কঙ্গনাকে হৃত্বিকের নোটিশ

Send
বাংলা ট্রিবিউন ডেস্ক
প্রকাশিত : ১৭:২৯, মার্চ ১৫, ২০১৬ | সর্বশেষ আপডেট : ১৮:৩৯, মার্চ ১৫, ২০১৬

কঙ্গনা এবং হৃত্বিকবলিউড তারকা হৃত্বিক রোশন ও কঙ্গনা রানাউতের বাগযুদ্ধ খারাপ অবস্থার দিকে মোড় নিচ্ছে। দুজনকে ঘিরে বিতর্ক শুরু হয় কিছু দিন আগে।
গুঞ্জন শোনা গিয়েছিল, হৃত্বিক ও কঙ্গনা একে অপরের সঙ্গে চুটিয়ে ডেটিং করছেন। আর তাদের এ রোমান্সে খুশি নন হৃত্বিকের বাবা। এরপর আচমকা শোনা যায় দুজনের সম্পর্কের ভাঙনের খবর। তবে এতেই শেষ হয়ে যায়নি তাদের বিচ্ছেদ।
মিডিয়ায় একে অপরকে আক্রমণ করে মন্তব্য করতে থাকেন। গুঞ্জন ওঠে, ‘আশিকি ৩’ ছবিতে অভিনয় করবেন হৃত্বিক ও কঙ্গনা। কিন্তু কঙ্গনার সঙ্গে বিচ্ছেদের পর এ ছবি থেকে বাদ দেওয়ার প্রস্তাব দেন হৃত্বিক। এতে আরও ক্ষুব্ধ হয়ে ওঠেন কঙ্গনা।
কয়েকদিন আগে প্রকাশ্যে এক সাক্ষাৎকারে কঙ্গনার কাছে জানতে চাওয়া হয়েছিল ‘আশিকি থ্রি’ থেকে তাকে সরিয়ে দেওয়ার পেছনে কে দায়ী? তখন নাম উল্লেখ না করে হৃত্বিককে ‘সিলি প্রাক্তন’ বলে আখ্যায়িত করে কঙ্গনা বলেন, ‘আমি জানি না, কেনও আমার সিলি প্রাক্তনরা মূর্খের মতো কাজ করে।’

হৃত্বিকও অবশ্য ছেড়ে কথা বলেননি। কঙ্গনার নাম উল্লেখ না করে হৃত্বিক পাল্টা বিস্ফোরক মন্তব্য ছুঁড়ে দেন। বলেন, ’এধরনের কোনও মহিলার সঙ্গে প্রেম করার চেয়ে পোপের সঙ্গে প্রেম করা ভাল।’ টুইটারে হৃত্বিক লেখেন, ‘আমার একজন পোপের সঙ্গে একটা সম্পর্ক থাকার সম্ভাবনা আছে। কিন্তু সংবাদমাধ্যমে যে সমস্ত মহিলাদের নাম ঘুরে বেড়াচ্ছে, তারা হয়তো আকর্ষণীয় হতে পারেন, তবে আমার কোনও ইচ্ছা নেই তাদের সঙ্গে সম্পর্কে জড়ানোর।’

এবার তা বাগযুদ্ধ থেকে আইনি লড়াইয়ে গড়াল। হৃত্বিককে প্রাক্তন উল্লেখ করায় মানহানির অভিযোগ এনে কঙ্গনাকে আইনজীবীর মাধ্যমে নোটিশ পাঠান তিনি। ২১ পৃষ্ঠার এই নোটিশে হৃত্বিক দাবি করেন, কঙ্গনা যেন সংবাদ সম্মেলন ডেকে তাকে ‘প্রাক্তন প্রেমিক’ সম্বোধন করার জন্য ক্ষমা চান। কঙ্গনা যদি এটা না করেন তাহলে এ পর্যন্ত কঙ্গনার সঙ্গে হৃত্বিকের যতো কথা হয়েছে তা প্রকাশ করে দেবেন।

হৃত্বিকের এই নোটিশের পর পাল্টা আইনি নোটিশ পাটিয়েছেন কঙ্গনাও। তার অভিযোগ, হৃত্বিক তাকে হুমকি দিচ্ছেন। কঙ্গনার দাবি, ওই সাক্ষাৎকারে তিনি কোথাও হৃত্বিকের নাম উল্লেখ করেননি। তাহলে তো মানহানির কোনও প্রশ্ন নেই। কঙ্গনা নোটিশ প্রত্যাহারের জন্য হৃত্বিককে ৫ দিনের সময় দিয়েছেন।

এখন তাদের ভক্ত-সমর্থকদের অপেক্ষার পালা। দেখা যাক, কোথাকার পানি কোথায় গড়ায়!

সূত্র: টাইমস নাউ।

/এএ/এম/

লাইভ

টপ