behind the news
Vision  ad on bangla Tribune

সিডনি উৎসবে বাংলাদেশি নারী পুলিশের গল্প

ওয়ালিউল মুক্তা১৯:৫০, এপ্রিল ০৬, ২০১৬


বাংলাদেশি নারী পুলিশ সদস্য মৌসুমী
হাজার হাজার মাইল দূরে নিজ দেশ থেকে ছেলে অনুরোধ করছে, ‘মা তুমি চলে এসো। পেছন দরজা দিয়ে চলে এসো।’
মা ছেলেকে কিছু বলতে পারেন না। আলতো হাতে চোখ মুছেন তিনি। ছেলের আবদার রাখার সে সুযোগ তার নেই। কারণ এ হাতেই ভূমিকম্প ও যুদ্ধ বিধ্বস্ত হাইতি গড়ার মিশনে এসেছেন তিনি। এক হাতে অস্ত্র, অন্য হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন হাইতির সাধারণ মানুষের জন্য।‘অ্যা জার্নি অব অ্যা থাউসেন্ড মাইলস পিচকিপারস’-এর একটি দৃশ্য।
২০১৩ সালে হাইতির ভূমিকম্প বিধ্বস্ত এলাকায় শান্তি প্রতিষ্ঠার দায়িত্ব পালনকালে বাংলাদেশের নারী পুলিশ সাহসী ও বলিষ্ঠ ভূমিকা রেখেছিল। এর ওপর নির্মিত চলচ্চিত্র ‘অ্যা জার্নি অব অ্যা থাউসেন্ড মাইলস: পিচকিপারস’। ছবির ট্রেলারে এভাবেই পাওয়া গেল বাংলাদেশি এক নারী পুলিশ সদস্যকে।


ছবিটি নিয়ে নতুন করে আলোচনার কারণ, বাংলাদেশি নারী পুলিশদের সাফল্যগাঁথা নিয়ে নির্মিত এ ছবিটির নাম এসেছে ৬৩তম সিডনি চলচ্চিত্র উৎসবে।
অস্কারজয়ী পরিচালক শারমিন ওবায়েদ-চিনয় ও গীতা গান্দভীর  নির্মাণ করেছেন এটি। পাকিস্তানি ও ভারতীয় বংশোদ্ভূত আমেরিকান এ দুই পরিচালক বাংলাদেশি নারী পুলিশ সদস্যদের অবিস্মরণীয় ভূমিকা তুলে ধরেছেন ছবিটির মাধ্যমে।
এবারের উৎসবে ২৫০টিরও বেশি দেশের ছবি অংশ নিয়েছিল। এরমধ্যে থেকে উৎসবের জন্য মনোনীত হয়েছে ৩৬টি ছবি। যার মধ্যে আছে ‘অ্যা জার্নি অব অ্যা থাউসেন্ড মাইলস: পিচকিপারস’। ১২ দিনের এ উৎসব শুরু হবে ৮ জুন থেকে। 'সিডনি চলচ্চিত্র উৎসব' বুধবার ছবিগুলোর নাম ঘোষণা করে।
এতে বিভিন্ন শাখায় থাকছে নতুন ও গত বছরের পুরাতন ছবি। বাংলা, ইংরেজি ও ক্রিয়োল ভাষায় নির্মিত ‘অ্যা জার্নি অব অ্যা থাউসেন্ড মাইলস: পিচকিপারস’ ছবিটি প্রামাণ্যচিত্র বিভাগে মনোনীত হয়েছে। ছবিটির দৈর্ঘ্য ৫৫ মিনিট। গত বছর এটির প্রিমিয়ার শো হয়েছে।
ছবিটির ট্রেলার: 
/এম/

Global Brand  ad on Bangla Tribune

লাইভ

IPDC  ad on bangla Tribune
টপ