‘সাপলুডু’ আক্ষেপ ও অ্যাডভেঞ্চারের খেলা: আরিফিন শুভ

Send
ওয়ালিউল বিশ্বাস
প্রকাশিত : ১৯:৫৮, সেপ্টেম্বর ২৭, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ১৪:০৯, সেপ্টেম্বর ২৮, ২০১৯

বাংলা ট্রিবিউন দফতরে আরিফিন শুভমুক্তি পেয়েছে গোলাম সোহরাব দোদুলের প্রথম চলচ্চিত্র ‘সাপলুডু’। যেখানে প্রধান খেলোয়াড় হিসেবে আছেন চিত্রনায়ক আরিফিন শুভ। সঙ্গে আছেন মিম। মুক্তির প্রথম দিনেই (২৭ সেপ্টেম্বর) দুজনকে ঘিরে দর্শকদের উচ্ছ্বাস চোখে লাগার মতো। চলচ্চিত্রটি নিয়ে বাংলা ট্রিবিউনের সঙ্গে বসেছিলেন শুভ। আলোচনার সেই অংশগুলো দিয়ে সাজানো হয়েছে এই সাক্ষাৎকার-
বাংলা ট্রিবিউন: ফেসবুকে লিখেছেন, ক্যাসিনো নয়, অনলি সাপলুডু!
আরিফিন শুভ: আসলে আমাদের এখন সুষ্ঠু বিনোদন দরকার। ‘সাপলুডু’ এমন একটি চলচ্চিত্র যা দেখে মানুষ বিনোদিত হবে। মনে হবে আমাদের আশেপাশের কোনও চেনা ঘটনা। মানুষ হলে গিয়ে বিনোদিত হোক। সাপলুডু দেখুক- এটাই চাই।
বাংলা ট্রিবিউন: সাপলুডু খেলেছেন কখনও?
আরিফিন শুভ: বহুবার। সাপলুডু খেলেছেন, কিন্তু সাপে কাটেনি এমন ঘটনা আমার মনে হয় মানুষের জীবনে নাই। এটা একটা আক্ষেপ ও অ্যাডভেঞ্চারের খেলা।
বাংলা ট্রিবিউন: ছবির নাম ‘সাপলুডু’ রাখার কারণ কী?
আরিফিন শুভ: কখন কোন ক্যারেকটার সাপের মুখে পড়বে তা কেউ-ই জানেন না। এই যে থ্রিলিং একটা ভাব, এটা ছবিতে পাওয়া যাবে। সাপের মুখে বাঁচা-মরার লড়াই দেখা যাবে এতে। আমাদের আশে পাশে ঘটে যাওয়া গল্প এটি।
আরিফিন শুভবাংলা ট্রিবিউন: আপনার চরিত্রটাতে মধ্যবিত্ত যুবকের একটা ছাপ আছে। লড়াকু এক যুবক। আবার লুকেই দেখলাম বৈচিত্র্য। কখনও নরমাল চুল, কখনও ব্যাক ব্রাশ করা...
আরিফিন শুভ: ব্যাক ব্রাশ করাটা অন্য লুক। এখানে দুইটা লুক আছে। কেন দুইটা লুক সেটা না বলি। এটা এ ছবির বড় রহস্য। আমার ধারণা ছবি দেখতে শুরু করলে দর্শকরা চমকে যাবেন।  
বাংলা ট্রিবিউন: জমজ চরিত্র আছে?
আরিফিন শুভ: সেটা নিশ্চিত করে বলতে চাই না। তবে চরিত্র দুটা আছে। পুরোটা জানতে হলে ছবিটি দেখতে হবে।
বাংলা ট্রিবিউন: তাহলে আপনার চরিত্রটা কী দাঁড়াচ্ছে?
আরিফিন শুভ: অনেস্ট এক পলিটিশিয়ান। রাজনীতিতে তো ছোট-বড় নেতা থাকে। আমি সেখানে ছোট নেতা কিন্তু সৎ। যে তার স্বপ্ন ও বাস্তবতার চোখ দিয়ে সব দেখে। রাজনীতিটা করে সে দেশকে ভালোবেসে। এখানে পলিটিক্স, চক্রান্ত আর প্রতিশোধ আছে।

বাংলা ট্রিবিউন: এ ছবির সবাই আপনার খুব কাছেরজন। বিদ্যা সিনহা মিম, গোলাম সোহরাব দোদুলসহ অনেকের সঙ্গে কাজের কারণে দীর্ঘদিনের পরিচয়। এ ছবিতে অভিজ্ঞতাটা কেমন?
আরিফিন শুভ: গোলাম সোহরাব দোদুল ভাই নিঃসন্দেহে ভালো একজন নির্মাতা। ছোটবেলা থেকেই তিনি শিশুশিল্পী হিসেবে কাজ করেছেন। টিভিতে অসংখ্য জনপ্রিয় নাটকের নির্মাতা তিনি। এতো বছর ধরে যিনি কাজ করছেন তিনি সিনেমা নির্মাণে আসলেন। সেটা অবশ্যই প্রস্তুত না হয়ে আসেননি। আর দোদুল ভাইয়ের টিভির কাজ যারা দেখেছেন তারা অবশ্যই তার সম্পর্কে জানেন। তার টিভি কাজ সর্ব মহলেই প্রশংসিত হয়েছে। তাই এখানে দোদুল ভাইয়ের সেরাটাই দেখা যাবে।
বাংলা ট্রিবিউন: আর বিদ্যা সিনহা মিম প্রসঙ্গে কী বলবেন?
আরিফিন শুভ: মিমের অভিনয় নিয়ে নতুন করে কিছু বলার নেই। সে আমাদের দেশের অন্যতম সেরা অভিনেত্রী। এ ছবিতেও মিমকে অসাধারণভাবে দেখা যাবে। আর ব্যক্তিগতভাবে আমরা খুব ভালো বন্ধু। তার সঙ্গে কাজ করা সব সময়ই ভালো লাগার।
বাংলা ট্রিবিউন: দীর্ঘদিন আমেরিকা থেকে এলেন। অভিনয়ের ওপর কোর্স করলেন। এখন কী ভাবছেন?
আরিফিন শুভ: আপাতত ‘সাপলুডু’ নিয়েই ভাবছি। আগস্টের শেষ সপ্তাহে দেশে এসেছি। প্রায় দেড় মাস আমেরিকা ছিলাম, তাই দেশে এসে একটু মানিয়ে নিতে হয়েছে। এরপর ‘সাপলুডু’ ছবির প্রচারণায় নেমেছি। মাঝে দু’একদিন ‘জ্যাম’ ছবির কাজ করা হয়েছে। তবে সেপ্টেম্বরের পুরো মাসজুড়ে ‘সাপলুডু’-এর জন্যই কাজ করছি। আজ (২৭ সেপ্টেম্বর) সকাল থেকে বিভিন্ন প্রেক্ষাগৃহ ও স্থানে দর্শকদের সঙ্গে ‘সাপলুডু’ খেলার মধ্যেই আছি। অসাধারণ রেসপন্স পাচ্ছি।বলাকা প্রেক্ষাগৃহের সামনে জনসমুদ্রে আরিফিন শুভ

/এমএম/

লাইভ

টপ