behind the news
 
Vision  ad on bangla Tribune

পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির টাকা আত্মসাৎ ঘটনার তদন্তে দুদক

পটুয়াখালী প্রতিনিধি১১:১২, এপ্রিল ০৬, ২০১৬

পটুয়াখালী

পটুয়াখালী পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির ব্যাংক হিসাবে ৬ কোটি ৪৬ লাখ টাকা আত্মসাতের ঘটনায় সদর থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। কোষাধ্যক্ষ জায়েদা খানমকে আসামি করে পটুয়াখালী অফিসের জেনারেল ম্যানেজার প্রকৌশলী হাফিজ আহমেদ বাদী হয়ে মামলাটি দায়ের করেন। সদর থানায় দায়েরকৃত মামলাটি তদন্ত করবে দুদক।

টাকা আত্মসাতের ঘটনায় জায়েদাকে সাময়িকভাবে বরখাস্ত করে তিন সদস্যের একটি তদন্ত কমিটিও গঠন করা হয়েছে। অভিযুক্ত জায়েদা বর্তমানে পলাতক রয়েছেন।

মামলার বিবরণ ও সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, ১৯৯২ সাল থেকে পটুয়াখালী পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির কোষাধ্যক্ষ পদে কর্মরত জায়েদা। গত ১৭ ফেব্রুয়ারি তাকে পটুয়াখালী জেলার কলাপাড়া জোনাল অফিসে বদলি করা হয়। এরপরই অফিসের রের্কড ও পটুয়াখালী পুরান বাজার অগ্রণী ব্যাংক শাখায় এসটিডি-১৫ হিসাব নম্বরে ব্যাপক গড়মিল প্রকাশ পায়।

অফিস রের্কড অনুযায়ী, ব্যাংকে ১০ কোটি ৮৯ লাখ টাকা থাকার কথা। বাস্তবে ব্যাংকে রয়েছে মাত্র ৪ কোটি ৪৩ লাখ টাকা। বাকি ৬ কোটি ৪৬ লাখ টাকা বিভিন্ন সময়ে জমা হয়নি। জায়েদা খানম দীর্ঘদিন থেকে সমিতিতে বিভিন্ন উৎস থেকে অর্জিত অর্থ পল্লী বিদ্যুতের অগ্রণী ব্যাংকের মূল হিসাবে জমা না দিয়ে তিনি আত্মসাৎ করেন। এছাড়া ব্যাংকের ভুয়া জমা রশিদ ও ব্যাংক হিসাবের মাসিক স্ট্রেটমেন্টগুলো জালিয়াতি করে এসব আত্মসাৎ করা অর্থ অফিসের মোট হিসাবে সমন্বয় করেন।

জেনারেল ম্যানেজার প্রকৌশলী হাফিজ আহমেদ জানান, টাকা আত্মসাতের ঘটনা প্রকাশ হওয়ার পরপরই অভিযুক্ত জায়েদাকে বরখাস্ত করা হয়েছে। এ ঘটনায় একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে।

পটুয়াখালী সদর থানার অফিসার ইনচার্জ কেএম তারিকুল ইসলাম বলেন, ‘পটুয়াখালী পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির টাকা আত্মসাতের ঘটনায় একটি মামলা দায়ের হয়েছে। আমাদের সিডিউল ভুক্ত না হওয়ায় দুদক মামলাটির তদন্ত করবে।’

/এসটি/

লাইভ

Nitol ad on bangla Tribune
টপ