বিশ্ব সংগীত দিবস ১০ ভাষায় সরাসরি গাইবেন ৪৫ জন শিল্পী

Send
সুধাময় সরকার
প্রকাশিত : ১৫:১১, জুন ১৯, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ১৯:১২, জুন ১৯, ২০১৯

গান রিহার্সেলের ফাঁকে শিল্পীদের সেলফিএবারই প্রথম এমন উদ্যোগ। এবারই প্রথম এত বড় আয়োজন। এবারই প্রথম একমঞ্চে হবে ১০ ভাষায় গান!
২১ জুন ‘বিশ্ব সংগীত দিবস’ উপলক্ষে বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির উদ্যোগে থাকছে এই অনেক ‘প্রথম’-এর সমাহার। ‘সুরের আগুন ছড়িয়ে দেবো সব প্রাণে’—এই স্লোগানকে সামনে রেখে দেশের ৪৫ জন শিল্পী কণ্ঠে তুলবেন ১০টি ভাষার গান!
এমন বৈচিত্র্যপূর্ণ আয়োজনের উদ্যোগ নিয়েছেন শিল্পকলা একাডেমির মহাপরিচালক লিয়াকত আলী লাকী। আর পুরো কাজটির তত্ত্বাবধানে আছেন কণ্ঠশিল্পী দিনাত জাহান মুন্নী।

তিনি জানান, দুদিন ধরে শতাধিক শিল্পী ও মিউজিশিয়ানের সমন্বয়ে চলছে বিরামহীন রিহার্সেল ও র‌্যালির প্রস্তুতি। ২১ জুন বিকালের এই আয়োজনে দেশের প্রায় সকল শিল্পীর উপস্থিতির বিষয়টিও নিশ্চিত করা হচ্ছে।
চলছে গান রিহার্সেল- ইমরান, কণা, লিজা ও মুহিনজানা গেছে, এবারই প্রথম বিশ্ব সংগীত দিবস উপলক্ষে এত বড় আয়োজন হচ্ছে। যেখানে বাংলা ছাড়াও গাওয়া হবে হিন্দি, উর্দু, ইংরেজি, স্প্যানিশ, জাপানিজ, চাইনিজ, নেপালি, অ্যারাবিয়ান ও রাশান ভাষার বিখ্যাত গান।
শিল্পকলা একাডেমির জাতীয় চিত্রশালা অডিটোরিয়ামে এদিন বিকাল ৫টা থেকে শুরু হবে বৈচিত্র্যপূর্ণ এই গানের আসর। পরিবেশনার শুরু ও শেষ হবে দুটি দেশাত্মবোধক বাংলা গান দিয়ে। শুরুতে সমবেত কণ্ঠে থাকছে ‘আমারও দেশেরও মাটিরও গন্ধে’ গানটি। এতে কণ্ঠ দেবেন রাজীব, ইউসুফ, প্রিয়াঙ্কা গোপ, অনুপমা মুক্তি ও রাশেদ। আর সমাপনী গান হিসেবে থাকছে ‘ধন ধান্য পুষ্প ভরা’। এটি গাইবেন বাদশা বুলবুল, ডলি সায়ন্তনী, মৌটুসি, প্রিয়াঙ্কা বিশ্বাস, সবুজ, শরীফ, সুস্মিতা ও সুমি মির্জা।

অনুষ্ঠানের ভিনভাষী গানগুলো মধ্যে চাইনিজ ভাষায় গাইবেন দিনাত জাহান মুন্নী, প্রতীক হাসান ও পুতুল। ইংরেজি গাইবেন সাব্বির, আরমিন মূসা, জয় শাহরিয়ার ও আর্নিক। স্প্যানিশ গাইবেন আলিফ আলাউদ্দিন, সুজন আরিফ, মেহরাব ও ফারশিদ।
গান রিহার্সেলের ফাঁকে শিল্পীদের সেলফিএদিকে উর্দুতে গাইবেন পুলক, পারভেজ, সিঁথি সাহা ও বেলি আফরোজ। অ্যারাবিয়ান গান কণ্ঠে তুলবেন কোনাল, রাফাত ও হৈমন্তী। অন্যদিকে নেপালি ভাষায় লুইপা, সজীব ও পিংকি ছেত্রি। রাশান ভাষার গানটি গাইবেন রন্টি, শুভ ও স্মরণ।
হিন্দি গান ‘কাভি কাভি মেরে দিল মে’ গাইবেন কণা, মুহিন, ইমরান ও লিজা। আর জাপানিজ ভাষায় পরিবেশন করবেন ইবরার টিপু, শান ও বিন্দু কণা।
পুরো আয়োজনটি প্রসঙ্গে দিনাত জাহান মুন্নী বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘শিল্পকলার মহাপরিচালক লাকী ভাই কয়েকদিন আগে ডেকে বললেন বিশ্ব সংগীত দিবস পালনের একটা প্ল্যান করার জন্য। সঙ্গে সঙ্গেই আমি এই বিষয়টি শেয়ার করলাম। যেহেতু দিনটি বিশ্ব সংগীতের, সেহেতু বিশ্বের উল্লেখযোগ্য ভাষায় আমরা এই দিনটিতে সবাই মিলে গাইতে পারি। লাকী ভাই এক কথাতেই সম্মত হলেন। বললেন, এটি সফল করার জন্য সব রকম সাপোর্ট তিনি আমাদের দেবেন। এরপর আমিও বিষয়টি সবার সঙ্গে শেয়ার করলাম। বিস্ময়ের বিষয়, প্রায় সবাই বিনাবাক্যে রাজি হলেন। মুহূর্তের মধ্যে আমরা একসঙ্গে বসলাম। সিদ্ধান্ত নিলাম। গান বাছাই করে প্র্যাকটিস শুরু করে দিলাম। আমার কাছে মনে হয় এটা একটা ইতিহাস।’  
চলছে রিহার্সেল- জয়, আরমিন মূসা, সাব্বির ও আর্নিকএদিকে বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমি সূত্রে জানা গেছে, ২১ জুন বেলা ৪টার দিকে দেশের সর্বস্তরের সংগীতশিল্পীদের নিয়ে একাডেমি প্রাঙ্গণে হবে একটি র‌্যালি। যেখানে একাডেমির মহাপরিচালক ছাড়াও প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী কে এম খালিদ এমপি।
আর বিকাল ৫টা থেকে জাতীয় চিত্রশালার মঞ্চে হবে মূল সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান।  
পুরো আয়োজনটির সঙ্গে সরাসরি জড়িত অন্যতম সদস্য সংগীতশিল্পী সাব্বির বলেন, ‌‘‘এখানে আমি গাইছি ইংরেজি বিখ্যাত গান ‘সামার ওয়াইন’। সঙ্গে আরমিন মূসা, জয় ও আর্নিক আছেন। এটি আমাদের জন্য সহজ গান। কিন্তু চাইনিজ, জাপানিজ বা স্প্যানিশ গান যারা করছেন, তাদের জন্য গানগুলো তোলা অনেক কষ্টের বিষয়। তবুও আমরা সবাই মিলে গানগুলো তুলছি। নিজেদের সর্বোচ্চটা দেওয়ার চেষ্টা করছি। কারণ, বিশ্ব সংগীত দিবস। দিনটি তো আমাদেরই। তাছাড়া, এই দিনটিকে কেন্দ্র করে এমন একটি মিলনমেলা হবে—সেটা তো আগে আমরা দেখিনি, পাওয়া তো দূরের কথা। এর জন্য আমি কৃতজ্ঞতা জানাই শিল্পকলা একাডেমি এবং মুন্নী ভাবির প্রতি। তাদের কারণেই, এত বড় কাজটি হতে যাচ্ছে।’’
জানা গেছে, এ দিনের পুরো আয়োজনটি থাকছে সবার জন্য উন্মুক্ত।গান রিহার্সেলের ফাঁকে শিল্পীদের সেলফি

/এমএম/এমওএফ/

লাইভ

টপ