সেজান-চঞ্চল-ভাবনার ‘ওয়াও’

Send
বিনোদন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ১২:১৫, মার্চ ২৪, ২০১৬ | সর্বশেষ আপডেট : ১৩:২৩, মার্চ ২৪, ২০১৬

মাসুদ সেজান, চঞ্চল চৌধুরী এবং ভাবনা। প্রথম তিনজনে একসঙ্গে কাজ করলেন একটি টেলিফিল্মে। ‘ওয়াও’ নামের এই টেলিফিল্মের গল্পটি আবর্তিত হয়েছে শ্রেণীগত অবস্থান এবং কালচারাল পার্থক্যের দ্বিধাদ্বন্দ্বে জর্জরিত আমাদের সমাজ বাস্তবতার আলোকে।

চঞ্চল-সেজান-ভাবনা।এখানে চঞ্চল চৌধুরী সদ্য গ্রাম থেকে আসা এক সহজ সরল যুবক। অন্য কোনও কাজ জোগাড় করতে না পেরে আপাতত টিউশনিকেই পেশা হিসেবে বেছে নিয়েছে। এবং এখানে এসেই ভাবনার সঙ্গে তার পরিচয়। ভাবনা যেখানে ‘ওয়াও’, ‘অসাম’, ‘ঝাক্কাস’, ‘জটিল’, ‘লল’ কালচারে অভ্যস্ত। সেখানে চঞ্চলের কোনও মোবাইল ফোনই নেই! নেই বলতে তিনি ইচ্ছা করেই মোবাইল ফোন ব্যবহার করেন না, এটা তার এক ধরনের প্রতিবাদ। কিন্তু কিসের প্রতিবাদ? এরকম দুই মেরুর দুই বাসিন্দার মধ্যে আদৌ কি প্রেম-বন্ধুত্ব হবে? এমন গল্প নিয়ে এগিয়ে গেছে ‘ওয়াও’ টেলিফিল্মের কাহিনি। জানালেন এর লেখক ও নির্মাতা মাসুদ সেজান।

অভিনেতা চঞ্চল চৌধুরী বলেন, ‘সেজান ভাইয়ের সঙ্গে এটিই আমার প্রথম কাজ। তার দর্শকপ্রিয় অনেক কাজ আমি দেখেছি। অভিনয়শিল্পী ও নির্মাতার মধ্যে যে সিঙ্কটা হওয়া জরুরি, সেজান ভাইয়ের সঙ্গে কাজ করে সেটা অনুভব করেছি।’

নির্মাতা মাসুদ সেজান বলেন, ‘আমি আমার প্রতিটি কাজেই একটি মেসেজ দেওয়ার চেষ্টা করি, এখানেও তা আছে। চঞ্চল চৌধুরী ও ভাবনা একটি ভালো কাজ করবার ব্যাপারে যথেষ্ট আন্তরিক। ওদের সঙ্গে কাজ করে আমার খুবই ভালো লেগেছে, আশা করছি দর্শকও সেই ভালোলাগার পরশটুকু অনুধাবন করবেন।’

এতে আরও অভিনয় করেছেন- মিশু সাব্বির, মুকল সিরাজ, হায়দার মিথুন, তুপা প্রমূখ। বাংলাভিশনের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে ৩১ মার্চ রাত ১১টা ২০ মিনিটে এটি প্রচার হবে।

/এস/এমএম/

লাইভ

টপ