‘কেমন ছেলেকে জীবনসঙ্গী হিসেবে চান’- হালের এক নম্বর নায়িকা মাহিকে বহুবার এ প্রশ্নের সম্মুখীন হতে হয়েছে। উত্তরে মাহি বরাবরই বলেছেন, ‘কালো বর্ণ এবং দাঁত বাঁকা ছেলে আমার পছন্দ’! এতটুকু বললেও কখনও বলেননি প্রেমের কথা কিংবা প্রেমিকের নাম-ঠিকানা।

চলচ্চিত্র জগতের মানুষজন তার এ উত্তরটিকে পাগলামি হিসেবে দেখতেন। তবে আজ শনিবার থেকে বিষয়টিকে ‘পাগলামি’ হিসেবে দেখার সুযোগ নেই। কারণ মাহির সেই কাঙ্ক্ষিত ‘কালো বর্ণ এবং দাঁত বাঁকা ছেলেটি’র মোড়ক উন্মোচন হয়ে গেছে। মাহি নিজেই তার পছন্দের মানুষের ছবি প্রকাশ করেছেন ফেসবুকে। যদিও ছবির সঙ্গে স্পষ্ট করে কিছু লেখেননি। তবে যেটুকু লিখেছেন- তাতে তার কথা ও ছবি মিলে গেছে হুবহু।

মাহির ফেসবুক একাউন্টের শনিবারের প্রোফাইল ছবি

শুক্রবার রাত ৩টা ৫৯ মিনিটে মাহি একটি হাসিমুখের ‘ক্লোজ-আপ’ ছবি প্রকাশ করেন। যে ছবির ক্যাপশনে লেখেন, ‘দাঁতগুলো কিন্তু ব্যকা (বাঁকা) আছে’। এসময়ে একই মানুষের সঙ্গে তোলা ঘনিষ্ঠ সেলফি মাহি তার প্রোফাইল ছবি হিসেবে ব্যবহার করেন। আর এই দুই ছবি নিয়ে শেষ রাত থেকে এখনও অন্তর্জাল দুনিয়ায় চলছে হাজার জল্পনা-কল্পনা।

শাহরিয়ারের পক্ষ থেকে মাহির জন্মদিনের আগাম শুভেচ্ছা

ছবিটির ক্যাপশনে মাহি ছেলেটির নাম পরিচয় উল্লেখ  না করলেও বিভিন্ন সূত্রে জানা গেছে, ছেলেটির নাম শাওন শাহরিয়ার। তিনি স্টামফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াশোনা করেন। মাহির সঙ্গে তার পরিচয় প্রায় চার বছরের। তারা একে অপরকে ভালোবাসেন।

ছবিটি পোস্ট করে মাহি লিখেছেন, দাঁতগুলো কিন্তু ট্যারা আছে!

শাওন শাহরিয়ার ও মাহির ফেসবুক ওয়ালে ঘুরে দুজনের আরও বেশকিছু ঘনিষ্ঠ ছবি পাওয়া গেছে। দুজনের পরিচিত বন্ধুদের কমেন্ট থেকে স্পষ্ট হওয়া যায়- দীর্ঘ প্রেমের বিষয়টি। শাহরিয়ারের আইডি থেকে জন্মদিনের একটি  কার্ড পোস্ট করা হয় গত ২৫ অক্টোবর। কার্ডটিতে লেখা ছিল, ‘অগ্রিম জন্মদিনের শুভেচ্ছা আমার লাভলি বউ’। উল্লেখ্য, মাহির জন্মদিন ২৭ অক্টোবর।

কোনও এক ছাদে দুজনের সেলফি

মাহির বেশ কিছু ঘনিষ্ঠ সূত্র বলছে, তারা দুজনে এরমধ্যে বিয়েও করেছেন। আবার কিছু সূত্র বলছে, না বিয়ে নয়, তারা দুজন শুধুই প্রেম করছেন। তবে বিয়ে কিংবা প্রেম যাই হোক- তাদের মাঝে ভালোবাসার সম্পর্ক আছে, এটা কোনও সূত্রই অস্বীকার করেননি।

পারিবারিক আবহে দুজনে...

তবে শাওন শাহরিয়ার নামের মানুষটি তার বন্ধু, প্রেমিক নাকি স্বামী- এ ব্যাপারে মাহির কোনও স্পষ্ট বক্তব্য পাওয়া যায়নি। কারণ সকাল থেকে তিনি মুঠোফোনের কল ধরছেন না।

/জেডএ/এমএম/