behind the news
IPDC  ad on bangla Tribune
Vision  ad on bangla Tribune

আরফিন রুমির ঘর ভাঙল আবার

মাহমুদ মানজুর০০:১০, ফেব্রুয়ারি ১০, ২০১৬

আরফিন রুমিএবারও সংসার জীবনে থিতু হতে পারলেন না জনপ্রিয় সংগীতশিল্পী আরফিন রুমি। আবার ভাঙল তার সাজানো ঘর। যে ঘরের দায়ে হারিয়েছিলেন প্রথম স্ত্রী-সন্তানকে। খেটেছেন জেল-জরিমানাও। অনেকাংশে জলাঞ্জলি দিতে হলো আকাশছোঁয়া সংগীত জনপ্রিয়তাও।
মঙ্গলবার দিনগত রাতে নিশ্চিত খবর পাওয়া যায় দ্বিতীয় স্ত্রী কামরুন্নেসাকে তালাক দিয়েছেন রুমি। গত ৩১ জানুয়ারি সেই তালাকপত্র যুক্তরাষ্ট্রের ঠিকানায় পাঠানো হয়েছে। একই সঙ্গে মঙ্গলবার রুমির আইনজীবী আবদুর রহিম কামরুন্নেসার বাবাকে ফোন করে তালাকপত্র  পাঠানোর বিষয়টি নিশ্চিত করেন।
ডিভোর্সের কারণ হিসেবে রুমি উল্লেখ করেন-  মানসিক নির্যাতন, আগের স্বামীর সঙ্গে মেলামেশা, বেপরোয়া চলাফেরা ও কাউকে তোয়াক্কা না করাসহ আরও কিছু কারণ।
খবরটি বাংলা ট্রিবিউনকে নিশ্চিত করেন রুমি নিজেই। অন্যদিকে কামরুন্নেসা তার ছেলে আয়ানসহ গত ছয় মাস ধরে আমেরিকায় তার বাবার সঙ্গে বসবাস করছেন বলেও জানা গেছে।
ডিভোর্সের কারণ সম্পর্কে রুমি জানান, বিয়ের পর থেকে গত আড়াই বছর ধরে কামরুননেসা তাকে ও তার মাকে মানসিক নির্যাতন করে আসছিল। তবুও সংসার টিকিয়ে রাখার জন্য তিনি এতদিন সব সহ্য করেছেন।
রুমি বলেন, 'কামরুন্নেসা তার  প্রথম স্বামীকে তালাক দিয়ে আমাকে বিয়ে করেছিল। কিন্তু খবর পেলাম, এবার সে আমেরিকায় গিয়ে আগের স্বামীর সঙ্গে  নিয়মিত মেলামেশা করছে।' এ ঘটনা কামরুন্নেসার পরিবারকেও বারবার জানিয়েছেন বলে উল্লেখ করেন রুমি। কোনও সুরাহা না হওয়ায় কামরুন্নেসাকে তালাক দিতে বাধ্য হন তিনি।

কামরুননেসা ও ছেলের সঙ্গেউল্লেখ্য, আমেরিকায় স্টেজ শো করতে গিয়ে ২০১২ সালে তার গানের ভক্ত কামরুন্নেসার সঙ্গে পরিচয় হয় রুমির। এরপর চোখের পলকেই প্রেম ও নাটকীয় কায়দায় বিয়ে। তারপর প্রথম স্ত্রী অনন্যাকে তালাক এবং এর দায়ে জেল-জরিমানাও ভোগ করতে হয়েছে রুমিকে।

/এমএম/  

Global Brand  ad on Bangla Tribune

লাইভ

IPDC  ad on bangla Tribune
টপ