক যুবলীগ কর্মীর বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। শনিবার রাতে পৌর এলাকার গুন্দইল পূর্বপাড়ায় এ ঘটনা ঘটে। পুলিশ শনিবার রাতেই ভিকটিমকে উদ্ধার এবং লিটনকে গ্রেফতার করেছে। এ ব্যাপারে থানায় মামলা হয়েছে।

এলাকাবাসীর বরাত দিয়ে পুলিশ জানায়, তিন মাস আগে গুন্দইল পূর্বপাড়া গ্রামে তাদের প্রতিবেশি ভ্যান চালকের সঙ্গে ওই মেয়েটির বিয়ে হয়। বিয়ের পরও মেয়েটিকে স্কুলে যাওয়ার -আসার পথে ওই গ্রামের ছেলে ও নন্দীগ্রাম পৌরসভার ২নং ওয়ার্ড যুবলীগ কর্মী লিটন উত্ত্যক্ত করতো। শনিবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে ওই মেয়েটি টয়লেটে যাওয়ার জন্য ঘর থেকে বের হলে লিটন তাকে ধরে গামছা দিয়ে মুখ বেঁধে ধর্ষণ করে। এসময় মেয়েটির চিৎকার শুনে তার অসুস্থ স্বামী ঘর থেকে বের হয়ে হাক-ডাক দিলে আশপাশের লোকজন এসে লিটনকে আটক করে। পরে লিটনের পরিবারের লোকজন এসে ভিকটিমের পরিবারের সদস্যদের মারধর করে লিটনকে ছিনিয়ে নিয়ে যায়।

মেয়েটির স্বামীর অভিযোগ, ধর্ষক পরিবার প্রভাবশালী। তারা ধর্ষণের ঘটনা মীমাংসা করতে রাতেই তাদের পুরাতন বাজার এলাকায় এক ব্যক্তির অফিসে নিয়ে যায়। মীমাংসায় রাজি না হলে প্রভাবশালীরা তাদের গ্রামছাড়া করাসহ হত্যার হুমকি দেয়। খবর পেয়ে রাত সাড়ে ১০টার দিকে নন্দীগ্রাম থানার এসআই মনিরুল ইসলাম সেখান থেকে ভিকটিমকে উদ্ধার করেন ও লিটনকে গ্রেফতার করেন।

ওসি হাসান শামীম ইকবাল জানান, ভিকটিম ধর্ষণের অভিযোগে লিটনের বিরুদ্ধে মামলা করেছে। রবিবার সকালে তাকে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে। ভিকটিমকে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

ওসি আরও জানান, লিটনের রাজনৈতিক পরিচয় তার জানা নেই।

 

/জেবি/এসটি/

লাইভ

টপ