অর্থপাচারের সন্দেহে ভারতে জাকির নায়েকের সহযোগী গ্রেফতার

Send
বিদেশ ডেস্ক
প্রকাশিত : ০৫:২৭, ফেব্রুয়ারি ১৭, ২০১৭ | সর্বশেষ আপডেট : ০৫:২৭, ফেব্রুয়ারি ১৭, ২০১৭

জাকির নায়েকঅর্থপাচারের সঙ্গে জড়িত সন্দেহে বিতর্কিত ইসলাম ধর্ম প্রচারক জাকির নায়েকের ঘনিষ্ঠ সহযোগী আমির গাজদারকে গ্রেফতার করা হয়েছে। অর্থপাচার প্রতিরোধ আইনের (পিএমএলএ) বিধান অনুযায়ী বৃহস্পতিবার (১৬ ফেব্রুয়ারি) ভারতের স্থানীয় সময় সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় মুম্বাই শহর থেকে তাকে গ্রেফতার করে ভারতের কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট (ইডি)।

অর্থপাচারের অভিযোগ আছে এমন কয়েকটি সংস্থার মধ্যে একটির পরিচালক আমির গাজদার। তার ওপর এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট অনেকদিন ধরে নজর রাখছিল। তিনি জাকির নায়েকের বিশ্বস্ত সহযোগীদের মধ্যে অন্যতম।
কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থার একজন কর্মকর্তা জানিয়েছেন, ৫০ বছর বয়সী আমির গাজদারকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য মুম্বাইয়ে ইডি কার্যালয়ে তলব করা হয়েছিল। কিন্তু তদন্ত কর্মকর্তাদের ‘অসহযোগিতা’ করায় গ্রেফতার হলেন তিনি। তাকে শুক্রবার (১৭ ফেব্রুয়ারি) আদালতে হাজির করা হবে বলে জানা গেছে। ভারতীয় সংবাদমাধ্যম ডিএনএ ইন্ডিয়া এ তথ্য প্রকাশ করেছে।

এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট কর্মকর্তাদের অভিযোগ, জাকির নায়েক ও তার এনজিও ইসলামিক রিসার্চ ফাউন্ডেশনের (আইআরএফ) পক্ষে নগদ ২০০ কোটি রুপির লেনদেন করেছেন আমির গাজদার। আইআরএফ-এর পিস টিভি চ্যানেলের অনুষ্ঠানেও তথ্যাদি দিয়ে এসেছে গাজদারের প্রতিষ্ঠান। এই চ্যানেলের কার্যক্রম পরিচালিত হতো মুম্বাইয়ের পশ্চিমাঞ্চল থেকে।

কিছুদিন ঝিমিয়ে থাকা এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট সম্প্রতি আইআরএফ প্রতিনিধি এবং জাকির নায়েকের সঙ্গে যুক্ত বেশ কয়েকজন ব্যক্তিকে পিএমএলএ মামলায় সমন পাঠায়। একই কারণে আমির গাজদারকে জিজ্ঞাসাবাদ করতে চেয়েছিলেন ইডি কর্মকর্তারা।

গত বছরের ডিসেম্বরে জাকির নায়েক ও অন্যদের বিরুদ্ধে বেআইনি কার্যক্রম (প্রতিরোধ) আইনের আওতায় একটি ফৌজদারি মামলা দায়ের করে কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা। এ ঘটনায় তাকেও সমন পাঠায় ইডি। কিন্তু গ্রেফতার এড়াতে তিনি সৌদি আরবে অবস্থান করছেন বলে ধারণা করা হচ্ছে।

ভারতের ন্যাশনাল ইনভেস্টিগেশন এজেন্সি (এনআইএ) এর আগে ৫১ বছর বয়সী জাকির নায়েকের বিরুদ্ধে বিভিন্ন ধর্মীয় গোষ্ঠীর মধ্যে বিভেদ ছড়িয়ে দেওয়ার অভিযোগে সন্ত্রাসবিরোধী আইনে একটি মামলা করে। এরপর মুম্বাই পুলিশ ও এনআইএ মিলে ভারতের মেগাসিটির দশটি স্থানে অভিযান চালিয়েছে। এর মধ্যে ইসলামিক রিসার্চ ফাউন্ডেশনের কর্মকর্তারা থাকেন এমন আবাসিক এলাকায়ও গিয়েছিলেন তারা। বিদেশ থেকে অর্থপ্রাপ্তির কারণে ফাউন্ডেশনটির ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে ভারতের কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।

গত বছর ঢাকায় গুলশানে হলি আর্টিজান বেকারিতে হামলা চালানো জঙ্গিসহ বিভিন্ন সন্ত্রাসী কার্যকলাপে লিপ্ত হওয়া তরুণরা জাকির নায়েকের কথায় অনুপ্রাণিত হয়েই বিপথগামী হয়েছে বলে মনে করা হয়।

/জেএইচ/টিএন/

লাইভ

টপ