নওগাঁয় চলছে জয়ার ‘বিউটি সার্কাস’

Send
খন্দকার রউফ পাভেল, নওগাঁ
প্রকাশিত : ১৯:০৪, ফেব্রুয়ারি ১১, ২০১৭ | সর্বশেষ আপডেট : ১৩:১৫, ফেব্রুয়ারি ১২, ২০১৭

নওগাঁ শুটিংয়ে জয়া আহসানসার্কাসের মালিক ও প্রধান ম্যাজিশিয়ান বিউটি। যার রূপ আর জাদু প্রদর্শনীর কারিশমায় পাগল এলাকার তিন প্রভাবশালী ব্যক্তি। বিউটিকে নিজের করে পাবার প্রতিযোগিতায় এক সময় হুমকির মুখে পড়ে যায় পুরো সার্কাস টিম। কিন্তু কৌশলী বিউটি নিজ বুদ্ধির জোরে শেষ পর্যন্ত কাটিয়ে উঠেন সেই বিপদ।

আর এই বিউটি রূপেই দেখা মিলবে দুই বাংলা জনপ্রিয় অভিনেত্রী জয়া আহসানকে। মাহমুদ দিদারের পরিচালনায় ‘বিউটি সার্কাস’ ছবিটির শুটিং চলছে নওগাঁ সাপাহার উপজেলার ফাঁকা মাঠে।

শনিবার (১১ ফেব্রুয়ারি) শুটিংয়ের ফাঁকে জয়া আহসান বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘দেশের অন্যতম সাংস্কৃতিক ঐতিহ্য হচ্ছে সার্কাস। একটা সময় পরিবার নিয়ে সার্কাস দেখতে যাওয়ার প্রচলন ছিল গ্রাম বাংলায়। কিন্তু নানা কারণে গতি হারিয়েছে সেই ঐতিহ্যটি। আর তাই সীমান্ত এলাকার এক নারীর জীবিকার তাগিদে নিজ কর্মক্ষেত্রে ভূমিকা রাখার মধ্য দিয়ে সার্কাস সংস্কৃতির সুদিন ফেরানোর একটা চেষ্টা চালানো হবে এই ছবিটির মাধ্যমে।’

ছবিটির গল্প প্রসঙ্গে জয়া আরও বলেন, ‘শুধু তাই নয়; বড় কথা হচ্ছে একজন রূপ ও বিশেষ গুণেভরা নারীকে অনেকেই নিজের করে পেতে চায়। কিন্তু বিপদে পড়লে সমাজের সেই সব পুরুষরা কী ধরনের অসহযোগিতামূলক আচরণ করে তাও থাকবে এই ছবির গল্পে।’

বিউটি সার্কাস ছবির তরুণ নির্মাতা মাহামুদ দিদার বলেন, ‘আমার জীবনের অনেক বড় কাজ এটি। তাই কোনও দিকে না তাকিয়ে শুধুই চ্যালেঞ্জ হিসেবে নিয়েছি। গ্রাম-বাংলার চিরায়ত মেলা ও সার্কাসের আদলে আমরা সেট নির্মাণ করেছি। ঐতিহ্যকে ধারণ করে গল্পের প্রয়োজনে সার্কাসের ক্ষেত্রটিকে একটু ফ্যান্টাসাইজ করেছি। দুইশ জনের বিশাল টিমের পাশাপাশি একটি মেলার আয়োজনও করেছি। এতে অনেক গ্রামবাসী অংশ নেবেন। মূলত অর্থ সংকট ও শীতের এই শেষ সময়টার জন্য অপেক্ষা করতে গিয়েই আমাদের নির্মাণের কাজ শুরু হতে দেরি হয়েছে।’

নওগাঁ শুটিংয়ে জয়া আহসানতিনি আরও বলেন, ‘‘সার্কাসকে কেন্দ্র করে একজন নারীর যে টিকে থাকা তার গল্প ‘বিউটি সার্কাস’। সার্কাস পুড়িয়ে দেয়ার পরও গণমানুষের পক্ষ নিয়ে হুমকির মুখেও একজন নারীর আপন শক্তিতে টিকে থাকার গল্প ফুটে উঠবে চলচ্চিত্রটিতে। এখানে পুরুষের ভূমিকাকে ইতিবাচক ও নেতিবাচক দুইভাবেই উপস্থাপন করা হচ্ছে। পাশাপাশি প্রচলিত চলচ্চিত্রের ছক থেকে বেরিয়ে সমাজের নানা শ্রেণীর মোড়ল ও ক্ষমতাধরদের আসল চরিত্র দেখা যাবে এই সিনেমার নায়কদের মাধ্যমে।’’

জয়া ছাড়াও এই সিনেমার উল্লেখযোগ্য চরিত্রে অভিনয় করছেন ফেরদৌস, তৌকির আহমেদ প্রমুখ।

প্রথম ভাগের শুটিংয়ের জন্য পুরো ইউনিট নওগাঁয় থাকবে ১৫ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত। নওগাঁ ছাড়াও সিলেটের একটি অঞ্চলেও চচ্চিত্রটির শুটিং হবে।

পরিচালক জানান, আগামী ঈদে ছবিটি মুক্তি দেওয়ার পরিকল্পনা রয়েছে। সরকারি অনুদানের এই চলচ্চিত্রটি সহ-প্রযোজনা করছে ইমপ্রেস টেলিফিল্ম।

/এমএম/

লাইভ

টপ