Vision  ad on bangla Tribune

অকাল প্রস্থানে জোয় ফিক

বাংলা ট্রিবিউন ডেস্ক১৬:৪৪, মার্চ ০৫, ২০১৬

জোয় ও রোরি ফিক।মারা গেছেন যুক্তরাষ্ট্রের জনপ্রিয় কান্ট্রি সিঙ্গার জোয় ফিক। সারভিক্যাল ক্যান্সারের সঙ্গে যুদ্ধ করে মাত্র ৪০ বছর বয়সে শুক্রবার না ফেরার দেশে গেলেন এই শিল্পী।


জীবনের শেষ কয়েকটি মাসে তার সঙ্গে ছিলেন তার প্রেমময় স্বামী ও সহশিল্পী রোরি ফিক। জোয়ের মৃত্যুর পর রোরি তার ব্লগ পোস্টে লেখেন, ‘আজ আমার স্ত্রীর স্বপ্ন পূরণ হয়েছে। তিনি স্বর্গে গেছেন। ক্যান্সারের যন্ত্রণার অবসান হয়েছে, তার অশ্রু মুছে গেছে।’

রোরি জানান, জোয়ের মৃত্যু হয়েছে ৪ মার্চ বিকেলবেলায়। মৃত্যুর সময় তাকে ঘিরে ছিল সব প্রিয়জনরা।

ক্যান্সারে আক্রান্ত হওয়ার পর থেকেই জোয়ের প্রাণপণ যুদ্ধকে স্মৃতিতে ধরে রাখেন রোরি। ফেসবুক ও ইন্সটাগ্রামে ‘দিস লাইফ আই লিভ’ শিরোনামে সে সব ছবি পোস্ট করেন তিনি।

রোরি বলেন, ‘যদিও ওই সময়গুলো ছিল অত্যন্ত কঠিন, কিন্তু তাতে অনেক অনেক আনন্দের অশ্রুও মেশানো ছিল।’    

অসুস্থ হওয়ার আগে গানের মঞ্চে জোয় ও রোরি ফিক।তিনি জানান, ২০১৪ সালের মে মাসে প্রথমবারের মতো জোয়ের শরীরে ক্যান্সার ধরা পড়ে। তার ঠিক তিন মাস আগেই তিনি প্রসব করেন তাদের একমাত্র কন্যা ইন্ডিয়ানাকে। তিন মাসের শিশুসন্তানকে রেখেই জোয়কে চিকিৎসা শুরু করতে হয়। হেস্টিরেকটোমি, কেমোথেরাপি ও রেডিওথেরাপির মতন যন্ত্রণাদায়ক চিকিৎসার মধ্যে দিয়ে জীবনের শেষ সময়টুকু কাটান জোয়।

একমাত্র কন্যাকে নিয়ে জোয় ও রোরি ফিক।কিন্তু তা সত্ত্বেও অপরিমেয় সাহসের সঙ্গে রোগকে মোকাবেলা করেছেন জোয়। তিনি ২০১৫ সালের নভেম্বরে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে বলেন, ‘আমি মরতে ভয় পাই না। শুধু এই প্রার্থনা করি, যেন একদিন সকালে আমার ঘুম আর না ভাঙ্গে।’

জোয়ের অবস্থার অবনতির সঙ্গে সঙ্গে রোরি আরও বেশি ছবি তুলতে থাকেন। শিশুকন্যার জন্য মায়ের স্মৃতি ধরে রাখতে চেয়ে এই ছবিগুলো জমিয়ে রাখতে থাকেন রোরি।

সূত্রঃ টুডে

/ইউআর/এমএম/

samsung ad on Bangla Tribune

লাইভ

টপ