দর্শক জরিপে স্বর্ণযুগের সেরা ১০টি বাংলা গান

Send
বিনোদন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ২০:৩৯, নভেম্বর ০৯, ২০১৮ | সর্বশেষ আপডেট : ২০:৪৭, নভেম্বর ০৯, ২০১৮

অনুষ্ঠানের চূড়ান্ত পর্বে গাইছেন আতিক হাসান, অতিথি হিসেবে ছিলেন নায়ক ফারুক ও সংগীত পরিচালক আলম খান১৯৪০ থেকে ৭০ দশক সময়কাল বাংলা নাগরিক গানের স্বর্ণযুগ। এই স্বর্ণযুগের বাছাই করা কিছু গান সঠিক তথ্য ও অবিকৃত সুরে নবীন-প্রবীণ উভয় প্রজন্মের কাছে নতুন করে উপস্থাপন এবং স্বর্ণযুগের সেরা ১০টি গান বাছাইয়ের উদ্যোগ নিয়েছে বেসরকারি টিভি চ্যানেল আরটিভি।
‘দর্শক জরিপে স্বর্ণযুগের সেরা বাংলা নাগরিক গানের সন্ধানে’ শীর্ষক এই বিশেষ অনুষ্ঠানটির নাম ‘এই রাত তোমার আমার’।
অনুষ্ঠানটির প্রথম পর্বে ৪০ দশকের ৪০টি, ৫০ দশকের ৬০টি, ৬০ ও ৭০ দশকের ১০০টি করে মোট ৩০০টি গান প্রচারিত হয় বিভিন্ন শিল্পীর কণ্ঠে। এরপর ২য় পর্বে দর্শকদের এসএমএস থেকে প্রাপ্ত প্রতিটি দশকের ১০টি করে মোট ৪০টি গান প্রচারিত হয়। এরপর গত ২৭ অক্টোবর আরটিভির বেঙ্গল মাল্টিমিডিয়া স্টুডিওতে আয়োজন করা হয় স্বর্ণযুগের সেরা ১০টি গান নিয়ে গ্র্যান্ড ফিনালে।
এতে সংগীত পরিবেশন করেন শিল্পী ফাহিম হোসেন চৌধুরী, খায়রুল আনাম শাকিল, মৌটুসী, আতিক হাসান, প্রিয়াংকা গোপ, সাব্বির জামান, সমরজিৎ রায়, নন্দিতা, হৈমন্তী রক্ষিত ও বিজন চন্দ্র মিস্ত্রী।
দর্শকদের এসএমএস এর ভিত্তিতে চূড়ান্তভাবে যে ১০টি গান নির্বাচিত হয়। তালিকাটি যথাক্রমে এমন-
১. ওরে নীল দরিয়া (গীতিকার: মুকুল চৌধুরী, সুরকার: আলম খান, প্রথম শিল্পী: আব্দুল জব্বার)।
২. একি সোনার আলোয় (গীতিকার: খান আতাউর রহমান, সুরকার: খান আতাউর রহমান, প্রথম শিল্পী: সাবিনা ইয়াসমিন)।
৩. আমার স্বপ্নে দেখা রাজকন্যা (গীতিকার: গৌরীপ্রসন্ন মজুমদার, সুরকার: রবীন চট্টোপাধ্যায়, প্রথম শিল্পী: শ্যামল মিত্র)।
৪. দুঃখ আমার বাসর রাতের পালংক (গীতিকার: মোহাম্মদ রফিকুজ্জামান, সুরকার: সত্য সাহা, প্রথম শিল্পী: সাবিনা ইয়াসমিন)।
৫. আমি বনফুল গো (গীতিকার: প্রণব রায়, সুরকার: কমল দাশগুপ্ত, প্রথম শিল্পী: কানন দেবী)।
৬. কতদিন দেখিনি তোমায় (গীতিকার: প্রণব রায়, সুরকার: কমল দাশগুপ্ত, প্রথম শিল্পী: কমল দাশগুপ্ত)।
৭. তোমারে লেগেছে এত যে ভাল (গীতিকার: কে জি মোস্তফা, সুরকার: রবীন ঘোষ, প্রথম শিল্পী: তালাত মাহমুদ)।
৮. এনেছি আমার শত জনমের প্রেম (গীতিকার: মোহিনী চৌধুরী, সুরকার: শৈলেশ দত্তগুপ্ত, প্রথম শিল্পী: গৌরীকেদার ভট্টাচার্য)।
৯. মধুমালতি ডাকে আয় (গীতিকার: প্রণব রায়, সুরকার: রবীন চট্টোপাধ্যায়, প্রথম শিল্পী: সন্ধ্যা মুখোপাধ্যায়)।
১০. মুছে যাওয়া দিনগুলি (গীতিকার: গৌরীপ্রসন্ন মজুমদার, সুরকার: হেমন্ত মুখোপাধ্যায়, প্রথম শিল্পী: হেমন্ত মুখোপাধ্যায়)।
এই অনুষ্ঠানে আমন্ত্রিত অতিথিদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন দেশের সংগীত ও চলচ্চিত্র মাধ্যমের স্বনামধন্য ব্যক্তিবর্গ যাদের মধ্যে অন্যতম চিত্রনায়ক ফারুক, সংগীত ব্যক্তিত্ব আজাদ রহমান, আলম খান, শেখ সাদী খান, গীতিকার কেজি মোস্তফা, গাজী মাজহারুল আনোয়ার, সংগীতশিল্পী মিতালী মুখার্জী, ফাতেমা তুজ জোহরা, সাদিয়া আফরিন মল্লিক প্রমুখ।
উৎসবমুখর পরিবেশে অনুষ্ঠিত এই গ্র্যান্ড ফিনালেতে সবাইকে স্বাগত জানিয়ে বক্তব্য রাখেন আরটিভির সিইও সৈয়দ আশিক রহমান। এছাড়া সর্বোচ্চ এসএমএস প্রেরণকারীদের মধ্য থেকে তিনজনকে পুরস্কৃত করা হয়। ধারণকৃত অনুষ্ঠানটি গত ৩০ অক্টোবর আরটিভিতে প্রচারিত হয়।

/এমএম/

লাইভ

টপ