লাইভ শো নাগরিক টিভিতে, শিল্পী বগুড়ায়!

Send
সুধাময় সরকার
প্রকাশিত : ১৫:০০, জুন ০৯, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ১৬:১১, জুন ০৯, ২০১৯

মাহতিম সাকিবআজ (৯ জুন) রাত ১১টায় নাগরিক টিভিতে লাইভ শো চূড়ান্ত আছে সময়ের অন্যতম তরুণ তারকা মাহতিম সাকিবের। ঈদের বিশেষ আয়োজন বলে এতে মাহতিম ছাড়াও অংশ নেওয়ার প্রস্তুতি রয়েছে ইমরান হোসাইনের। কক্সবাজার সৈকতের এক শিশুর কণ্ঠে ‘মধু হই হই বিষ খাওয়াইলা’ গানটি তুলে এনে যিনি প্রচুর প্রশংসা কুড়িয়েছেন।  
বিস্ময়কর তথ্য হলো, নাগরিক টিভির বিশেষ এই ঈদ আয়োজনের সকল প্রস্তুতি শেষ হলেও এ প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত (৯ জুন, বেলা আড়াইটা) মাহতিম অবস্থান করছেন দূর বগুড়ায়! ফ্লাইট ধরে সন্ধ্যা নাগাদ উড়ে আসবেন, সেটিও তো সম্ভব নয়। অবশ্য তেমন কোনও ইচ্ছাও নেই মাহতিমের! বাংলা ট্রিবিউনকে তিনি ভাবলেশহীন কণ্ঠে বললেন, ‘এখানে (বগুড়া) বড় একটা শো আছে আমার। আজ (৯ জুন) সন্ধ্যায়। এর জন্য আগেই চলে এসেছি। এই শোটা করতেই হচ্ছে আমাকে।’
তাহলে নাগরিক টিভিতে আজ (৯ জুন) রাত ১১টার লাইভ শোয়ের কী হবে! মাহতিম বললেন, ‘এটা আসলে মিস কমিউনিকেশন হয়েছে আমাদের। সে জন্য নাগরিকের শোতে অংশ নিতে পারছি না।’
নাগরিক টিভির অনুষ্ঠান প্রধান কামরুজ্জামান বাবু বলেন, ‘মাহতিম সাকিব এক মাস আগে ইমরানসহ নাগরিকের এই ঈদ অনুষ্ঠানে অংশ নিতে দিনক্ষণ ও টাকা-পয়সা চূড়ান্ত করেছেন। অথচ একদিন আগে (৮ জুন) রাত ১টার সময় জানান, বগুড়ায় একটি শো তিনি হাতে নিয়েছেন। তাই আমাদের শো করতে পারছেন না!’   
জানা গেছে, এক মাস ধরে নাগরিক টিভির পর্দায় প্রচারণা চলেছে, ঈদের পঞ্চম দিন (৯ জুন) মাহতিম শাকিব ও ইমরান হোসেন যৌথভাবে সরাসরি ‘গানের মেলা’ অনুষ্ঠানে অংশ নেবেন। বিভিন্ন গণমাধ্যমে সংবাদও প্রকাশ হয়েছে। কিন্তু শোয়ের ঠিক একদিন আগে ৮ জুন মাহতিম নাগরিক টিভিকে জানিয়েছেন, একই দিন বগুড়ার একটি শো তিনি হাতে নিয়েছেন এবং সেখানে অনেক টাকায় শোটি পেয়েছেন।
এমনটা কেন ঘটলো? কারণ, আজকাল এমন অভিযোগ তো সিনিয়র শিল্পীদের ক্ষেত্রেও খুব একটা শোনা যায় না। তার ওপর অনুষ্ঠানটি একটি জনপ্রিয় টিভি চ্যানেলের পূর্ব নির্ধারিত। জবাবে মাহতিম বগুড়া থেকে বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘এটা আসলে বড় কোনও জটিলতা নয়। ভুল বোঝাবুঝি। উনাদের সঙ্গে আমি কোনও চুক্তি স্বাক্ষর করিনি। কোনও অ্যাডভান্সও নেইনি। ফলে এটাকে বড় করে দেখার সুযোগ নেই। এটা ঠিক শোটি করার কথা হয়েছে। আমিও সম্মতি জানিয়েছি। তবে আমি জানতাম অনুষ্ঠানটি হবে ঈদের ৬ষ্ঠ দিন (১০ জুন)। কিন্তু আগের দিন জানতে পারি ৫ম দিন। এটাই হলো সমস্যা।’
কিন্তু বগুড়ার শো আপনি কবে নাগাদ চূড়ান্ত করেছেন? মাহতিম বলেন, ‘আসলে বগুড়া আর নাগরিক- দুটো শোয়ের বিষয়েই কথা হয়েছে একেবারে কাছাকাছি সময়ে। আমি ভেবেছিলাম একদিন আগে পরে হবে। আবার এটাও ঠিক, আমি বগুড়ার শো থেকে অ্যাডভান্স নিয়েছি, চুক্তি করেছি। বড় শো। অন্যদিকে নাগরিকের সঙ্গে এমন কিছুই করিনি। এখানে আমার দোষের কিছু দেখি না।’
মাহতিম সাকিবের এমন কাণ্ডে ক্ষুব্ধ নাগরিক কর্তৃপক্ষ। প্রতিষ্ঠানটির পক্ষ থেকে অনুষ্ঠান প্রধান কামরুজ্জামান বাবু বলেন, ‘যে মানুষ মাত্র গান শুরু করেছেন, শুরুতেই যদি এভাবে বেশি টাকার কারণে একটি শিডিউলড টিভি শো ফাঁসিয়ে দেয়, তবে তার কাছে ভবিষ্যতে আমরা আর কী আশা করতে পারি! তিনি আমাদের সঙ্গে চূড়ান্ত অপেশাদারি আচরণ করলেন।’
এদিকে মাহতিমের কারণে ইমরান হোসাইনেরও সকল প্রস্তুতি ভেস্তে গেল। কারণ, অনুষ্ঠানের প্রস্তুতিটাই ছিল মাহতিম ও ইমরানকে ঘিরে।
সম্প্রতি আরেক তরুণ জনপ্রিয় শিল্পী আরমান আলিফের বিরুদ্ধেও শিডিউল ফাঁসানোর অভিযোগ উঠেছিল। বেসরকারি টিভি চ্যানেল বাংলা ভিশনের একটি সরাসরি অনুষ্ঠানে অংশ নেওয়ার কথা থাকলেও শেষ মুহূর্তে আসেননি। অনেকেই বলছেন নতুন প্রজন্মের শিল্পীদের মধ্যে এখনও পেশাদারিত্ব মনোভাব তৈরি হয়নি। অর্থটাকেই তারা মুখ্য ভেবে ভুল করছেন নিয়মিত।
বলে রাখা দরকার, আরমান আলিফ, মাহতিম সাকিব ও ইমরান হোসাইন—তিনজনই জনপ্রিয়তা পেয়েছেন ইউটিউবের দৌলতে।

/এমএম/এমওএফ/

লাইভ

টপ