তথ্য ফাঁস সত্যি, খবরগুলো ভুয়া!

Send
বিদেশ ডেস্ক
প্রকাশিত : ০৮:০০, ফেব্রুয়ারি ১৭, ২০১৭ | সর্বশেষ আপডেট : ০৮:০৬, ফেব্রুয়ারি ১৭, ২০১৭

ডোনাল্ড ট্রাম্পরাশিয়ার সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রের প্রাক্তন জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা মাইকেল ফ্লিনের ফোন কলের তথ্যগুলো ফাঁস হওয়া এবং তা প্রকাশের ঘটনায় সংবাদমাধ্যমের সমালোচনা করলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। যদিও বৃহস্পতিবার (১৬ ফেব্রুয়ারি) এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি নিশ্চিত করেছেন, তার প্রশাসন নিয়ে ফাঁস হয়ে যাওয়া তথ্যগুলো সত্যি। কিন্তু এই ফাঁসের ঘটনা নিয়ে সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত বেশিরভাগ খবরই ভুয়া বলে দাবি করেছেন তিনি।

গত ১৩ ফেব্রুয়ারি পদত্যাগ করেন ট্রাম্পের প্রশাসনের অন্যতম সদস্য প্রাক্তন জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা মাইকেল ফ্লিন। তিনি ভাইস প্রেসিডেন্ট মাইক পেন্সকে যে তথ্য দিয়েছেন তা নিয়ে মোটেই খুশি নন ট্রাম্প। তবে আমেরিকায় নিযুক্ত রুশ রাষ্ট্রদূতের সঙ্গে ফ্লিনের কথা বলায় ভুল নেই বলে মন্তব্য তার।

তাহলে ভুলটা কী? মূলত এ নিয়েই সংবাদ সম্মেলনে ক্ষোভ ঝেড়েছেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট। তার মতে, মিডিয়ার মানুষজন মনগড়া তথ্য প্রচার করেছে। তিনি বলেন, ‘এটি বেআইনি প্রক্রিয়া। এজন্য সংবাদমাধ্যমগুলোর নিজেদের লজ্জিত হওয়া উচিত।’

এক্ষেত্রে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম টুইটারে নিউইয়র্ক টাইমস ও ওয়াশিংটন পোস্ট পত্রিকা দুটির কথা উল্লেখ করে তাদেরকে অবশ্যই ক্ষমা চাইতে হবে বলে লিখেছেন ট্রাম্প। তার মতে, ‘ভুয়া খবরের মিডিয়াতে ছেয়ে গেছে সব। তারা সূত্র উল্লেখ করে গল্প বানায়।’

ট্রাম্পের কাছে ফক্স নিউজের জন রবার্টস জানতে চেয়েছেন, তথ্য ফাঁসের ঘটনা তিনি কীভাবে তদন্ত করবেন। উত্তরে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জানান, সবাইকে দলবদ্ধভাবে কাজ করতে হবে। এটাই তার চাওয়া। ইতোমধ্যে বিচার বিভাগের সঙ্গে তথ্য ফাঁস নিয়ে কথাও বলেছেন তিনি। তার ভাষ্য, ‘তথ্য ফাঁসকারীদের আমরা খুঁজছি। তাদেরকে চড়া মূল্য দিতে হবে।’

/জেএইচ/টিএন/

লাইভ

টপ