behind the news
 
Vision  ad on bangla Tribune

মুক্তিযোদ্ধাদের নামের আগে বীর স্বীকৃতি দেওয়ার তদবির করবো: তথ্যমন্ত্রী

নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি২৩:৪৫, এপ্রিল ০৫, ২০১৬

তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু বলেন, মুক্তিযুদ্ধে যারা গিয়েছেন তারা প্রত্যেকেই সাহসী ও বীর। তাই সব মুক্তিযোদ্ধাদের নামের আগের ‘বীর’ ব্যবহারের জন্য সরকারি স্বীকৃতি দিতে শেষ তদবির করবো। যাতে মৃত্যুর পরও শুধুমাত্র নাম দেখে সবাই জানতে পারে যে উনি একজন মুক্তিযোদ্ধা।নারায়ণগঞ্জ তথ্যমন্ত্রী

মঙ্গলবার দুপুরে নারায়ণগঞ্জ জেলা পরিষদ প্রাঙ্গনে স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে মুক্তিযোদ্ধাদের সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। এর আগে তিনি জেলা পরিষদ প্রাঙ্গনে ‘৫২ থেকে বাংলাদেশ’ টেরাকোটার ম্যুরালের উদ্বোধন করেন।

নারায়গঞ্জ জেলা পরিষদের উদ্যোগে মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস উপলক্ষে মুক্তিযোদ্ধাদের মধ্যে সম্মাননা ও চেক প্রদানের জন্য ওই অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

হাসানুল হক ইনু আরও বলেন, আমার বিরুদ্ধে সমালোচনা করে অনেকে বলেন আমি কঠিন কঠিন কথা বলি। সকালে ঘুম থেকে উঠে রাজাকার যুদ্ধাপরাধীদের গালি দেই। স্বাধীন বাংলাদেশে রাজাকাররা হলো শয়তানের মতো। রাজাকার বুড়া হলেও বদলায় না। আমি আমৃত্যু রাজাকারকে রাজাকার বলবোই। যারা রাজাকারদের সঙ্গে হাত মিলিয়ে স্বাধীনতা দিবস পালন করেন তারা নব্য রাজাকার। আর যারা তাদের সঙ্গে নিয়ে ২১ ফেব্রুয়ারি পালন করে তারা পাকিস্তানি ভূত। আমি ক্ষমতার জন্য খুনীদের সঙ্গে কখনও আপোষ করি নাই। এ জন্য দীর্ঘদিন ক্ষমতার বাইরে ছিলাম।

নারায়গঞ্জ জেলা পরিষদের প্রশাসক মুক্তিযোদ্ধা আবদুল হাই এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন নারায়গঞ্জ জেলা পরিষদের নির্বাহী কর্মকর্তা কাজী মেরাজ হোসেন, নারায়গঞ্জ অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) গাউছুল আজম, মুক্তিযোদ্ধা সংসদ নারায়গঞ্জ জেলা ইউনিট কমান্ডার মোহাম্মদ আলী, নারায়গঞ্জ মহানগর আওয়ামীলীগের সভাপতি আনোয়ার হোসেন, সহ সভাপতি রোকনউদ্দিন আহমেদ, সাবেক জেলা কমান্ডার সামিউল্লাহ মিলন, নারায়গঞ্জ জেলা জাসদের সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা আব্দুর সাত্তার, সাধারণ সম্পাদক মুক্তিযোদ্ধা মোহর আলী চৌধুরী, জাতীয় শ্রমিক লীগের শ্রমিক উন্নয়ন ও কল্যাণ বিষয়ক সম্পাদক কাউসার আহম্মেদ পলাশ, জেলা ডেপুটি কমান্ডার অ্যাডভোকেট নুরুল হুদা, সদর উপজেলার কমান্ডার শাহজাহান ভূঁইয়া জুলহাস, এম এ রাসেল, জেলা পরিষদের প্রশাসনিক কর্মকর্তা রাশেদুজ্জামান, প্রকৌশলী আতাউর রহমান প্রমুখ।

/বিটি/টিএন/আপ-এআর/

লাইভ

Nitol ad on bangla Tribune
টপ