চীনের ওপর নজরদারি করতে আরেক রুশ সাবমেরিন আনছে ভারত

Send
বিদেশ ডেস্ক
প্রকাশিত : ০০:০৬, অক্টোবর ২০, ২০১৬ | সর্বশেষ আপডেট : ০০:০৭, অক্টোবর ২০, ২০১৬

রাশিয়া থেকে আরও একটি পরমাণুবাহী সাবমেরিন কিনতে যাচ্ছে ভারত। গোয়ায় ব্রিকস শীর্ষ সম্মেলনের ফাঁকেই ভারত ও রাশিয়ার মধ্যে এ সংক্রান্ত চুক্তি হয়েছে। রাশিয়া এবং ভারতের সংবাদমাধ্যমসূত্রে ওই নিঃশব্দ চুক্তির কথা জানা গেছে। ভারতীয় সংবাদমাধ্যমগুলো নিজস্ব গোয়েন্দা সূ্ত্রের বরাত দিয়ে জানিয়েছে, ভারত মহাসাগরে চীনকে নজরদারির আওতায় রাখতেই  এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে ভারত। উল্লেখ্য, ভারতের হাতে ইতিমধ্যেই একটি আকুলা-২ শ্রেণির এই পারমাণবিক অ্যাটাক সাবমেরিন রয়েছে। কিন্তু ভবিষ্যৎ পরিস্থিতির কথা মাথায় রেখে দ্রুত আরও একটি আকুলা-২ সাবমেরিনকে নৌসেনার অন্তর্ভুক্ত করতে চাইছে দিল্লি

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম টাইমস অব ইন্ডিয়ার খবরে বলা হয়েছে, অক্টোবরের ১৫ তারিখে গোয়ায় অনুষ্ঠিত ব্রিকস সম্মেলনে রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন এবং ভারতীয় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির মধ্যে এই চুক্তি হয়। এদিকে প্রভাবশালী রুশ সংবাদপত্র ভেদোমোস্তি-তে প্রকাশিত একটি প্রতিবেদনে রাশিয়ার প্রতিরক্ষা শিল্প মহল সূত্রের বরাতে বলা হয়েছে, ‘ রুশ নৌসেনা থেকে একটি মাল্টিপারপাস প্রোজেক্ট ৯৭১ নিউক্লিয়ার সাবমেরিন ভারতকে দেওয়ার বিষয়ে যে চুক্তি নিয়ে দীর্ঘ আলোচনা চলছিল, সে চুক্তিটি গোয়ায় স্বাক্ষরিত হয়েছে।’

এদিকে নিজস্ব সূত্রের বরাত দিয়ে কলকাতাভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আনন্দবাজার জানিয়েছে, দ্বিতীয় আকুলা-২ সাবমেরিনটি ভারতে আনার পর তা বিশাখাপত্তনম নৌঘাঁটিতে স্থাপন করা হবে। ভারত মহাসাগরে চীনের যে সব সাবমেরিন গোপনে নজরদারি চালায়, সেগুলির উপর নাজরদারি চালাবে রাশিয়া থেকে আনা সাবমেরিন। পাশাপাশি ভারতের নিউক্লিয়ার পাওয়ার্ড ব্যালিস্টিক মিসাইল সাবমেরিনের (অরিহন্ত শ্রেণি) যে বহর তৈরি হতে চলেছে, তার সুরক্ষা নিশ্চিত করবে আকুলা-২।

ভারতীয় নৌসেনার হাতে আসা প্রথম পরমাণু শক্তিচালিত সাবমেরিনটি হল আইএনএস চক্র। সেটিও আকুলা-২ শ্রেণির ডুবোজাহাজ। এবং সেটিও রাশিয়ার কাছ থেকে ১০ বছরের লিজ নিয়ে ভারতে আনা হয়েছিল। ২০১২-র এপ্রিলে আইএনএস চক্র ভারতীয় নৌসেনার অন্তর্ভুক্ত হয়। কয়েক বছরের মধ্যেই সেই লিজের মেয়াদ ফুরিয়ে যাবে। তার আগেই আর একটি আকুলা-২ নিউক্লিয়ার সাবমেরিন রাশিয়া থেকে নিয়ে আসার চুক্তি ভারত সেরে ফেলল।

আকুলা-২ শ্রেণির সাবমেরিনের গতি ঘণ্টায় ৩৫ নটিক্যাল মাইল। অর্থাৎ প্রায় ৬৫ কিলোমিটার। পরমাণু শক্তিচালিত অ্যাটাক সাবমেরিনের আধুনিকতম শ্রেণি এটি নয়। কিন্তু এখনও আকুলা-২ সাবমেরিনকে বিশ্বের অন্যতম সেরা নিউক্লিয়ার অ্যাটাক সাবমেরিন হিসেবে গণ্য করা হয়। টর্পেডো এবং ক্রুজ ক্ষেপণাস্ত্র ব্যবহার করে প্রতিপক্ষের উপর হামলা চালাতে সক্ষম এই ডুবোজাহাজ।

/বিএ/

 

লাইভ

টপ