অবশেষে অস্কার পেলেন ডিক্যাপ্রিও

Send
বাংলা ট্রিবিউন ডেস্ক
প্রকাশিত : ১১:০৩, ফেব্রুয়ারি ২৯, ২০১৬ | সর্বশেষ আপডেট : ১৩:৪৭, ফেব্রুয়ারি ২৯, ২০১৬


সব জল্পনা-কল্পনার অবসান। সোমবার বাংলাদেশ সময় ভোর পাঁচটা থেকে শুরু হয় ৮৮তম  অস্কার আসরের। যুক্তরাষ্ট্রের লস অ্যাঞ্জেলেসেরে ঐতিহাসিক ডলবি থিয়েটারে বসে তারকার মেলা। কাঙ্ক্ষিত লালগালিচা ধরে হাঁটেন চলচ্চিত্রের তারকা-মহাতারকারা।
মনোনয়ন দৌড়ে ‘দ্য রেভেন্যান্ট’ সবচেয়ে এগিয়ে থাকলেও এখন পর্যন্ত ৬টি অস্কার জয় করেছে ‘ম্যাড ম্যাক্স: ফিউরি রোড’। ১২টি পুরস্কারের জন্য মনোনীত হলেও ‘দ্য রেভেন্যান্ট’ পেয়েছে ৪টি।
এবার সেরা চলচ্চিত্রের পুরস্কার জিতে নিয়েছে স্পটলাইট। এবারের অস্কারে সেরা অভিনেত্রী হয়েছেন ‘রুম’ সিনেমায় অভিনয়ের জন্য ব্রি লারসন। সেরা পরিচালকের পুরস্কার পেয়েছেন ‘দ্য রেভেন্যান্ট’-এর পরিচালক আলেজান্দ্র গনজালেজ ইনারিতু।
এবারের আসরের প্রায় পুরো আলোচনায় ছিলেন লিওনার্দো ডিক্যাপ্রিও। অবশেষে ‘টাইটানিক’ খ্যাত ‘জ্যাক’-এর হাতেই উঠল সেরা অভিনেতার পুরস্কার।
ডিক্যাপ্রিও উৎকণ্ঠা ছাড়াও এবারের অস্কারে যুক্ত হয়েছিল এক ‘বিব্রতকর’ প্রসঙ্গও। শ্বেতাঙ্গ আধিপত্যের অভিযোগে এবারের অস্কার বিদ্ধ হয়েছে নতুন বিতর্কে। চলছে শীর্ষ অভিনেতা-অভিনেত্রীদের অস্কার আসর বর্জনের মতো ঘটনাও।
শ্বেতাঙ্গদের আধিপত্যের বিতর্কে মুখ রক্ষা করতে এবারের আসরে উপস্থাপকদের সঙ্গে মঞ্চে দেখা গেছে বর্ষীয়ান কৃষ্ণাঙ্গ অভিনেতা মরগান ফ্রিম্যান ও গায়ক জন লেজেন্ডেকেও। পরিবেশনায় বা উপস্থিতিতে ৮৮তম অস্কারের মঞ্চ উজ্জ্বল করেছেন এমন তারকাদের মধ্যে ছিলেন কেট ব্ল্যানচেট,  বেনিসিও ডেল টোরো, জারেড লেটো, রাসেল ক্রো, রায়ান গসলিংসহ আরও অনেক তারকা। মঞ্চে ছিলেন বলিউড অভিনেত্রী প্রিয়াংকা চোপড়াও।
এবারের আয়োজনে বিজয়ীদের হাতে পুরস্কার তুলে দেওয়ার তালিকায় আরও ছিলেন অভিনেত্রী শার্লিজ থেরন, হুপি গোল্ডবার্গ, টিনা ফে, গায়িকা লেডি গাগা, গায়ক স্যাম স্মিথ, ফ্যারেল উইলিয়ামস, দ্য উইকেন্ড, অভিনেতা বেনিসিও দেল তোরো, রায়ান গসলিং, কেভিন হার্ট ও শিশুশিল্পী জ্যাকব ট্রেমব্লে।
নিয়ম অনুযায়ী গতবারের সেরা অভিনেত্রী জুলিয়ান মুর পুরস্কার তুলে দেন এবারের নির্বাচিত সেরা অভিনেতাকে। একইভাবে গতবছরের সেরা অভিনেতা এডি রেডমেইন দেন এবারের সেরা অভিনেত্রীকে।

অস্কার বিজয়ীদের তালিকা-
সেরা চলচ্চিত্র- দ্য রেভেন্যান্ট
সেরা অভিনেতা- লিওনার্দো ডিক্যাপ্রিও (দ্য রেভেন্যান্ট)
সেরা অভিনেত্রী- ব্রি লারসন (রুম)
সেরা পরিচালক- আলেজান্দ্র গনজালেজ ইনারিতু (দ্য রেভেন্যান্ট)
সেরা বিদেশি ভাষার চলচ্চিত্র- সন অব সাউল (হাঙ্গেরি)
মূল চিত্রনাট্য- জশ সিঙ্গার ও টম ম্যাককার্থি (স্পট লাইট)
সংযোজিত চিত্রনাট্য- চার্লস র‌্যানডলফ ও অ্যাডাম ম্যাকি  (দ্য বিগ শর্ট)
পার্শ্ব অভিনেতা- মার্ক রাইল্যান্স (ব্রিজ অব স্পাইজ)
পার্শ্ব অভিনেত্রী- অ্যালিসিয়া ভিকান্দার (দ্য ডেনিশ গার্ল)
ভিজ্যুয়াল ইফেক্ট- অ্যান্ড্রিউ হোয়াইটহার্স্ট, মার্ক আর্দিংটন ও সারা বেনেট (এক্স মেশিনা)
সাউন্ড মিক্সিং- ক্রিস জেনকিনস, গ্রেগ রুডলফ ও বেন ওসমো ( ম্যাড ম্যাক্স: ফিউরি রোড)
সাউন্ড এডিটিং-মার্ক মাঙ্গিনি ও ডেভিড হোয়াইট  (ম্যাড ম্যাক্স: ফিউরি রোড)
অ্যানিমেটেড শর্ট ফিল্ম- বিয়ার স্টোরি, গ্যাব্রিয়েল ওসোরিও ও পাতো এসকালা
প্রোডাকশন ডিজাইন- কলিন গিবসন ও লিসা থম্পসন (ম্যাড ম্যাক্স: ফিউরি রোড)
মেকাপ ও হেয়ার স্টাইল- ল্যাসলি ভ্যান্ডারওয়াল্ট, এলকা ওয়ারডেগা ও ড্যামিয়ান মার্টিন (ম্যাড ম্যাক্স: ফিউরি রোড)
ডকুমেন্টারি (শর্ট)- এ গার্ল ইন দ্য রিভার: দ্য প্রাইস অব ফরগিভনেস, শারমিন ওবাইদ-চিনয়
ডকুমেন্টারি  (ফিচার)- অ্যামি, আসিফ কাপাডিয়া ও জেমস গে-রিজ
কস্টিউম ডিজাইন- জেনি বিয়াভ্যান (ম্যাড ম্যাক্স: ফিউরি রোড)
সিনেমাটোগ্রাফি: এমানুয়েল লুবেজকি (দ্য রেভেন্যান্ট)
অ্যানিমেটেড ফিচার ফিল্ম- ইনসাইড আউট, পেটে ডক্টর ও জোনাস রিভেরা
সম্পাদনা- মার্গারেট সিক্সেল (ম্যাড ম্যাক্স: ফিউরি রোড)
অরিজিনাল স্কোর- দ্য হেইটফুল এইট, এ্যানিও মরিকোন
মূল গান- রাইটিংস অন ওয়াল (স্পেকটার)
লাইভ অ্যাকশন (শর্ট ফিল্ম)- স্টাটার, বেনজামিন ক্লিয়ারি ও সেরেনা আর্মিটেজ

সূত্র: সিএনএন



/এএ/

লাইভ

টপ