Vision  ad on bangla Tribune

চলে গেলেন খোন্দকার নূরুল আলমশহীদ মিনারে শ্রদ্ধা, বুদ্ধিজীবী কবরস্থানে দাফন

বিনোদন রিপোর্ট০৭:২৮, জানুয়ারি ২৩, ২০১৬

খ্যাতিমান সুরস্রষ্টা ও কণ্ঠশিল্পী খোন্দকার নূরুল আলম আর নেই। শুক্রবার (২২ জানুয়ারি) দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে তিনি মৃত্যুবরণ করেছেন (ইন্নালিল্লাহ…রাজিউন)। তার বয়স হয়েছিলো প্রায় ৮০ বছর। স্বনামধন্য এ শিল্পীর মৃত্যুতে দেশীয় সংগীতাঙ্গনে নেমে এসেছে শোকের ছায়া।

খোন্দকার নূরুল আলমখোন্দকার নূরুল আলমের পারিবারিক বন্ধু বিশিষ্ট গীতিকবি মোহাম্মদ রফিকুজ্জামান বাংলা ট্রিবিউনকে জানান, পারিবারিক সিদ্ধান্তে মরদেহ শুক্রবার সন্ধ্যা নাগাদ বারডেম হাসপাতালের হিমঘরে রাখা হয়। আজ শনিবার সকাল ১১টায় জাতীয় শহীদ মিনার প্রাঙ্গণে সর্বস্তরের শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে বাদ জোহর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় মসজিদে জানাজা অনুষ্ঠিত হয়। বিকাল নাগাদ মিরপুর বুদ্ধিজীবী কবরস্থানে দাফন করার কথা রয়েছে।

খোন্দকার নূরুল আলম ‘শুভদা’সহ বিভিন্ন ছবিতে গান তৈরি করে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পেয়েছিলেন একাধিকবার। পেয়েছেন একুশে পদকও। ‘চোখ যে মনের কথা বলে’, ‘এতো সুখ সইবো কেমন করে’, ‘তুমি এমনই জাল পেতেছো সংসারে’, ‘আমি চাঁদকে বলেছি আজ রাতে’, ‘কাঠ পুড়লে কয়লা হয়’, ‘এক বরষার বৃষ্টিতে ভিজে’ প্রভৃতি কালজয়ী সুর তৈরি করেছেন এ সুরস্রষ্টা।

রাজধানীর ধানমন্ডির ১৫ নম্বরে পৈতৃক বাড়িতে স্ত্রী ও দুই সন্তানকে নিয়ে ছিলো তার নিবাস। ১৯৭৬ সালে চট্টগ্রামের মেয়ে কিশ্ওয়ার সুলতানার সঙ্গে বিয়েবন্ধনে আবদ্ধ হন তিনি। তাদের এক কন্যা ও এক পুত্রসন্তান।

প্রসঙ্গত, ১৯৩৬ সালের ১৭ আগস্ট ভারতের আসাম রাজ্যের গোয়ালপাড়া জেলার ধুবড়ী মহকুমায় জন্মগ্রহণ করেন খোন্দকার নূরুল আলম। বাবা নেসারউদ্দিন খোন্দকার ও মা ফাতেমা খাতুনের দ্বিতীয় সন্তান তিনি। মাকে হারান ১৯৪৮ সালে, ১২ বছর বয়সে। একই বছর পুরো পরিবার তৎকালীন পূর্ব পাকিস্তানে (বর্তমান বাংলাদেশ) চলে আসে।

/এমএম/

লাইভ

টপ