না ফেরার দেশে শিল্পী শান্তনু বিশ্বাস

Send
বিনোদন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ১৫:৩৫, জুলাই ১৩, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ১৭:৩৪, জুলাই ১৩, ২০১৯

শান্তনু বিশ্বাসচট্টগ্রামকেন্দ্রিক প্রশংসিত সংগীতশিল্পী ও নাট্যজন শান্তনু বিশ্বাস আর নেই। শুক্রবার (১২ জুলাই) বিকালে রাজধানীর ইউনাইটেড হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল প্রায় ৬৯ বছর।
পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, ৯ জুলাই অসুস্থ হওয়ার পর তাকে চট্টগ্রামের একটি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। অবস্থার অবনতি হওয়ায় ১১ জুলাই ঢাকায় আনা হয় শান্তনু বিশ্বাসকে। কিন্তু শেষ রক্ষা হলো না। ফিরে গেলেন না ফেরার দেশে।
শান্তনু বিশ্বাস ইস্পাহানি গ্রুপের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা হিসেবে কর্মরত ছিলেন। পাশাপাশি সংগীত ও মঞ্চনাটকের জন্য ছিলেন নিবেদিত প্রাণ।
জানা গেছে, গতকাল (শুক্রবার) রাতেই মরদেহ নিয়ে যাওয়া হয় চট্টগ্রামে। আজ (১৩ জুলাই) বেলা ১১টায় সর্বস্তরের জনগণের শ্রদ্ধা নিবেদনের জন্য চট্টগ্রাম শহীদ মিনার চত্বরে তার মরদেহ নেওয়া হয়।
১৯৭৬ সালের দিকে চট্টগ্রামে শান্তনু বিশ্বাস গড়ে তোলেন অঙ্গন থিয়েটার। ‘কালো  গোলাপের দেশ’ তার লেখা প্রথম নাটক। মঞ্চেও দেখা গেছে শুরু থেকে। ‘অঙ্গন’ ও ‘গণায়ন’ নামের দুটি মঞ্চনাটকে অভিনয় করে তিনি ওই সময়ে বেশ প্রশংসা কুড়িয়েছেন। এরপর ‘নবজন্ম’ ও ‘ইনফরমার’ নাটকেও পাওয়া গেছে নানা রূপে।
কালপুরুষ নাট্য সম্প্রদায়ের উপদেষ্টা শান্তনু বিশ্বাস নিজের রচনা, নির্দেশনা ও অভিনয় নিয়ে সর্বশেষ মঞ্চে ওঠেন ২৮ জুন।

নাটকের মতো গানেও তিনি সমান সৃষ্টিশীল ছিলেন। ২০০৭ সালে শান্তনু বিশ্বাসের কথা ও সুরে এটিএন মিউজিক থেকে একটি সংকলন বের হয়, যেটিতে কণ্ঠ দেন সুবীর নন্দী ও কলকাতার ইন্দ্রাণী সেন। ২০০৮ সালে ইমপ্রেস অডিও ভিশন থেকে তার লেখা ও সুরে শিল্পী অরুনিমা ইসলাম ও নিজের গাওয়া যৌথ সংকলন বের হয়। ২০০৯ সালে অগ্নিবীণা থেকে প্রকাশ হয় শান্তনু ও বাপ্পা মজুমদারের যৌথ অ্যালবাম। এর বাইরে নিজের ইউটিউব চ্যানেলেও নিয়মিত গান প্রকাশ করতেন শান্তনু।

/এমএম/

লাইভ

টপ