টানা তিন দিন গ্র্যান্ড ফিনালে!

Send
বিনোদন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ১৪:৫৫, ফেব্রুয়ারি ০৬, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ১৬:৫৮, ফেব্রুয়ারি ০৬, ২০১৯

ফাইনালে কলকাতার তিথির কাউন্টারে নেচে ঢাকার ভাবনা কি টিকে থাকতে পারেবন?নাগরিক টিভির আয়োজনে দুই বাংলার তারকাদের নিয়ে নাচের প্রতিযোগিতা ‘বাজলো ঝুমুর তারার নূপুর’-এর দরজায় কড়া নাড়ছে গ্র্যান্ড ফিনালে। প্রতিযোগিতা মানেই তো হারজিত। আর সেটি যদি হয় তারায় তারায়, তবে তো চিন্তার মাত্রাটা একটু বেশিই থাকে। তার ওপর অনুষ্ঠানটির চূড়ান্ত আসর হচ্ছে টানা তিন দিন ধরে!
ফাইনালের জন্যই কি কলকাতার লাভলী এই নাচ তুলে রেখেছিলেন!এদিকে উদ্বেগ, উৎকণ্ঠা আর তুমুল লড়াইয়ে নাগরিক টিভি’র পর্দায় ‘বাজলো ঝুমুর তারার নূপুর’-এর ৬৬টি পর্ব এরইমধ্যে সম্প্রচার হয়েছে। এতে অংশ নিয়েছেন দুই বাংলার জনপ্রিয় টিভি ও চলচ্চিত্র অভিনেত্রীরা। বাংলাদেশ থেকে যোগ দিয়েছেন টিভি অভিনেত্রী ঈশানা, ভাবনা, জান্নাতুল ফেরদৌস পিয়া, স্পর্শিয়া, অমৃতা ও সাফা কবির। আর কলকাতা থেকে রিমঝিম, সোহিনী, এনা সাহা, লাভলী, তিথি ও প্রীতি।
ফাইনালের প্রথম পর্বে ইলিয়াস কাঞ্চন ও শতাব্দী রায় নিজেদের মধ্যেই বিতর্কে জড়িয়ে গেলেন!নাগরিক টিভির অনুষ্ঠান বিভাগের প্রধান কামরুজ্জামান বাবু জানান, জনপ্রিয় এই অনুষ্ঠানটির গ্র্যান্ড ফিনালে সাজানো হয়েছে তিনটি বিশেষ পর্বে। প্রচার হবে টানা তিন দিন। এর প্রথম পর্বটি প্রচার হবে আজ (৬ ফেব্রুয়ারি) রাত ১০টায়। কাল, বৃহস্পতিবার একই সময়ে থাকবে এর দ্বিতীয় অংশ। আর শুক্রবার রাত ১০টায় থাকছে পুরো আয়োজনের চূড়ান্ত ফলাফল! এদিন রাতেই জানা যাবে কোন দল বিজয়ী হচ্ছে, কিংবা সেরা পারফরমারইবা কারা হচ্ছেন, সেটি।
ফাইনালের প্রথম পর্বে তিন বিচারক তৌকীর, ইলিয়াস কাঞ্চন ও শতাব্দীকামরুজ্জামান বাবু বলেন, ‘প্রচার হওয়া ৬৬টি পর্বে আমরা দেখেছি দুই বাংলার ৩০ জন তারকা অংশ নিয়ে নাচের এই মঞ্চকে কীভাবে লড়াইয়ের মঞ্চে পরিণত করেছেন। কীভাবে নিজেরা এক একটি কঠিন নাচ তুলে ধরেছেন। অনেকেই নাচতে গিয়ে নাচও ভুলে গেছেন! কেউ কেউ নতুন করে সুযোগ চেয়েছেন। কিন্তু বিচারকরা তাদের সিদ্ধান্তে অটল ছিলেন। আর ফাইনাল পর্বগুলোর সূচনার দিকে থাকবে স্কোর ভিত্তিতে কোন দল কোন পর্যায়ে আছে, সেই বিষয়টি।’
সাফা কবিরের জন্য গ্র্যান্ড ফিনালেতে অগ্নিপরীক্ষা!জানা গেছে, গ্র্যান্ড ফিনালের তিনটি পর্বে বাংলাদেশ থেকে অতিথি বিচারক হিসেবে থাকছেন নির্মাতা-অভিনেতা তৌকীর আহমেদ, অপরদিকে কলকাতা থেকে অভিনেত্রী শ্রীলেখা মিত্র। এছাড়া বিভিন্ন অংশে কথা বলবেন নাগরিক টিভি’র প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা আব্দুন নূর তুষারসহ যাদের পৃষ্ঠপোষকতায় এই শোটি করা সম্ভব হয়েছে, সেসব প্রতিষ্ঠানের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা।
এই আয়োজনের প্রতিটি পর্বে প্রধান বিচারক হিসেবে বাংলাদেশের নায়ক ইলিয়াস কাঞ্চন এবং কলকাতার নায়িকা শতাব্দী রায় যুক্ত আছেন শুরু থেকে। অনুষ্ঠানটি যৌথভাবে উপস্থাপনা করছেন কলকাতার সৌরভ এবং বাংলাদেশের মাসুমা রহমান নাবিলা। রিমঝিম কি ফাইনালে কলকাতাকে হাসাতে পারবেন?‘বাজলো ঝুমুর তারার নূপুর’ নাগরিক টিভিতে গত বছরের অক্টোবর মাস থেকে নিয়মিত সম্প্রচার হয়ে আসছে।

/এমএম/এমওএফ/

লাইভ

টপ