ভালো লাগা মুহূর্তগুলো সবসময় স্মৃতি হয়ে যায়: তাজিন আহমেদ

Send
বিনোদন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ১৭:৪৭, মে ২২, ২০১৮ | সর্বশেষ আপডেট : ১৯:৫৯, মে ২২, ২০১৮

তাজিন আহমেদসামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে সর্বশেষ তার অনুভূতির কথা লিখেছিলেন। সেখানে বলেছিলেন, ‘ভালো লাগা মুহূর্তগুলো সবসময় স্মৃতি হয়ে যায়’। এমন কথা লেখার ১২ ঘণ্টার মাথায় তিনি আজ (২২ মে) নিজেই স্মৃতির খাতায় নাম লেখালেন।
নিয়মিত অভিনয় করেননি তাজিন আহমেদ। কিন্তু দর্শকের বিপুল ভালোবাসা পেয়েছিলেন। অনেক দর্শকের ভালো লাগার এ প্রিয় অভিনেত্রী এখন নিজেই স্মৃতি। হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে তিনি চলে গেছেন না ফেরার দেশে।
গেল ১৭ মার্চ একটি নাটকের শুটিংয়ে সহশিল্পীদের সঙ্গে সেলফি১৯৭৫ সালের ৩০ জুলাই নোয়াখালী জেলায় জন্ম নেওয়া এই অভিনেত্রীর শুরুটা হয় টিভি নাটক দিয়ে। ১৯৯৬ সালে বিটিভিতে প্রচার হওয়া এই নাটকের নাম ‘শেষ দেখা শেষ নয়’। তারও আগে ১৯৯১ সালে বিটিভির ‘চেতনা’ নামের অনুষ্ঠানের মাধ্যমে উপস্থাপনা শুরু করেন। কিন্তু টিভি নাটকই তাকে সর্বাধিক জনপ্রিয়তা ও প্রশংসা এনে দেয়।
তার অভিনীত বিটিভির ‘আঁধারে ধবল দৃপ্তি’ এখনও মানুষকে স্মৃতিতাড়িত করে।
তাজিন আহমেদ ১৯৯৭ সালে ‘থিয়েটার আরামবাগ’ দিয়ে মঞ্চনাটক শুরু করেন। এরপর ‘নাট্যজন’ থিয়েটারের হয়ে বেশ কিছু নাটকে অভিনয় করেন। পরবর্তী সময়ে আরণ্যক নাট্যদলের ‘ময়ূর সিংহাসন’ নাটকে অভিনয় করেছিলেন লম্বা সময়। এতে তিনি বলাকা চরিত্রে অভিনয় করেন। তার সর্বশেষ অভিনীত মঞ্চনাটক এটি।
হুমায়ূন আহমেদের নাটক ‌‌‘নীলচুড়ি’তে অভিনয় করেও বেশ আলোচিত হন। তার সর্বশেষ অভিনীতি ধারাবাহিক নাটক ‘বিদেশি পাড়া’। তবে দীর্ঘদিন ধরে তিনি মিডিয়া থেকে দূরে ছিলেন।
‘হে বন্ধু হে প্রিয়’ অনুষ্ঠান:

অভিনয়ের বাইরে লেখালেখির কাজেও যুক্ত ছিলেন তাজিন। লিখেছেন একাধিক নাটক। আর নিয়মিত মিডিয়ায় সময় দিতে না পারলেও উপস্থাপনায় ছিলেন বেশ দাপুটে। এনটিভিতে প্রচারিত ‌‘টিফিনের ফাঁকে’ অনুষ্ঠান টানা ১০ বছর উপস্থাপনা করেন তিনি। একাত্তর টিভিতেও ‘একাত্তর সকাল’ অনুষ্ঠানটি উপস্থাপনা করতেন তিনি।
তাজিন আহমেদের জন্ম নোয়াখালীতে আর বেড়ে উঠেছেন পুরান ঢাকায়। পড়াশোনা করেছেন ঢাকা ইডেন মহিলা কলেজে। ম্যানেজমেন্টে স্নাতকোত্তর করেছেন এই অভিনেত্রী।
নাট্যাঙ্গনে কাজ করার পাশাপাশি বেশ কয়েক বছর সাংবাদিকতায় যুক্ত ছিলেন। ভোরের কাগজ ও প্রথম আলোতে সাংবাদিক হিসেবে কাজ করেছেন।
স্বামী রুমি রহমানের সঙ্গে তাজিন আহমেদএছাড়াও সম্প্রতি তিনি ববি হাজ্জাজের জাতীয়তাবাদী গণতান্ত্রিক আন্দোলন (এনডিএম)-এর সংস্কৃতি বিষয়ক বিভাগীয় সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পালন করছিলেন।
ব্যক্তিজীবনে তিনি প্রথমে ঘর বাঁধেন নির্মাতা এজাজ মুন্নার সঙ্গে। কয়েক বছরের ব্যবধানে তাদের বিচ্ছেদ হয়। এরপর বিয়েবন্ধনে আবদ্ধ হন ড্রামার রুমি রহমানের সঙ্গে।
‘চাচা ইভেন্ট কোম্পানি’ নাটক:
 

/এম/এমএম/চেক-এমওএফ/

লাইভ

টপ