মুক্তি পেল ‘ডুব’ ছবির একমাত্র গান

Send
বিনোদন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ২১:৫২, অক্টোবর ১২, ২০১৭ | সর্বশেষ আপডেট : ২২:০০, অক্টোবর ১২, ২০১৭

চিরকুট২৭ সেপ্টেম্বর ট্রেলার প্রকাশের পর ১২ অক্টোবর ইউটিউবে মুক্ত হলো ‘ডুব’ ছবির একমাত্র গান ‘আহারে জীবন’। চিরকুট ব্যান্ডের তৈরি এই গানটি লিখেছেন ও কণ্ঠ দিয়েছেন শারমীন সুলতানা সুমি।
অন্যদিকে প্রকাশিত গানটিতে পাওয়া গেছে চিরকুট সদস্যদের উপস্থিতি। জানা গেছে, এটি গানটির প্রমোশনাল ভার্সন। যেখানে দেখা গেছে একটি ফাঁকা প্রেক্ষাগৃহের আসনে বসে গানের সঙ্গে কণ্ঠ মেলাচ্ছেন সুমী, পাশে ছিলেন ব্যান্ডের অন্য সদস্যরাও। আর তাদের সামনের পর্দায় স্লাইড হচ্ছে ‘ডুব’ সিনেমার কিছু স্থিরচিত্র।    
গানটির কথা, সুর, সংগীতায়োজন এবং কণ্ঠ- এক কথায় অনবদ্য। জীবন নিয়ে এমন আক্ষেপের গান সচরাচর পাওয়া যায় না। যা রূপালি পর্দায় প্রকাশের পর আরও বাড়তি আবেগ ছড়াবে দর্শকমনে। গানটি প্রকাশের পর এমনটাই বলাবলি করছেন অনেকে।

গানটি রাখা আছে নিম্নে:


‘ডুব’-এর গল্প জাভেদ হাসান নামের একজন চলচ্চিত্র পরিচালককে ঘিরে। যিনি একটা সময় নিজের মেয়ের বান্ধবীকে বিয়ে করেন। এ কারণে মেয়ের সঙ্গে জাভেদের দূরত্ব তৈরি হয়। তবে পরিচালকের মৃত্যুর পর তার প্রতি পরিবারে নতুনভাবে তৈরি হয় ভালোবাসা।
২৭ অক্টোবর বাংলাদেশ ও ভারতে একসঙ্গে মুক্তি পেতে যাচ্ছে বহুল আলোচনা-সমালোচনার জন্ম দেওয়া ছবিটি।
বলিউড অভিনেতা ইরফান খান অভিনীত বাংলাদেশের প্রথম ছবি এটি। এর মুক্তি উপলক্ষে উদ্বোধনী প্রদর্শনী ও প্রচারণায় অংশ নিতে আগামী ২৫ অক্টোবর ঢাকায় আসবেন তিনি।
‘ডুব’-এর শুটিংয়ে অংশ নিতে গত বছরের ১৭ মার্চ ঢাকায় আসেন ইরফান। এতে তার সঙ্গে বিভিন্ন চরিত্রে অভিনয় করেছেন নুসরাত ইমরোজ তিশা, রোকেয়া প্রাচী ও কলকাতার পার্নো মিত্র।
ডুব-এর চার চরিত্রছবিটির ইংরেজি নাম ‘নো বেড অব রোজেস’। চলতি বছরের ১২ ফেব্রুয়ারি সেন্সর বোর্ডে জমা পড়ে ‘ডুব’। কিন্তু পরদিন হুমায়ূনপত্নী মেহের আফরোজ শাওন সেন্সর বোর্ডে আপত্তিপত্র পাঠান। তার অভিযোগ ছিল, অনুমতি না নিয়েই তার স্বামীর জীবন অবলম্বনে তৈরি হয়েছে ছবিটি। মূলত এ কারণে সেন্সর বোর্ডে জমা পড়ার অগেই আটকে যায় ‘ডুব’। ১৬ ফেব্রুয়ারি তথ্য মন্ত্রণালয়ের এক আদেশে প্রিভিউ কমিটির অনাপত্তিপত্র স্থগিত হয়। তবে জটিলতা কাটিয়ে কয়েকটি দৃশ্য কর্তনসাপেক্ষে প্রায় ছয় মাস পর গত ৮ আগস্ট সেন্সর বোর্ডের ছাড়পত্র পায় ‘ডুব’।
বাংলাদেশের জাজ মাল্টিমিডিয়ার সঙ্গে যৌথভাবে ছবিটি প্রযোজনা করেছে ভারতের এসকে মুভিজ ও ইরফান খানের প্রতিষ্ঠান।

/এস/এমএম/

লাইভ

টপ